সোমবার, ০৫ জুন ২০২৩, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

রোহিঙ্গা ডাকাত সরদার অস্ত্র ও গুলিসহ আটক

আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৬:৩১

কক্সবাজারের কুতুপালং ক্যাম্পের ডাকাত সরদার খায়রুল আমিন গ্রুপের প্রধান খায়রুলকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫ এর চৌকস আভিযানিক দল। 

শনিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) মাঝ রাতে টেকনাফে অভিযান চালিয়ে তাকে আটকের পর তার স্বীকারোক্তিতে পাহাড় থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও বুলেট উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করেছেন কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর অধিনায়ক লে. কর্ণেল খায়রুল ইসলাম সরকার। 

আটক ডাকাত সর্দার খায়রুল আমিন (৩৮) কুতুপালং ১নং রেজিষ্টার্ড ক্যাম্পের এফ ব্লকের মৃত মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে। 

কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (ল এন্ড মিডিয়া) সহকারী পুলিশ সুপার মো. বিল্লাল উদ্দিন জানান, টেকনাফের কাস্টমস ঘাট এলাকায় ডাকাত সর্দার খায়রুল অবস্থান করছেন এমন খবর পেয়ে শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাত সোয়া ১১টায় কক্সবাজার র‌্যাব-১৫ এর চৌকস একটি আভিযানিক দল সেখানে কৌশলে অবস্থান নেয়। উক্ত এলাকা হতে তাকে ১টি দেশীয় পিস্তল এবং ২ রাউন্ড কার্তুজসহ আটক করে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদে একদল সশস্ত্র ডাকাত পাহাড়ে অবস্থানের স্বীকারোক্তিতে রবিবার ভোররাতে র‌্যাবের চৌকস আভিযানিক দল উক্ত পাহাড়ে অভিযানে যায়। এসময় র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাত দল ১টি বস্তা ফেলে পাহাড়ের ভেতরে পালিয়ে যায়। পরে বস্তাটি খুলে তল্লাশি করে ৩টি লম্বা একনলা বন্দুক, ২টি থ্রি কোয়ার্টারগান, ৬ রাউন্ড তাজা কার্তুজ পাওয়া যায়। নাশকতা সৃষ্টি এবং ডাকাতি সংগঠিত করার জন্য এসব অস্ত্রগুলো মওজুদ করা হচ্ছিলো বলে স্বীকার করেছে খায়রুল।

সহকারী পুলিশ সুপার বিল্লাল উদ্দিন আরও জানান, অস্ত্র ও বুলেটসহ গ্রেফতার ডাকাত সরদার এবং উদ্ধারকৃত অস্ত্রগুলো পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য টেকনাফ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। পাশাপাশি তার সাথে সম্পৃক্ত অন্যদের শনাক্ত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। 

ইত্তেফাক/এমএএম