ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৮ °সে


কুর্দিদের বিরুদ্ধে পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা তুরস্কের

কুর্দিদের বিরুদ্ধে পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতি ঘোষণা তুরস্কের
ছবি-সংগৃহীত

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের সঙ্গে বৈঠকের পর তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়িপ এরদোয়ান সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দিবিরোধী অভিযান পাঁচ দিনের জন্য বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছেন। এরদোয়ান এই সময়ের মধ্যে সীমান্তের ৩০ কিলোমিটার এলাকা থেকে কুর্দি গেরিলাদের সরে যাওয়ার শর্তও দিয়েছেন। কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ। যুদ্ধবিরতিকে স্বাগত জানালেও সৈন্য প্রত্যহারের শর্তে কুর্দিরা রাজি হয়েছে কি না, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্ত হওয়ার পরও রাস আল-আইনে গোলাবর্ষণের খবর পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার আঙ্কারায় পেন্স-এরদোয়ান বৈঠকের পর মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতিতে তুরস্কের সম্মত হওয়ার বিষয়টি জানান। পেন্স বলেন, সব ধরনের যুদ্ধ পাঁচ দিন বন্ধ থাকবে। তুরস্কের হিসাবে তারা সীমান্ত এলাকায় যে ‘নিরাপদ অঞ্চল’ সৃষ্টি করতে চায়, ওই এলাকা থেকে কুর্দি বাহিনী প্রত্যাহারে যুক্তরাষ্ট্র সাহায্য করবে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ায় যুদ্ধবিরতিকে স্বাগত জানিয়েছেন। তিনি বলেন, এতে লাখ লাখ প্রাণ রক্ষা পাবে।

কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্রেটিক ফোর্স (এসডিএফ) সিরিয়ার সীমান্ত থেকে সরে গেলে এ যুদ্ধবিরতি স্থায়ী হবে বলে জানিয়েছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু। তিনি বলেন, আমরা অভিযান স্থগিত রাখছি, বন্ধ করছি না। তারা (কুর্দি বাহিনী) ওই এলাকা থেকে পুরোপুরি সরে গেলে আমরা অভিযান থামিয়ে দেবো।’ কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনীর অন্যতম শীর্ষ কমান্ডার মজলুম কোবানি বলেছেন, তারা রাস আল-আইন ও তাল আবিয়াদে যুদ্ধবিরতি কার্যকর হচ্ছে কি না তা দেখবেন। তিনি বলেন, ‘অন্য এলাকার ভাগ্য নিয়ে আমাদের সঙ্গে আলোচনা হয়নি।’

সিরিয়ায় কুর্দিদের বিরুদ্ধে তুরস্কের যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে জাতিসংঘ। এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানায়, ‘জাতিসংঘ চার্টার ও আন্তর্জাতিক আইন মেনে বেসামরিকদের সুরক্ষায় যে কোনো পদক্ষেপকে স্বাগত জানান মহাসচিব।’ জাতিসংঘ বলেছে, মহাসচিব অ্যান্থনিও গুতেরেস মনে করেন, সিরীয় সংকট মোকাবিলায় এখনো আরো অনেক কিছু করার আছে। এখনো অনেক পথ বাকি।

যুক্তরাজ্যভিত্তিক যুদ্ধ পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে, যুদ্ধবিরতির সিদ্ধান্ত হওয়ার পরও রাস আল-আইনে সংঘর্ষের খবর পেয়েছেন তারা। তুরস্কের এ ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ অভিযানের আট দিনে সিরিয়ায় অন্তত ৭২ বেসামরিকের মৃত্যু হয়েছে বলেও জানিয়েছে তারা। তিন লাখের বেশি মানুষ উদ্বাস্তু হয়েছে।

ইত্তেফাক/এসআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন