বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে ব্ল্যাকমেইলিং করতো তারা

আপডেট : ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯:৩৩

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে বিভিন্ন জনের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তোলার পর কৌশলে আপত্তিকর ছবি/ভিডিও ধারণ করে ভিকটিমদের ব্ল্যাকমেইলিং করে আসছিল সংঘবদ্ধ অপরাধী চক্র। চাঞ্চল্যকর ও আলোচিত এক ট্রান্সজেন্ডার নারীকে (বিউটি ব্লগার) যৌন নির্যাতন ও হত্যাচেষ্টার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতারের পর এমন তথ্য জানিয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

রবিবার (২৩ জানুয়ারি) রাজধানীর কাওরানবাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার  আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, শনিবার রাত থেকে রবিবার সকাল পর্যন্ত রাজধানীর ফার্মগেট ও মহাখালী এলাকা থেকে এ ঘটনার মূলহোতা ফুয়াদ আমিন ইশতিয়াক  ওরফে সানি (২১),  অন্যতম সহযোগী  সাইমা শিকদার নিরা ওরফে আরজে নিরা (২৩) ও আব্দুল্লাহ আফিফ সাদমান ওরফে রিশুকে (১৯)  গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে মোবাইল ফোন, ওয়াকিটকি সেট ও খেলনা পিস্তল জব্দ করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের স্বীকারোক্তির বরাত দিয়ে তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃতরা প্রথমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সখ্যতা গড়ে তুলতো। পরে বিভিন্ন কৌশলে আপত্তিকর ছবি/ভিডিও ধারণ করে ভিকটিমদের ব্ল্যাকমেইলিং করতো। এসব অপকর্মের জন্য তারা ভাড়াকৃত বাসা ব্যবহার করতো। যেখানে জোরপূর্বক আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করা হতো। এছাড়া অনলাইনেও ভিকটিমদের ফাঁদে ফেলতো। গ্রেফতারকৃতরা নিজেদের সেনা ও পুলিশ কর্মকর্তা হিসেবে পরিচয় দিতো।

র‌্যাবের এ কর্মকর্তা জানান, কিছুদিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিকটিমের সঙ্গে গ্রেফতারকৃত রিশুর পরিচয় হয়।  পরিচয়ের সূত্রে ১০ জানুয়ারি  রাজধানীর ভাটারা এলাকার একটি রেস্টুরেন্টের সামনে রিশুর সঙ্গে ভিকটিমের সাক্ষাৎ হয়। সেখান থেকে কৌশলে ভিকটিমকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ইশতিয়াকের ভাড়া বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে  ইশতিয়াক, নিরা ও রিশু ভিকটিমকে মারধর, শ্লীলতাহানি ও যৌন নিপীড়ন করার পাশাপাশি ভিডিও ধারণ করে। এ সময় তারা ভিকটিমকে সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন, স্বর্ণালঙ্কার ও টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং ১ লাখ টাকা দাবি করে। এছাড়া তারা আইন-শৃঙ্খলা ও সামরিক বাহিনীর পরিচয় দিয়ে ভুক্তভোগীকে ভীতি প্রদর্শন করে। ভুক্তভোগীকে থানায় নিয়ে যাওয়ার কথা বলে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে রামপুরায় নামিয়ে দেয়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী রাজধানীর ভাটারা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

গ্রেফতারকৃত ইশতিয়াকের বিরুদ্ধে রাজধানীর বিভিন্ন থানায় দুটি মামলা রয়েছে। ইতোপূর্বে বিভিন্ন মামলায় তিনি কারাভোগ করেছে। 

 

ইত্তেফাক /কেএইচ/ইউবি 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

চাকরির পেছনে না ছুটে শরিফা এখন উদ্যোক্তা

‘আমি বেঁচে থাকি সন্ধ্যামাখা জলের গন্ধে’ শীর্ষক আবৃত্তিসন্ধ্যা অনুষ্ঠিত 

দেশীয় মালিকানাধীন তামাক শিল্প রক্ষায় আইন দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি

নুরের বিরুদ্ধে থানায় ছাত্রলীগের অভিযোগ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

আড়াই মাসেও উদ্ধার হয়নি অপহৃত স্কুলছাত্রী, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা 

রাজধানীতে এবার বসছে ১৯টি পশুর হাট

বিশেষ সংবাদ

জলাবদ্ধতা ঠেকাতে রাজধানীর ১৭৮ স্থানে সংস্কার শুরু

তেঁতুলতলা মাঠের ওপর এখনো জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠা হয়নি: রিজওয়ানা হাসান