শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শাবিতে আন্দোলন অব্যাহত, অচলাবস্থার ১২ দিন পার

  • আন্দোলনকারীরা উপাচার্যের বাসভবনে খাবার নিয়ে যেতে দেননি
  • বহিরাগত না ঢুকতে প্রধান ফটকে পাহাড়া
  • বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা অমানবিক: আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ
আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ০১:৩৬

শাবি উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবিতে ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের আমরণ অনশন সহ নানামুখি আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। এর আগে রবিবার ভিসির বাসভবনের বিদ্যুৎ সংযোগ কেটে দেয়ার পর থেকে সেখানে এখন ভুতুড়ে অবস্থা বিরাজ করছে। 

সোমবার (২৪ জানুয়ারি) বিকেলে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে আবারো মিছিল বের করেন। দুপুরে দু‘জন সিটি কাউন্সিলর আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী ও অবরুদ্ধ ভিসি‘র জন্য খাবার নিয়ে যান। আন্দোলনকারীরা খাবার আনার জন্য ধন্যবাদ জানিয়ে সেই খাবার পথ শিশুদের মধ্যে বিলিয়ে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেন। তবে তারা কাউন্সিলরদের ভিসির বাসভবনেও খাবার নিয়ে যেতে দেননি। ভিসি বিদ্যুৎহীন অবস্থায় কিভাবে সময় কাটাচ্ছেন তাও জানা যাচ্ছেনা। গেটে পুলিশ ও আন্দোলনকারীরা অবস্থান করছেন।

রবিবার বিকেল থেকে ভিসির বাসভবনের মূল ফটকের সামনে মানব দেয়াল তৈরি করে রেখেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এতে কার্যত অবরুদ্ধ হয়ে আছেন ভিসি। সন্ধ্যা ৭টা ২০ মিনিটে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয় ভিসির বাসভবনের বিদ্যুৎসংযোগ। এতে ইন্টারনেটের সংযোগও বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। সেখানে পুলিশ সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মী ছাড়া কাউকে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না।
 
অন্যদিকে শাবির প্রক্টর আলমগীর কবিরের নেতৃত্বে ৩ সদস্যের একটি দল ভিসির বাসভবনের দক্ষিণ পাশের ডরমেটরিতে আটকে পড়া কয়েকজন শিক্ষকের জন্য খাবারের প্যাকেট নিয়ে যেতে চাইলেও ভিসি‘র বাসভবনের সমানে অবস্থানকারী শিক্ষার্থীরা তাদের ভেতরে যেতে দেননি। তখন শিক্ষকেরা বলেন, ভেতরে আটকা পড়া একজন শিক্ষক অসুস্থ। তখন আন্দোলনকারীরা একজন শিক্ষককে ভেতরে যেতে বললেও কেউ আর ভেতরে যান নি বলে জানা যায়। সিলেট  জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ খাবার নিয়ে যেতে না দেয়ার বিষয়টিকে ‘অমানবিক’ বলে মন্তব্য করেছেন ।

গত ১৩ জানুয়ারি একটি ছাত্রী হলে প্রভোস্টের পদত্যাগ দাবিতে ছাত্রীরা আন্দেলন শুরু করলেও শেষ পর্যন্ত সেটি ভিসি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমদের পদত্যাগের দাবিতে রূপ নেয়। শিক্ষার্থীদের এই আন্দোলন এখন শাবি ক্যাম্পাসেই সীমাব্ধ নয়।  এটি ঢাকা সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে আলোচিত বিষয়ে পরিণত হয়েছে। শাবি শিক্ষার্থীরা বলছেন, ভিসি‘র পদত্যাগ-ই এখন একমাত্র সমাধান। সোমবার (২৪ জানুয়ারি) দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে আন্দলোনরত শিক্ষার্থীদের পক্ষে এসব কথা বলেন সাব্বির হোসেন, নাফিসা আনজুম প্রমুখ। 

রাতুলের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন: উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে অনশনরত  শিক্ষার্থী মাহীন শাহরিয়ার রাতুলের অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাতুলের অনশনের দ্বিতীয় দিন থেকে থেমে থেমে পেট ব্যথা হচ্ছিল। রবিবার বিকেলে হঠাৎ পেটব্যথা বেড়ে গেলে চিকিৎসকের পরামর্শে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয়। অ্যাপেন্ডিসাইটিস ধরা পড়লে রাত পৌনে ১১টার দিকে তার অস্ত্রোপচার করা হয়। তবে এই শিক্ষার্থী অনশন ভাঙেন নি।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের নিন্দা: শাবি ভিসির বাসভবনের বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্নকারীদের কর্মকান্ডে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। রবিবার গভীর রাতে এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আন্দোলনের যৌক্তিক সমাধানের জন্য যখন আলোচনা চলছে সেই অবস্থায় এরকম কার্যক্রম অন্য কিছুর ইঙ্গিত বহন করে। সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ বলেন, আন্দোলনের নামে এ ধরনের অমানবিক কর্মকাণ্ডকে কোনো অবস্থাতেই সমর্থন করা যায়না। এর থেকে বিরত থাকার জন্য আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান এবং সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন।

আন্দোলনকারীদের সবধরনের সহিংসতা পরিহার করার আহ্বান শাবি শিক্ষক সমিতির: শাবির ভিসি বাসভবনের বিদ্যুৎ, গ্যাস ও ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্নকারীদের কর্মকাণ্ডকে শাবি শিক্ষক সমিতি কোনোভাবেই সমর্থন করে না বলে শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক রবিবার (২৩ জানুয়ারি) রাতে এক বিবৃতি প্রদান করেছেন। তারা  এমন ঘটনার তীব্র নিন্দাও জানান। শাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. তুলসী কুমার দাস ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মহিবুল আলম বিবৃতিতে বলেন, এধরনের কর্মকাণ্ডকে শাবি শিক্ষক সমিতি কখনই সমর্থন করে না। আন্দোলনকারীরা সবধরনের সহিংসতা পরিহার করবে বলে শাবি শিক্ষক সমিতি বিশ্বাস করে

প্রধান ফটকে প্রহরা: সোমবার  সকাল থেকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে প্রহরা বসিয়েছে আন্দোলনকারীরা। আন্দোলনকালীন সময়ে শাবি শিক্ষার্থীরা ছাড়া বাইরে যাতে কেউ ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে না পারে, সেজন্য এ উদ্যোগ নিয়েছেন তারা।

এদিকে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অনশনরত শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিয়ে দ্রুত ভিসির অপসারণ এর পদক্ষেপ নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন সিলেটের বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ। সোমবার সন্ধ্যায় জেপির সিলেট জেলা সভাপতি ইফতেখার আহমদ লিমন শাবির চলমান সংকট দ্রুত সমাধান করে শিক্ষার পারিবেশ ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন। কাজীটুলা অন্তরঙ্গ সমাজকল্যাণ সমিতির উপদেষ্টা আবদুল মালিক জাকা বলেন, শাবির সংকট সারা দেশের সংকট। এই সংকট জিয়ে না রেখে অতি দ্রুত সমাধান সবার জন্য মঙ্গলজনক।

বিকেল ৪টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সিলেটের নাগরিকবৃন্দ আয়োজিত সংহতি সমাবেশ বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ ভিসির  পদত্যাগের দাবি জানান। সংহতি সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এমাদ উল্লাহ শহীদুল ইসলাম। বাসদ জেলা সদস্য প্রণব জ্যোতি পালের সঞ্চালনায় সংহতি সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ গণতন্ত্রী পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিস্টার মো. আরশ আলী, সিপিবি'র সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট বেদানন্দ ভট্টাচার্য, সাম্যবাদী দলের জেলা সম্পাদক ধীরেণ সিংহ, সিপিবি জেলা সভাপতি সৈয়দ ফরহাদ হোসেন, বাসদ (মার্কসবাদী) আহ্বায়ক উজ্জল রায়, বাসদ সমন্বয়ক আবু জাফর,গণতন্ত্রী পার্টির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গুলজার আহমদ, ওয়ার্কস পার্টি (মার্কসবাদী) সভাপতি সিরাজ আহমেদ,  সাম্যবাদী আন্দোলনের সমন্বয়ক সুশান্ত সিনহা সুমন,  ঐক্য ন্যাপ জেলা সাধারণ সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস বাবুল, উদীচী সভাপতি এনায়েত হাসান মানিক,  বিশিষ্ট রবীন্দ্র সংগীত শিল্পী অনিমেষ বিজয় চৌধুরী রাজু, খেলাঘর জেলা সাধারণ সম্পাদক তপন চৌধুরী প্রমুখ।

 

ইত্তেফাক/এসটিএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

পিএইচডিকালীন ইনক্রিমেন্টে ইউজিসির স্থগিতাদেশ প্রত্যাহার দাবি

অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করবে বর্তমান শাবি শিক্ষক সমিতি: ড. আখতারুল ইসলাম

জরুরী সেবা চালু করলো শাবির প্রক্টর অফিস

শাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি আখতারুল, সম্পাদক জহির

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

১১ দফা দাবি জানিয়েছেন শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মচারীরা

শাবিতে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত

বহুভাষিক চলচ্চিত্র উৎসব করবে শাবির চোখ ফিল্ম সোসাইটি

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ