বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা, বিলাসী জীবন

আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০২২, ০২:৫৬

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে অভিনব উপায়ে প্রতারণা করে আসছিলেন মাহবুবুর রহমান। সরকারি-বেসরকারি অফিসে চাকরি দেওয়ার নামে বিপুল পরিমাণ টাকাও হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

গতকাল মালিবাগ সিআইডি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বিশেষ পুলিশ সুপার মুক্তা ধর বলেন, সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে সোমবার রাতে যাত্রাবাড়ীর শহীদ ফারুক সড়ক এলাকা থেকে মাহবুবকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে নিজেকে পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পরিচয়ে তদবির বাণিজ্য করে আসছিলেন।

তিনি বলেন, মতিঝিল থানায় দায়ের করা মামলার  বর্তমান তদন্তকারী কর্মকর্তা পরিবর্তন এবং অবৈধ সুবিধা দেওয়ার কথা বলে আসামির কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা নেন মাহবুব। এ ছাড়া প্রভাব বোঝানোর জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিবর্তন-সংক্রান্ত ফাইন্যান্সিয়াল ক্রাইম, অর্গানাইজড ক্রাইম, সিআইডি, মালিবাগ, ঢাকার একটি ভুয়া অফিস আদেশ তৈরি করে আসামির কাছে দেন। আসামিপক্ষ এর সত্যতা যাচাইয়ের জন্য বিভিন্ন মারফত জানার চেষ্টা করলে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচরে আসে। এরপরই সিআইডি তদন্ত শুরু করে। বিশেষ পুলিশ সুপার আরো বলেন, মাহাবুব সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দপ্তরে অনেক লোককে চাকরিতে নিয়োগ দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

পুলিশের বিশেষ শাখা প্রধানের সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ডিএমপির পরিদর্শক পদমর্যাদার ২৯ কর্মকর্তাকে বদলি

রাজারবাগে ঈদের নামাজ আদায় করলেন আইজিপি

ঈদগাহে তল্লাশি হবে সবার, নেওয়া যাবে জায়নামাজ-ছাতা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

আকর্ষণীয় বিজ্ঞাপন দিয়ে পণ্য বিক্রির নামে প্রতারণা, গ্রেপ্তার ৫

 টিপকাণ্ড: লতা সমাদ্দারকে হেনস্তার সত্যতা পেয়েছে তদন্ত কমিটি

টিপকাণ্ডে অভিযুক্ত সেই পুলিশ সদস্য সাময়িক বরখাস্ত

টিপ পরায় হেনস্তা: সেই পুলিশ কনস্টেবল শনাক্ত