মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মেয়েদের বাদ দিলো তালেবান

মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে মেয়েদের বাদ দিলো তালেবান
ছবি: সংগৃহীত

আফগানিস্তানে মাধ্যমিক বিদ্যালয় পুনরায় খুলেছে। তবে কেবল পুরুষ শিক্ষক ও ছেলে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরতে বলেছে তালেবান সরকার। গোষ্ঠীটির প্রকাশিত বিবৃতিতে মেয়ে বা নারী শিক্ষার ব্যাপারে কোনো কথা উল্লেখ করা হয়নি। খবর প্রকাশ করেছে বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ শনিবার মাধ্যমিক বিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে বিবৃতি প্রকাশ করেছে তালেবান। সেখানে বলা হয়, সব পুরুষ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরা উচিত।

No description available.

সাধারণত মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ১৩ থেকে ১৮ বছর বয়সী শিক্ষার্থীরা পড়ে থাকেন। আবার অধিকাংশ স্কুলই আলাদা। ফলে তালেবানরা সহজেই নারীদের স্কুল থেকে বাদ দিতে পারছে।

আফগানিস্তানের স্কুল পড়ুয়া এক মেয়ে শিক্ষার্থী বলেন, তিনি বিধ্বস্ত। চারপাশে সবকিছুই অন্ধকার দেখাচ্ছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাতিল করে দিয়েছে তালেবান সরকার। কাবুলে মন্ত্রণালয়ের ভবনে নারীদের সব চিহ্ন মুছে দিয়ে সেখানে তালেবানের নৈতিক পুলিশের চিহ্ন প্রতিস্থাপন করেছে শ্রমিকরা। বিভাগটির সাবেক নারী কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বলেছেন, তাদের ভবনের বাইরে তালা দেওয়া হয়েছে।

প্রকাশিত ছবি এবং রয়টার্সের প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভবনটি দারি এবং আরবি মিশ্রিত চিহ্ন দ্বারা আচ্ছাদিত ছিল। শুক্রবার সেখানে ‘প্রার্থনা ও নির্দেশনা মন্ত্রণালয় এবং পুণ্যের প্রচার এবং অনৈতিকতা প্রতিরোধ’ লেখা দেখা গেছে।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x