ঢাকা বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬
৩০ °সে

ভেনিজুয়েলা দখলে যুদ্ধ উস্কে দিচ্ছে ট্রাম্প সরকার: মাদুরো

ভেনিজুয়েলা দখলে যুদ্ধ উস্কে দিচ্ছে ট্রাম্প সরকার: মাদুরো
ভেনিজুয়েলা প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। ছবি: সংগৃহীত

ভেনিজুয়েলা সংকটের জন্য একমাত্র যুক্তরাষ্ট্রই দায়ী বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, 'ভেনিজুয়েলা দখল করার জন্য তারা যুদ্ধ উস্কে দিচ্ছে'। এছাড়াও ট্রাম্পের সরকারকে ‘চরমপন্থিদের চক্র’ বলেও আখ্যা দিয়েছেন তিনি। খবর বিবিসি।

ভেনিজুয়েলা সংকট নিয়ে সম্প্রতি বিবিসিকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে মাদুরো বলেন, 'ভেনিজুয়েলায় মানবিক ত্রাণ ঢুকতে দেবেন না। কারণ, ত্রাণ পাঠানো একটি রাজনৈতিক চাল। এর মধ্য দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের পথ খুলে যাবে'।

যুক্তরাষ্ট্রসহ অন্যান্য পশ্চিমা দেশগুলো ইতিমধ্যেই ভেনিজুয়েলার স্বঘোষিত অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট ও বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদোর পক্ষে নিজেদের সমর্থন দিয়েছে। এমন অবস্থায় মাদুরো সব দিক থেকেই আগাম নির্বাচন দেওয়ার চাপে রয়েছেন। বিবিসিকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে মাদুরো যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক যুদ্ধ চালানোর অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে তিনি এই মার্কিন প্রেসিডেন্টের পতন কামনা করেন।

এদিকে অর্থনৈতিক সংকটে পড়া ভেনিজুয়েলার কোনো রকম 'ত্রাণ'-এর দরকার নেই দাবি করে মাদুরো বলেন, 'ত্রাণ পাঠানোর উদ্যোগ বিদেশিদের একটি ষড়যন্ত্র। তাদের ফেলে দেওয়া বিষাক্ত খাদ্য আমাদের ত্রাণ হিসেবে দরকার নেই'। তবে দেশটি বর্তমানে অর্থনৈতিক এবং মানবিক সংকটে জর্জরিত। দিন দিন পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় দলে দলে মানুষ দেশ ছেড়ে চলে যাচ্ছে। আর ভেনিজুয়েলার এই অর্থনৈতিক বিপর্যয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞাকেই দায়ী করেছেন মাদুরো।

তিনি বলেন, 'ভেনিজুয়েলায় মানবিক সংকট সৃষ্টি করতে চাইছে যুক্তরাষ্ট্র। যাতে তারা দেশটিতে সামরিক হস্তক্ষেপ করতে পারে'।

এর আগে ভেনিজুয়েলার বিরোধীদলীয় নেতা হুয়ান গুইদো চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্র পশ্চিমা দেশগুলোর সমর্থন নিয়ে নিজেকে ভেনিজুয়েলার অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছেন। এরপরই দেশটিতে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা দেখা দেয়। দেশটির সরকার এই ঘোষণার পরপরই গুইদোর নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণাকে ক্যু করার প্রচেষ্টা হিসেবে অভিহিত করেছে। এছাড়াও ডোনাল্ড ট্রাম্প গুইদোকে ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার পাশাপাশি দেশটিতে প্রয়োজনে সামরিক হস্তক্ষেপ করার হুমকি দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ‘আমার জন্যই চলে গেলেন বাবা-মা, বেঁচে থেকেও আমি মৃত’

তবে যুক্তরাষ্ট্রের গুইদোর পক্ষে সমর্থন ঘোষণা সত্ত্বেও চীন, রাশিয়া, ইরান, তুরস্ক ও মেক্সিকোসহ আরও কিছু দেশ নিকোলাস মাদুরো সরকারকে সমর্থন জানিয়েছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৪ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন