ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২১ °সে


সিরিয়া ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকা নিয়ে ধোঁয়াশা

সিরিয়া ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকা নিয়ে ধোঁয়াশা
ছবি-সংগৃহীত

সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতি বাস্তবায়নে তুরষ্ক রাজি হয়েছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স। বৃহস্পতিবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট রুসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানের সঙ্গে সাক্ষাতের পর এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানিয়েছেন। কিন্তু এর কিছুক্ষণ বাদেই তুর্কি প্রেসিডেন্ট নিজের এক বিবৃতিতে জানান, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে মার্কিন-তুর্কি যৌথ কার্যক্রমের মাধ্যমে সেখানে ৩০ কিলোমিটার গভীর 'নিরাপদ এলাকা' তৈরি করা সম্ভব বলে তিনি আত্মবিশ্বাসী। এরদোগানের এমন মন্তব্যের পরই কুর্দি অধ্যুষিত অঞ্চলটিতে তুরষ্কের আগ্রাসন বন্ধে যুক্তরাষ্ট্রের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে, সৃষ্টি হয়েছে ধোঁয়াশা।

এর আগে বুধবার সিরিয়ায় অস্ত্রবিরতির জন্য এরদোগানকে রাজি করানোর জন্য তুরষ্কে গেছেন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। যদিও তুর্কি প্রেসিডেন্ট তাদের সাথে দেখা করবেন না বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন, কিন্তু পরবর্তীতে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠক শেষে মাইক পেন্স জানান, সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে একমত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরষ্ক। সেখানে একটি নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কুর্দি বিদ্রোহীদের এলাকাটি ছেড়ে যেতে ১২০ ঘণ্টার জন্য অভিযান স্থগিত রাখবে আঙ্কারা। এ সময়ে সিরিয়ায় অপারেশন পিস স্প্রিং নামের তুর্কি সামরিক অভিযান স্থগিত থাকবে। এ ব্যাপারে টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, তুরস্কের কাছ থেকে শিগগিরই চমৎকার খবর আসতে যাচ্ছে।

গত ৬ অক্টোবর এরদোয়ানের সঙ্গে কথা বলে ট্রাম্প জানান, সিরিয়ার তুর্কি সীমান্ত এলাকা থেকে মার্কিন সামরিক উপস্থিতি প্রত্যাহার করে নেওয়া হবে। ট্রাম্পের এমন ঘোষণায় তখন সমালোচনার ঝড় ওঠে। তিনি তুরস্ককে সিরিয়ায় অভিযান পরিচালনার ‘সবুজ সংকেত’ দিয়ে দিয়েছেন বলেও অভিযোগ ওঠে। তবে সিরিয়ায় হামলা চালানোর জন্য তুরস্ককে সবুজ সংকেত দেওয়ার এই অভিযোগ অস্বীকার করেন ট্রাম্প।

এদিকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট বৈঠক শেষে এক বিবৃতিতে জনান, কুর্দিদেরকে সিরিয়ার উত্তরাঞ্চল থেকে বিতারিত করতে তার সাথে সম্মত হয়েছেন মার্কিন কূটনীতিকরা। একইসঙ্গে কুর্দিদের সেখান থেকে হটিয়ে সিরীয় শরণার্থীদের জন্য একটি 'সেইফ জোন' তৈরি করার ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্র তাদের সাথে যৌথভাবে কাজ করবে বলে আত্মবিশ্বাস প্রকাশ করেছেন এরদোগান।

আরও পড়ুনঃ নরেন্দ্র মোদিকে 'বেচেন্দ্র মোদি' উপাধি রাহুলের

এছাড়া তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগ্লু মার্কিন-তুর্কি বৈঠকের সিদ্ধান্তের বিষয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, বৈঠকে তুরষ্কের 'অপারেশন পিস স্প্রিং' স্থগিতের অর্থ কুর্দিদের বিরুদ্ধে অস্ত্রবিরতি নয়। তিনি বলেন, 'আমরা কেবল ১২০ ঘন্টার জন্য অভিযান স্থগিত রাখতে রাজি হয়েছি। কিন্তু এর অর্থ কোনমতেই অস্ত্রবিরতি নয়। আমদের সৈন্যরা যুদ্ধক্ষেত্র ছেড়ে আসবে না, তারা সেখানেই থাকবে।'

ইত্তেফাক/এসএইচএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন