বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

কাউখালীতে বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন

আপডেট : ১৭ ডিসেম্বর ২০২১, ১৫:০৫

যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতির সূর্য সন্তানদের স্মরণ করছেন পিরোজপুরের কাউখালীর মানুষ। বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যদিয়ে উদযাপন করা হয় বিজয়ের ৫০ বছর। মহান বিজয় দিবসের প্রত্যুষে ৫০ বার তোপধ্বনি করা হয়।

দিনব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনে কাউখালীবাসী যেমন মেতেছেন বিজয়ের আনন্দে, তেমনি বিনম্র শ্রদ্ধায় স্মরণ করছেন একাত্তরের মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের।

বিজয় দিবসের সকাল সাড়ে ৬টায় শহীদ মিনারে মানুষের ঢল নামে। শহীদ মিনারে উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা, রাজনৈতিক দল, সাংস্কৃতিক সামাজিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতাকর্মীরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

সকাল ৯টায় সরকারি বালক বিদ্যালয় মাঠে বিজয় দিবসের আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাঈদ মিঞা মনু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোছা.খালেদা খাতুন রেখা, থানার ওসি বনি আমিন উপস্থিত ছিলেন। পরে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। 
বেলা ১১টায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ মিলনায়তনে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা ও শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছা.খালেদা খাতুন রেখার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু সাঈদ মিঞা মনু, কাউখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. বনি আমিন. উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট একেএম আব্দুস শহীদ.বীর মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হোসেন তালুকদার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মৃদুল আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা মফিদুল ইসলাম দুলাল প্রমূখ।

বিকেল সাড়ে ৪টায় সরকারি বালক বিদ্যালয় মাঠে মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। এতে কয়েক হাজার মানুষ অংশ নেন। একই স্থানে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়। এ দিন উপজেলা চত্বরে সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক পরিবেশনা অনুষ্ঠিত হয়। 

এদিকে, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোকসজ্জা করা হয়েছে কাউখালীর সব সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান। 

ইত্তেফাক/কেকে