বুধবার, ১৮ মে ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

স্মার্টফোনের ব্যাটারি ভালো রাখার সহজ উপায়

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২২, ১২:৪৭

প্রতিটি ব্যাটারির একটি নির্দিষ্ট মেয়াদ থাকে। স্মার্টফোনের ব্যাটারির ক্ষেত্রেও তাই। স্মার্টফোন ব্যবহারের ধরনের ওপর এর ব্যাটারির আয়ু নির্ভর করে। অনেকেই আছেন চার্জে দিয়েই গেম খেলতে থাকেন কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডুবে যান। এতে কিন্তু ফোনের ব্যাটারি অনেক বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। দ্রুত স্মার্টফোনের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যায়। এর আরও কিছু কারণ রয়েছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কীভাবে দীর্ঘদিন স্মার্টফোনের ব্যাটারি ভালো রাখতে পারবেন-

সারারাত চার্জ নয়

সারাদিন কাজকর্মের পর অধিকাংশ লোকই রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ফোন চার্জে বসিয়ে দেন। কিন্তু এর ফলে ফোনটি ফুল চার্জ হয়ে যাওয়ার পরেও অ্যাডাপ্টারের সঙ্গে সংযুক্ত থাকে। যাতে ধীরে ধীরে ব্যাটারির ওপর চাপ পড়ে এবং সেটির ক্ষতি হতে থাকে। যেমন ভরপেট খাওয়ার পর আরও বেশি খেলে বিপদ হয়ে যায়, অনেকটা সেরকম সমস্যাই এক্ষেত্রে দেখা যায়। তাই সারারাত ধরে ফোন চার্জে বসিয়ে রাখা একদমই উচিত নয়।

নতুন ফোন কিনেই ব্যবহার করবেন না

যখন নতুন কোনো স্মার্টফোন কেনা হয়, তখন সেটি কিছু পরিমাণ চার্জ সমেত আসে, যা দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ কাজ চালানো সম্ভব হয়। ফলে লোকে নতুন স্মার্টফোন কেনার পর যেটুকু ব্যাটারি আছে, সেটুকু দিয়েই ফোনটি ব্যবহার করা শুরু করে দেন এবং সেটি শেষ হলে তারপরে চার্জ দেন। কিন্তু এই কাজটি করা একদমই উচিত নয়, এর ফলে ব্যাটারির ওপর বিরূপ প্রভাব পড়তে পারে। তাই নতুন ফোন কেনা মাত্রই সেটিকে ফুল চার্জ করে নেওয়ার পর তবেই ব্যবহার করা শুরু করুন।

যখন-তখন ফোনে চার্জ দেবেন না

ফোন কখন চার্জে দেবেন সেটার ওপরেও কিন্তু ব্যাটারির দীর্ঘায়ু অনেকটাই নির্ভর করে। অনেকেই যখন-তখন ফোনে চার্জ দেন; কেউ কেউ কিছুটা চার্জ শেষ হওয়ার পর অর্ধেক চার্জ থাকা অবস্থাতেই ফোন চার্জে বসিয়ে দেন, আবার অনেকেই ফোনের ব্যাটারি একদম শূন্যে পৌঁছলে তবেই তাতে চার্জ দেন। কিন্তু এই কাজগুলি করা একেবারেই অনুচিত। এখনকার দিনে বেশিরভাগ ফোনেই লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি থাকে, তাই সেই ব্যাটারিকে দীর্ঘদিন ভালো রাখার জন্য যথাসময়ে চার্জ দেওয়া একান্ত আবশ্যক। বিশেষজ্ঞদের মতে, সব স্মার্টফোনই একটি নির্দিষ্ট সময়ে লো ব্যাটারি ওয়ার্নিং দেয়, তাই সেটি দেওয়া মাত্রই ফোনটিকে চার্জে বসিয়ে দেওয়া উচিত।

ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকা অ্যাপ বন্ধ রাখুন

এখনকার দিনে স্মার্টফোনের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হল বিভিন্ন অ্যাপ। অ্যাপ ব্যবহার করা হয়ে গেলেও অনেকেই সেগুলিকে বন্ধ করতে ভুলে যান। ফলে সেগুলো ব্যাকগ্রাউন্ডে চলতে থাকে ও ফোনের ব্যাটারি ক্ষয় করে। তাই ফোন ব্যবহার বন্ধ করার আগে ব্যাকগ্রাউন্ডে কোনো অ্যাপ চলছে কি না সেটি অবশ্যই চেক করে নিন।

চার্জিংয়ের সময় স্মার্টফোন ব্যবহার করবেন না

এমন অনেকেই আছেন যারা ফোন চার্জে বসিয়েও সেটিকে ব্যবহার করেন। কিন্তু চার্জে থাকাকালীন ফোন ব্যবহার করলে ব্যাটারির ওপর ব্যাপক চাপ পড়ে, ফলে খুব স্বাভাবিকভাবেই ফোনের চার্জ হতে সময় বেশি লাগে, এমনকি ফোন তাড়াতাড়ি খারাপ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও অনেকটাই বেড়ে যায়। তাই চার্জ দেওয়ার সময় কখনোই ফোন ব্যবহার করবেন না।

ফাস্ট চার্জার ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন

মার্কেটে এমন অনেক চার্জার পাওয়া যায় যেগুলি ব্যবহার করলে দেখা যায় যে স্মার্টফোনটি খুব তাড়াতাড়ি চার্জ হয়ে যাচ্ছে। কিন্তু অযথা ফাস্ট চার্জার ব্যবহার করলে ফোনের ব্যাটারির কার্যক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে থাকে, সেইসঙ্গে ফোনের চার্জ ধরে রাখার ক্ষমতাও কমে যায় এবং আস্তে আস্তে ফোনটিও খারাপ হয়ে যায়। তাই এই ধরনের চার্জার কখনোই ব্যবহার করবেন না।

সব সময় নিজস্ব চার্জার

প্রতিটি ফোনের ব্যাটারির একটি নির্দিষ্ট ক্যাপাসিটি থাকে, সেই ক্যাপাসিটি অনুযায়ী ওই স্মার্টফোনটির সঙ্গে একটি উপযুক্ত চার্জার প্রোভাইড করা হয়। স্মার্টফোনের ব্যাটারিকে দীর্ঘদিন ভালো রাখতে স্মার্টফোনের সঙ্গে থাকা চার্জারটিই ব্যবহার করা উচিত।

সপ্তাহে একবার ফোন অন-অফ করুন

অনেক স্মার্টফোন বিশেষজ্ঞের মতে, ফোন সপ্তাহে অন্তত একবার অন-অফ করা উচিত। এর ফলে স্মার্টফোনতে থাকা অনেক সমস্যা সমাধান হয়ে যায়। যার ফলে ব্যাটারির আয়ুও বেড়ে যায়। তাই ব্যাটারি ভালো রাখতে এই কাজটি করতে পারেন।

ইত্তেফাক/এমআর

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরি করবেন যেভাবে

ওয়েবপেজের মধ্যে নির্দিষ্ট কিছু খোঁজার কৌশল

মোবাইল ফোন পানিতে ভিজে গেলে করণীয়

ব্যক্তিগত তথ্য লুকিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করবেন যেভাবে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

হোয়াটসঅ্যাপ সিকিউরিটি পিন ভুলে গেলে কিভাবে খুলবেন

ডোমেইন ও হোস্টিং কি, কেনার আগে যা করবেন

কম্পিউটার ড্রাইভার ব্যাকআপ নেওয়ার সহজ পদ্ধতি

ফেসবুক আসক্তি-মুক্ত থাকবেন যেভাবে