বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চ্যাম্পিয়নদের সংবাদ সম্মেলনে ৬ সাংবাদিক!

আপডেট : ১৬ নভেম্বর ২০২১, ০৪:৪৬

কাম অন ফিঞ্চ! ড্রেসিংরুমের দরজা খুলে অধিনায়ককে ডাকছিলেন এক অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার। চোখ ফেলতেই দেখা গেলো একটি বড় টেবিলের উপর বসে হাসছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। অন্দরমহলের বাকি অংশ দরজার কপাটের আড়ালে পড়ে গেছে। অ্যারন ফিঞ্চের প্রতি উত্তরকে ‘ঝাড়ি’ বললে ভুল হবে না। সংবাদ সম্মেলনের মঞ্চে বসে অজি অধিনায়ক বললেন, হেই জাস্ট ক্লোজ দ্য ডোর।

এখানে আসতেও কিছুটা বিলম্ব হয়েছিল ফিঞ্চের। তাই ঢুকেই দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন। ফিঞ্চের দেরি হওয়ার কারণটা টের পাচ্ছিলাম সংবাদ সম্মেলনে আসার পর থেকেই। পুরস্কার বিতরণী শেষে নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন আগে আসেন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হতে।

উইলিয়ামসনের প্রশ্ন-উত্তর পর্ব শুরু হওয়ার মিনিট দু'য়েক পর থেকেই পাশের ড্রেসিংরুম জানিয়ে দিচ্ছিল, এখানেই আছে পুরো অস্ট্রেলিয়া দল। গানের সঙ্গে সমস্বরে সুর মেলানো, উদ্বেলিত দলটার উচ্ছ্বাসে মুখর আশ-পাশ। বিকট না হলেও দুম-দাম আওয়াজ, সাউন্ড সিস্টেমে গান পুরো জায়গা মাতিয়ে রেখেছে। অজিদের উল্লাস যেন থামছেই না। প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জয় করা বলে কথা, এমন অর্জন-সাফল্য তো তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করতে হয়।

সংবাদ সম্মেলনে অ্যারন ফিঞ্চ

অজিরা না থামায় অবশ্য উইলিয়ামসনকে কয়েকবার থামতে হয়েছিল কথার মাঝে। তবে সংবাদ সম্মেলন শেষ করেই ফিরেছেন কিউই অধিনায়ক।

দুবাই স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলন কক্ষ দুই ড্রেসিংরুমের মাঝে, বিশাল হল ঘরের মতো রুম। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, ৭২ ঘন্টার মধ্যে করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট থাকলে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকা যাবে। আমার করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট থাকায় আইসিসির মিডিয়া ম্যানেজার ম্যারি গডবির হাতে একটা কার্ড ধরিয়ে দিলাম।

প্রেসবক্সে তখন অনেক বাংলাদেশি, ভারতীয় ও পাকিস্তানি সহকর্মী সময়মতো নেগেটিভ রিপোর্ট না পাওয়ায় সংবাদ সম্মেলনে যেতে পারছিলেন না। ইংল্যান্ডের বিখ্যাত সাংবাদিক লরেন্স বুথ (বিশ্বকাপের ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট জুরি বোর্ডের সদস্য), শ্রীলঙ্কার রেক্স ক্লেমেন্তে সহ কথা বলতে বলতে চলে গেলাম সংবাদ সম্মেলন কক্ষে। বিশাল কক্ষে ১০-১৫টি চেয়ার পাতা রয়েছে। নিরাপত্তা বেষ্টনি তৈরি করা আছে। অনেকটা দূরে সংবাদ সম্মেলন মঞ্চ।

বিশ্বকাপ ফাইনাল শেষ, বিশ্বচ্যাম্পিয়ন-রানার্সআপদের সংবাদ সম্মেলন হবে। অথচ কক্ষে সাংবাদিক মাত্র ৬ জন! বাকি তিনজনের দু'জন ভারতীয় ও একজন পাকিস্তানি সাংবাদিক। 
বিশ্বকাপ জিতে ফেরা দলের সংবাদ সম্মেলন জনাকীর্ণ হবে, উপচে পড়া ভিড় হবে, সব গল্প জানতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে সাংবাদিকরা ফিরবেন, এমনটাই তো প্রত্যাশিত। কিন্তু করোনা বদলে দিয়েছে সব। করোনাকালের বাস্তবতায় ফিঞ্চ-উইলিয়ামসনের সামনে বসে আমরা ৬ সাংবাদিক।

চ্যাম্পিয়ন অজিদের উল্লাস

প্রশ্ন-উত্তর পর্ব চলাকালে ফিঞ্চ জানিয়েছেন, ড্রেসিংরুমে চ্যাম্পিয়নদের পার্টির ডিজে দু'জন। অ্যাডাম জাম্পা ও কেন রিচার্ডসনই ডিজের ভূমিকায় রয়েছেন।

আইপিএলে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের দলটাতে ব্রাত্য হয়ে পড়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। সাইড বেঞ্চে কেটেছে বেশিরভাগ সময়। তবে বিশ্বকাপ দলে ওয়ার্নারের থাকা নিয়ে সংশয় ছিল না ফিঞ্চের মনে। এমনকি বিশ্বকাপের মাস খানেক আগে না কি কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গারকে কল করে ফিঞ্চ বলেছিলেন, ‘ডেভি কে (ওয়ার্নার) নিয়ে চিন্তা করো না। সে ম্যান অব দ্য টুর্নামেন্ট হবে।’
ফিঞ্চের কথা বাস্তবে ধরা দিয়েছে। ৭ ম্যাচে ২৮৯ রান করে বিশ্বকাপের সপ্তম আসরের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন ওয়ার্নার। ফাইনালেও ৫৩ রানের ইনিংস খেলে অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ জয়ে বড় অবদান রেখেছেন এ বাঁহাতি ওপেনার।

সংবাদ সম্মেলনের পাঠ চুকিয়ে বের হতেই দেখি, অস্ট্রেলিয়ার ড্রেসিংরুমের দরজা থেকে স্টেডিয়ামের ফটকের রাস্তা পর্যন্ত সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়ে স্বেচ্ছাসেবকরা। হাতে ফুল, একটা গেইটও করা হয়েছে। চ্যাম্পিয়নদের সম্মান জানানোর সব আয়োজন প্রস্তুত। স্বেচ্ছাসেবকদের এই অপেক্ষার খবর ওয়ার্নার-স্মিথদের জানা থাকার কথা নয়। তারা তো ড্রেসিংরুমে উন্মুত্ত উল্লাসে মত্ত।

ইত্তেফাক/টিএ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ভারতকে টপকে তিনে পাকিস্তান

শ্রীলঙ্কার টেস্ট দলে তিন নতুন স্পিনার

এজবাস্টনে বর্ণবাদের শিকার ভারতীয় দর্শক

সুসম্পর্ক নষ্ট করতে চায় না বিসিবি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ মাসেই জিম্বাবুয়ে সফরে যাবে বাংলাদেশ

পুরুষদের সমান বেতন পাবেন নারী ক্রিকেটাররা

এজবাস্টনে ইংলিশ রূপকথা

ভারতীয়দের 'পাকি' সম্বোধন করে বর্ণবিদ্বেষী গালি