বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডন যেতে চান খালেদা জিয়া

আপডেট : ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৮:৫১

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে আবারো হাইকোর্টে আবেদনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে এ সংক্রান্ত জামিন আবেদনটি চূড়ান্ত করেছেন তার আইনজীবীরা। ফৌজদারি কার্যবিধির (সিআরপিসি) ৪২৬(১) ধারায় আবেদনটি করা হয়েছে। সংশ্লিষ্ট ধারায় উল্লেখ রয়েছে যে, আপিল বিচারাধীন থাকাবস্থায় সংশ্লিষ্ট আদালতে জামিন চাওয়া যাবে।  

ওই জামিন আবেদনে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়া গুরুতর অসুস্থ। তার উন্নত চিকিৎসা প্রয়োজন। জামিন পেলে তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যেতে চান। দুই এক দিনের মধ্যে আবেদনটি হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় দাখিল করা হবে। 

আইনজীবী সূত্র জানিয়েছে, বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে চলতি সপ্তাহে আবেদনটি শুনানির জন্য উত্থাপন করা হবে। এর আগে এই দ্বৈত বেঞ্চ চ্যারিটেবল মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন সরাসরি খারিজ করে দেন। 

আরো পড়ুন : খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিএনপির বিক্ষোভ

ওই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। সর্বোচ্চ আদালত খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যগত প্রতিবেদন চান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল (বিএসএমএমইউ) কর্তৃপক্ষের কাছে। পরে খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট প্রদানের বিষয়ে বোর্ড গঠন করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ওই প্রতিবেদন আসার পর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চ খালেদা জিয়াকে জামিন না দিয়ে আবেদনটি নিষ্পত্তি করে দেন। আদালত বলেন, খালেদা জিয়ার সম্মতি পেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে অ্যাডভান্স ট্রিটমেন্ট দিবে। 

দুদকের দায়েরকৃত জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় ঢাকার একটি বিশেষ জজ আদালত খালেদা জিয়াকে সাত বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়। ওই সাজা বাতিল চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। এছাড়া জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ১০ বছরের সাজার বিরুদ্ধে আপিল করেছেন খালেদা জিয়া। ওই আপিল আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট দীর্ঘদিন ধরে পরে আছে। কিন্তু শুনানির কোন উদ্যোগ নেননি আইনজীবীরা।  

ইত্তেফাক/ইউবি