শুক্রবার, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ৭ মাঘ ১৪২৮
দৈনিক ইত্তেফাক

খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যরা কে কোথায়

আপডেট : ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১৯:৩৯

দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে আন্দোলন করছেন দলটির সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। এ পরিস্থিতিতে পরিবারের সদস্যরা স্বভাবতই উৎকণ্ঠায় সময় পার করছেন। তবে, দলের নেতাকর্মীদের আন্দোলনে পরিবারের কাউকেই কখনো দেখা যায় না।

বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার ইত্তেফাক অনলাইনের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, ‘খালেদা জিয়ার এই ক্লান্তিলগ্নে পরিবারের সবাই উৎকণ্ঠায় আছেন। সবাই যার যার অবস্থান থেকে তার চিকিৎসার খোঁজখবর নিচ্ছেন।’

তবে পরিবারের পক্ষ থেকে একমাত্র খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দারকেই দেখা গেছে, সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ ছাড়াও তার  চিকিৎসা ও অন্যান্য কাজে সহযোগিতা করতে। তিনি খালেদা জিয়ার বিদেশ যাত্রার অনুমতি চেয়ে সরকারের কাছে আবেদন করলেও এখন পর্যন্ত কোনো সাড়া মেলেনি।

খালেদা জিয়ার বড় বোন সেলিমা ইসলামও তার পাশে রয়েছেন বলে জানান দিদার। তিনি বলেন, সেলিমা ইসলাম সবসময় খালেদা জিয়ার খোঁজখবর রাখছেন। 

ইতোমধ্যে সেলিমা গণমাধ্যমকে বলেন, ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। বুঝতেই পারছেন তিনি ২৬ দিন হাসপাতালে থেকে এসেছেন। আবার এক সপ্তাহ যেতে না যেতেই হাসপাতালে যেতে হলো। তার হিমোগ্লোবিন অনেক কমে গেছে। শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। কারণ এখানে ডাক্তাররা সেভাবে চিকিৎসা দিতে পারছেন না। কারণ তাদের আধুনিক যন্ত্রপাতি বা সুবিধা নেই।’  

পরিবারের অন্যতম সদস্য তারেক রহমান ও তার স্ত্রী জোবায়দা রহমান লন্ডন থেকে খালেদা জিয়ার খোঁজ খবর রাখছেন। আইনি জটিলতায় অসুস্থ মাকে দেখতে তারেক রহমানের দেশে না এলেও তার স্ত্রী ও কন্যার আসতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা। কারণ, তারেক রহমানের স্ত্রী জোবায়দা রহমান গত দেড় বছরেরও বেশি সময় ধরে খালেদা জিয়ার মেডিক্যাল টিমের প্রধান হিসেবে লন্ডন থেকে চিকিৎসার ব্যাপারে মনিটরিং করছেন। সে হিসেবে অসুস্থ খালেদা জিয়ার সেবা করতে তিনি যদি দেশে আসতে চান, সে ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে বাধা দেওয়ার সুযোগ নেই। এই ব্যাপারেও ব্রিটিশ মানবাধিকারবিষয়ক আইনজীবী ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেন বলেছেন, ‘তারেকের পরিবার অবশ্যই আসতে পারে, সেখানে কোনো বাধা থাকবে না। তবে এখন পর্যন্ত খালেদা জিয়াকে দেখার জন্য জোবায়দা রহমান ও জায়মা রহমান আসার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন, এমন খবর পাওয়া যায়নি।’

রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিয়মিত দেখভাল করছেন তার প্রয়াত ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি। চলতি বছরের ২৪ অক্টোবর দেশে আসেন তিনি। এর আগে ২০১৯ সালের ২৫ ডিসেম্বর সিঁথি দেশে এসেছিলেন।

ইত্তেফাক/এনই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

খসড়া না পড়েই বিএনপির মন্তব্য ‘না’ বলা বাতিকের প্রমাণ: তথ্যমন্ত্রী

বহিষ্কার করলেও দল পরিবর্তন করবো না: তৈমূর

তৈমূরকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

তৈমূরকে বিএনপি থেকে বহিষ্কার

ইসি গঠনে আইনের উদ্যোগ ‘যেই লাউ সেই কদু’: বিএনপি  

রাষ্ট্রপতির কাছে আওয়ামী লীগের ৪ প্রস্তাব