সশস্ত্র বাহিনীকে অত্যাধুনিক অস্ত্র তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন খামেনি

সশস্ত্র বাহিনীকে অত্যাধুনিক অস্ত্র তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন খামেনি
আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। ছবিঃ সংগৃহীত।

ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি দেশটির সশস্ত্র বাহিনী রেভল্যুশনারি গার্ডকে (আইআরজিসি) আরও অত্যাধুনিক অস্ত্র তৈরির নির্দেশ দিয়েছেন। রাজধানী তেহরানে ইমাম হুসেইন সামরিক বিশ্ববিদ্যালয়ে দেয়া এক বক্তৃতায় খামেনি এ নির্দেশ দেন বলে দেশটির আধা সরকারি বার্তা সংস্থা তাসনিমের বরাত দিয়ে জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

আইআরজিসির উদ্দেশে খামেনি বলেন, আমাদের হাতে অত্যাধুনিক এবং বিধ্বংসী অস্ত্র থাকা উচিত। এই অস্ত্র আমাদের নিজেদেরই তৈরি করতে হবে। বর্তমানে ইরানের অভ্যন্তরে ও বাইরে আইআরজিসি এর শক্ত অবস্থানের কথা উল্লেখ করে খামেনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের শত্রুভাবাপন্ন মনোভাবের ফলে আমাদের বাহিনীর সামর্থ আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

আঞ্চলিক উত্তেজনার প্রেক্ষিতে তিনি এমন নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির সংবাদ মাধ্যম।

এদিকে ইরানের সাথে সৌদি আরবের চলমান উত্তেজনা প্রশমনে তেহরানে পৌছেছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এরই মধ্যে ইমরান ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সাথে এক বৈঠকে মিলিত হয়েছেন। তবে বৈঠকের ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানা যায় নি।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরের স্বায়ত্বশাসন ফিরিয়ে দেবেন না জানিয়ে মোদির চ্যালেঞ্জ

পাক প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে এর আগে বলা হয়েছে, উপসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি ও নিরাপত্তা জোরদারের অংশ হিসেবে ইমরান খান এ সফর করছেন। সফরকালে তিনি ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনি এবং প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে বৈঠক করবেন। তবে এই ইস্যু নিয়ে আলোচনার জন্য এখনই সৌদি আরবে যাচ্ছেন না পাক প্রধানমন্ত্রী। ইরানের দুই শীর্ষ নেতার সঙ্গে বৈঠকের পর তেহরান থেকে রোববারই দেশে ফিরবেন তিনি।

উল্লেখ্য, তেল-বাণিজ্য নিয়ে উপসাগরীয় অঞ্চলের দুই দেশের মধ্যে টান টান উত্তেজনা চলছে। গত ১৪ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জন্য ইরানকে দায়ী করে আসছে সৌদি আরব। এর পর থেকে দুই দেশের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। এমন পরিস্থিতিতে ইরান ও সৌদি আরবের মধ্যে চলা উত্তেজনা প্রশমনে মধ্যস্থতা করার ঘোষণা দেন ইমরান খান।

ইত্তেফাক/ এসইউ/এসএইচএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত