বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পেশাদার লিগ আয়োজনে বঞ্চিত এম এ আজিজ স্টেডিয়াম

আপডেট : ২৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০৯:৪৯

চট্টগ্রাম আবাহনীর জন্ম চট্টগ্রামে। চট্টগ্রামের লিগে খেলত এই দলটি। ২০০৬ সালে বাফুফে পেশাদার ফুটবল লিগ প্রবর্তন করে। দেশের ফুটবলের সবচেয়ে শীর্ষ লিগ এবং মর্যাদার লিগে প্রবেশ করার দুয়ার খুলে যায় চট্টগ্রাম আবাহনীর সামনে। পেশাদার লিগের খেলা হতো হোম অ্যান্ড অ্যাওয়ে পদ্ধতিতে। সেই সুযোগে চট্টগ্রামের ফুটবল অনুরাগীরা এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে দেখেছে পেশাদার লিগের খেলা। কিন্তু গত কয়েক মৌসুম ধরে চট্টগ্রাম আবাহনী রাজধানী ঢাকায় স্থায়ী ঠিকানা গড়েছে। তারা এখন আর চট্টগ্রামের মাঠে খেলতে রাজি না। যে কারণে পেশাদার লিগের খেলা দেখা হতে বঞ্চিত হচ্ছেন চট্টলার ফুটবল দর্শক।

স্থানীয় ফুটবল সংগঠকরা মনে করছেন চট্টগ্রামের ফুটবলের ক্ষতিই হয়েছে। চট্টগ্রাম আবাহনীর ম্যানেজার আরমান আজিজ ইত্তেফাককে জানান, এম এ আজিজ স্টেডিয়াম নেওয়া না নেওয়ার ব্যাপারে আমাদের কোনো হাত নেই। ভেন্যুর ব্যাপারে বাফুফের সিদ্ধান্ত। তারা যে ভেন্যুতে খেলতে বলবে আমরা সে ভেন্যুতে খেলতে বাধ্য। বাফুফের নির্ধারিত ভেন্যুগুলোতে আমরা খেলব।’

এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে খেলতে অনীহা চট্টগ্রাম আবাহনীর। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের হোম ভেন্যু হিসেবে চট্টগ্রাম আবাহনীর পছন্দ ঢাকা, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। অথচ চট্টগ্রামের প্রতিনিধি হিসেবে দলটির হোম ভেন্যু হিসেবে খেলার কথা চট্টগ্রাম এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে। দীর্ঘদিন যাবত দলটি খেলছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে। বিগত মৌসুমে হোম ভেন্যু হিসেবে এম এ আজিজ স্টেডিয়ামকে ব্যবহার করেছিল তারা। এবার কেন ব্যতিক্রম তার সদুত্তর কেউ দিতে পারেনি।

চট্টগ্রাম ভেন্যুতে ঘরের দল আবাহনীর খেলা দেখার আকুতি ভক্তদের। তাদের আশা, চট্টগ্রাম আবাহনীর সুবাদে এখানে তারা উপভোগ করতে পারবেন অপরাপর দলগুলোর খেলা। বাফুফের কাছে সমর্থকদের দাবি, এম এ আজিজ স্টেডিয়াম চট্টগ্রাম আবাহনীর হোম ভেন্যু হিসেবে দেওয়া হোক। এম এ আজিজ স্টেডিয়াম বর্তমানে আদর্শ ভেন্যু হিসেবে স্বীকৃত। এ ভেন্যুতে হয়ে গেছে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশের অনেক দল এম এ আজিজ স্টেডিয়ামে খেলেছে। সে টুর্নামেন্টের আয়োজক ছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গনে প্রশ্ন উঠছে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট হলে দেশের খেলা হবে না কেন।

বাফুফেতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এমএ আজিজ স্টেডিয়ামকে ভেন্যু করার জন্য বাফুফেতে আবেদন করতে হয়। কিন্তু চট্টগ্রাম আবাহনী ভেন্যু পেতে আবেদনই করেনি। অনেকেই ভেন্যু পেতে মৌখিকভাবে আবেদন করলে বাফুফে সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখেছে। কিন্তু চট্টগ্রাম আবাহনী লিখিত আবেদন করা দূরের কথা, মৌখিক ভাবেও অনুরোধ করেনি বলে বাফুফের সূত্রে জানা যায়।

চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থার (সিজেকেএস) ফুটবল কমিটির সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান এ ব্যাপারে বলেন, ‘বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে চট্টগ্রামের প্রতিনিধি হিসেবে আবাহনী এম এ আজিজ স্টেডিয়ামকে হোম ভেন্যু হিসেবে না নেওয়া মানে নিজের অস্তিত্বকে অস্বীকার করা। এটা বড়ই অপরাধ। ঘরের দলকে ঘরের মাঠে আমরা দেখতে চাই। আমাদের প্রত্যাশা আবাহনী এখানে খেলবে।’ বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ জানিয়েছেন চট্টগ্রাম আবাহনী ঢাকায় খেলতে চায়। 

ইত্তেফাক/ ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বিশেষ সংবাদ

বেগমগঞ্জ স্টেডিয়াম এখন গো-চারণ মাঠ

সীতাকুণ্ডের ঘটনায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান মাশরাফির

৫০ টাকায় দেখা যাবে ম্যাচ

জব্বারের বলীখেলায় চ্যাম্পিয়ন জীবন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

আধুনিক পুল থাকা সত্ত্বেও সাঁতারু উঠে আসছে না চট্টগ্রামে

কক্সবাজারে সাম্পান নৌকার আদলে স্টেডিয়াম

বর্ণিল সাজে সেজেছে সাগরিকা

 ক্রিকেটারদের অসন্তোষে পিছু হটল সিজেকেএস