ঢাকা রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
২৭ °সে


উত্তর প্রদেশে ধর্ষণ কমেছে, যোগী আদিত্যনাথের দাবি

উত্তর প্রদেশে ধর্ষণ কমেছে, যোগী আদিত্যনাথের দাবি
উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। ছবি-সংগৃহীত

ভারতের উত্তরপ্রদেশে ধর্ষণসহ অন্যান্য অপরাধ কমেছে বলে দাবি করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।এমন সময়ে তিনি এ দাবি করেছেন, যখন রাজ্যে তার নিজ দলেরই দুজন নেতা পৃথক দুটি ধর্ষণের মামলায় জড়িয়ে পড়েছেন।

উন্নাও এর নির্যাতিত কিশোরীর পরিবার দাবি করছে, মেয়েটির প্রাণনাশের হুমকি আসছে ক্ষমতাসীন মহলের পক্ষ থেকে। অন্যদিকে, বিজেপি নেতা স্বামী চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলার তদন্ত চলছে। তবে, চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোন চার্যশিট গঠন করেনি রাজ্যের পুলিশ।

এদিকে বৃহস্পতিবার ক্ষমতায় আসার ৩০ মাস পূর্ণ হয়েছে মূখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের। এ উপলক্ষে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘নারী সুরক্ষাই আমাদের প্রধান লক্ষ্য। সরকার নারীদের মামলাগুলোতে গতি আনছে। দ্রুত বিচার ও চার্জশিট পেশ আমাদের লক্ষ্য।’ তার ক্ষমতায় আসার পর উত্তর প্রদেশে ধর্ষণ মামলা ৩৬ শতাংশ কমে গেছে বলেও দাবি করেন বিজেপি এই নেতা।

রাজ্যে ধর্ষণকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক চাঞ্চল্যের পরিপ্রেক্ষিতে যোগীর এই বক্তব্যকে বেমানান বলে মনে করছেন ভারতের সচেতন মহল। উন্নাও কাণ্ডে ঘটনার এক বছর পর যৌন নিপীড়নের শিকার মেয়েটির বাবা মারা যাওয়ার পর অভিযুক্ত বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে মামলা গ্রহণ করে আদালত।

আরও পড়ুন : জামালপুরে ভারতীয় সীমান্তে বন্য হাতি আতংক

এ ঘটনার কথা উল্লেখ করে সাবেক মূখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব বলেন, 'উন্নাওতে একটি মেয়ে ছিল। তার বাবা খুন হয়।এরপর মূখ্যমন্ত্রীর অফিসের সামনে এসে এফআইআর দায়ের করার দাবিতে আত্মহুত্যার চেষ্টা কয়রে মেয়েটি।’

এদিকে রাজ্যের বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা ও প্রাক্তন সাংসদ চিন্ময়ানন্দের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন তারই পরিচালিত আইন কলেজের এক ছাত্রী। ঐ তরুণীর অভিযোগ, নিজের আইন কলেজে ভর্তির সুযোগ দিয়ে এক বছর ধরে তাকে ধর্ষণ করেছেন বিজেপির প্রবীণ এই নেতা। সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এরই মধ্যে তরুণী ও চিন্ময়ানন্দকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে বিশেষ তদন্তকারী দল। কিন্তু এখন পর্যন্ত বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে কোন মামলা দায়ের করা হয়নি আদালতে।

মুখ্যমন্ত্রী ধর্ষণ ছাড়াও অন্যান্য অপরাধের ব্যাপারে বলেন, তিনি রাজ্যের দ্বায়িত্ব নেয়ার পর থেকে সাধারণ অপরাধের মাত্রা অনেক কমেছে। তিনি আরো দাবি করেন, গত আড়াই বছরে উত্তর প্রদেশে একটিও দাঙ্গার ঘটনা ঘটেনি। দাগী আসামীরা হয় জেলে আছেন, নয়তো রাজ্য ছেড়ে পালিয়েছে। ডাকাতি, দাঙ্গা, লুটপাট ও ধর্ষণ সবই কমেছে। এনডিটিভি

ইত্তেফাক/মিশু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন