যুক্তরাষ্ট্রের ‘দ্বিমুখী’ নীতির নিন্দা উত্তর কোরিয়ার

যুক্তরাষ্ট্রের ‘দ্বিমুখী’ নীতির নিন্দা উত্তর কোরিয়ার
ছবি: প্রতীকী

উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ‘দ্বিমুখী’ নীতির কঠোর নিন্দা জানিয়েছে পিয়ংইয়ং। পরমাণু সংক্রান্ত আলোচনা স্থবির হয়ে পড়ার জন্য ওয়াশিংটনের এ ধরনের দ্বৈত মনোভাবকে দায়ী করেছে উত্তর কোরিয়া। উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ কোরিয়া উভয় দেশ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কয়েক দিন পর পিয়ংইয়ংয়ের পক্ষ থেকে এমন মন্তব্য কর হলো।

বার্তা সংস্থা এএফপি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়া বুধবার সাবমেরিন থেকে উেক্ষপণযোগ্য একটি ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালায়। ডুবোজাহাজ থেকে এটি ছিল তাদের প্রথম এ ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা। এর মধ্য দিয়ে প্রযুক্তিগত অগ্রগতির ক্ষেত্রে সিউল বিশ্বে ১৭তম দেশের তালিকায় উঠে এলো। পারমাণবিক ক্ষমতাধর দেশ উত্তর কোরিয়া সাগর অভিমুখে দুইটি ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর কয়েক ঘণ্টা পর এ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে বিবদমান দুইটি দেশের ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ফলে আঞ্চলিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Threatening and provocative': US condemns North Korea's missile launch -  World News , Firstpost

দক্ষিণ কোরিয়ার মিত্র দেশ যুক্তরাষ্ট্র উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোর কঠোর নিন্দা জানিয়ে বলেছে, এটি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের একাধিক প্রস্তাবের লঙ্ঘন এবং তারা পিয়ংইয়ংয়ের এমন কর্মকাণ্ডকে প্রতিবেশী দেশগুলোর প্রতি ‘হুমকি’ হিসেবে দেখছে।

উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সি (কেসিএনএ) পরিবেশিত এক প্রতিবেদনে দক্ষিণ কোরিয়ার ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উেক্ষপণের কথা উল্লেখ করে সিউলের কর্মকাণ্ডের ব্যাপারে নীরব থেকে ‘দ্বিমুখী’ নীতির পরিচয় দেওয়ায় শুক্রবারের ওয়াশিংটনের মন্তব্যের কঠোর সমালোচনা করা হয়। কেসিএনএর মন্তব্য প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের এমন ‘দ্বিমুখী’ কর্মকাণ্ডের কারণেই কোরীয় উপদ্বীপ সংক্রান্ত সংকট সমাধানের পথ বারবার বাধাগ্রস্ত হচ্ছে এবং উত্তেজনা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, দক্ষিণ কোরিয়ার পরীক্ষা হচ্ছে সিউলের জন্য একটি কৌশলগত অগ্রগতি। তারা উত্তর কোরিয়ার দেওয়া হুমকি মোকাবিলায় তাদের সামরিক সক্ষমতা শক্তিশালী করে আসছে। উল্লেখ্য, পিয়ংইয়ং তাদের পরমাণু অস্ত্র ও ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির জন্য আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x