নিজেদের মহাকাশ স্টেশনে প্রবেশ করেছেন চীনা নভোচারীরা

নিজেদের মহাকাশ স্টেশনে প্রবেশ করেছেন চীনা নভোচারীরা
মহাকাশ স্টেশনে প্রবেশ দুই নভোচারীর। ছবি: সংগৃহীত

চীনের তিয়াংগং মহাকাশ স্টেশনে প্রবেশ করেছেন দেশটির নভোচারীরা। বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) বিকেলে তিন নভোচারী স্টেশনের প্রধান মডিউলে প্রবেশ করেন। আগামী তিন মাস তারা সেখানে অবস্থান করবেন। খবর প্রকাশ করেছে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টার দিকে চীনের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় গোবি মরুভূমির জিকুয়ান উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে মহাকাশ স্টেশনের উদ্দেশ্যে যাত্রা করে শেনঝু-১২ নভোযানটি। যেটি স্থানীয় সময় বিকেল প্রায় ৪টার দিকে অরবিটে পৌঁছায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, যাত্রাপথে নভোচারীরা কিছু কাজ করেছেন। তবে অধিকাংশই কম্পিউটারের মাধ্যমে পরিচালিত হয়েছে। নতুন এই মহাকাশ স্টেশনের প্রধান মডুলের নির্মাণ কাজ মাত্রই শুরু হয়েছে। যা আগামী মাসগুলোতে আরো বৃদ্ধি পাবে, যখন আরও মডুল, কার্গো এবং ক্রু সেখানে পৌঁছাবে। আগামী বছরের মধ্যে কাজ সম্পন্ন হবে।

চীনা ভাষায় তিয়াংগং মানে হচ্ছে, স্বর্গীয় স্থান। যেটি নিকট ভবিষ্যতে অরবিটের সবচেয়ে বড় অবকাঠামোগত নির্মাণ হতে যাচ্ছে এবং কেবল একটি দেশ (চীন) দ্বারা পরিচালিত। এটি চীনের মহাকাশ প্রেগ্রামকে অনেকটা এগিয়ে নিয়ে যাবে।

এই অভিযানের নেতৃত্বে আছেন ৫৬ বছর বয়সী নেই হেইশিং। আরও দুটি মহাকাশ ফ্লাইট মিশনে অংশ নেওয়ার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। তিনি পিপলস লিবারেশন আর্মির একজন এয়ারফোর্স পাইলট। অন্য দুইজন চীনা সামরিক বাহিনীর সদস্য। তারা হলেন ৫৪ বছর বয়সী লিউ বোমিং এবং ৪৫ বছর বয়সী তাং হংবো।

গত পাঁচ বছরের মধ্যে এটি চীনের দীর্ঘমেয়াদি মনুষ্য মিশন। ক্রুরা স্টেশনে তিন মাস অবস্থান করবেন। মহাকাশ স্টেশনে তাদের প্রত্যেকের থাকার আলাদা মডিউল রয়েছে। তবে বাথরুম, ডাইনিং, ডাউনিং এরিয়া ও যোগাযোগকেন্দ্র ভাগাভাগি করে ব্যবহার করতে হবে।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x