আফগানিস্তানে সহশিক্ষা নয়, তালেবানের সিলেবাসেই চলবে বিশ্ববিদ্যালয়

আফগানিস্তানে সহশিক্ষা নয়, তালেবানের সিলেবাসেই চলবে বিশ্ববিদ্যালয়
ছবি: সংগৃহীত।

নারীদের বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার অনুমতি দিলো আফগানিস্তানের বর্তমান সরকার, তবে পুরুষদের থেকে আলাদা ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে এবং পর্দার নিয়ম কানুন মেনে ক্লাস করতে হবে তাদের।

তালেবানের নতুন সরকারের শিক্ষামন্ত্রী আব্দুল বাকি হাক্কানি দেশটির শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, আফগানিস্তানের নারীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে পারবেন, এমনকি স্নাতকোত্তর পর্যন্ত পড়তে পারবেন তারা। তাদের হিজাব পরতে হবে। তবে মুখ ঢাকা বাধ্যতামূলক কি না, তা তিনি স্পষ্ট করেননি।

Taliban says women can study in gender-segregated universities | Taliban  News | Al Jazeera

শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, আফগানিস্তানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বর্তমানে যেসব বিষয় পড়ানো হচ্ছে, সেগুলো পর্যালোচনা করা হবে। আমরা ছেলে–মেয়েদের একসঙ্গে ক্লাস করতে দেবো না।

দুই দশক পর আফগানিস্তানে ক্ষমতায় ফিরে এসেছে তালেবান। গত সপ্তাহে তালেবান সন্ত্রাসী তালিকাভুক্ত ও কট্টর নেতাদের নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে। সেই সরকারে কোনো নারী কিংবা অন্য কোনো গোষ্ঠীর সদস্য স্থান পাননি। কিন্তু নারীশিক্ষার বিষয়ে ২০ বছর আগের নীতি থেকে তালেবান কিছুটা সরেছে বলে মনে হচ্ছে।

গত সপ্তাহে তালেবান সন্ত্রাসী তালিকাভুক্ত ও কট্টর নেতাদের নিয়ে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করে। এর আগে শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে নিজেদের পতাকা উত্তোলন করে তালেবান। এর মাধ্যমে এই গোষ্ঠী আফগানিস্তানে তাদের শাসন শুরু হওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x