আফগানিস্তানে পরাজিত হয়েছি: মার্কিন সেনার স্বীকারোক্তি

আফগানিস্তানে পরাজিত হয়েছি: মার্কিন সেনার স্বীকারোক্তি
জেসন লিলি। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘ ২০ বছরের যুদ্ধ শেষে আফগানিস্তান ত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন বাহিনী। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, দেশটিতে তাদের মিশন শেষ হয়ে যাওয়াতেই এ সিদ্ধান্ত। তবে বিশেষজ্ঞরা শুরু থেকেই বলে আসছেন যে, আফগানিস্তানে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার মতো ব্যয় বহন করার সামর্থ্য যুক্তরাষ্ট্রের আর নেই। মূলত এ কারণেই নিজেদের কার্যক্রম সমাপ্তির ঘোষণা দিয়েছে তারা।

বিষয়টি নিয়ে একটি প্রতিবেদনে প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। সেখানে বেশ কয়েকজন মার্কিন সেনার সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়েছে। যারা মনে করেন, আফগানিস্তানে তাদের মিশন সম্পূর্ণ ব্যর্থ। এমনকি এই যুদ্ধের লক্ষ্য সম্পর্কেও তাদের মাঝে কোনো স্পষ্ট ধারণা ছিল না।

No description available.

দীর্ঘদিন আফগানিস্তান ও ইরাকে মার্কিন বাহিনীর হয়ে যুদ্ধ করেছেন জেসন লিলি। ৪১ বছর বয়সী এই সেনা বিশেষ অপারেশন ফোর্স মেরিন রাইডারের সদস্য। সৈন্য প্রত্যাহারের বিষয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্টের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় নিজ দেশের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করেন। তবে রাজনীতিবিদদের প্রতি ঘৃণা এবং রক্ত ​​ও অর্থের জালিয়াতি দেখে হতাশ।

বলেন, যুদ্ধে কমরেডদের মৃতু্য ও বিকলাঙ্গ হওয়া আমাকে জীবন ও দেশ সম্পর্কে পুনরায় ভাবতে বাধ্য করেছে।

No description available.

আমরা যুদ্ধে শতভাগ হেরেছি। পুরো বিষয়টি ছিল তালেবানদের হাত থেকে মুক্তি দেওয়া এবং আমরা তা করতে ব্যর্থ হয়েছি। তালেবানরা আবারও দখল নেবে, যোগ করেন তিনি।

ব্রাউন ইউনিভার্সিটির যুদ্ধ প্রকল্পের পার্টিশন ব্যয় অনুসারে, গত ২০ বছরে আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ও সামরিক জোট ন্যাটোর প্রায় সাড়ে তিন হাজারের বেশি সৈন্য নিহত হয়েছেন। এছাড়া ৪৭ হাজারের অধিক আফগান বেসামরিক নাগরিক, কমপক্ষে ৬৬ হাজার আফগান সৈন্য নিহত হয়েছেন। এর বাহিরে ২.৭ মিলিয়নের বেশি আফগান দেশ ছেড়ে পালিয়ে গেছে।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x