শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

টিপু হত্যায় দুটি আগ্নেয়াস্ত্রের ব্যবহার, শুটার সন্দেহে আরেক যুবক আটক

আপডেট : ০১ এপ্রিল ২০২২, ১০:১৪

রাজধানীর শাহজাহানপুরে মতিঝিল থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম টিপু হত্যায় দুটি আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। হত্যায় শুটার সন্দেহে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কমলাপুর থেকে দামাল নামে এক যুবককে আটক করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। তার কাছ থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া ফ্রিডম মানিকের ক্যাশিয়ার মারুফ হোসেনকে আটক করা হয়েছে। তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মারুফ জানিয়েছে, মতিঝিলের বিভিন্ন এলাকা থেকে চাঁদাবাজির তোলা টাকার ভাগবাঁটোয়ারা ও বাইরে পাঠানোর কাজ তিনিই করতেন। এদিকে, টিপু হত্যাকাণ্ডে একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র থেকে গুলি করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডস্থল থেকে উদ্ধার করা আলামত বিশ্লেষণ করে ডিবির কর্মকর্তারা এমনটি ধারণা করছেন।  ঘটনাস্থল থেকে দুই ধরনের গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। গুলির খোসার ভিন্নতার কারণে এই কর্মকর্তাদের ধারণা, টিপু হত্যাকাণ্ডে একাধিক শুটার টিম ছিল। এসব আলামত পরীক্ষার জন্য পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ বা সিআইডির কাছে পাঠানো হয়েছে। পরীক্ষার রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কোনো কর্মকর্তাই চূড়ান্ত মতামত দিতে রাজি হননি।

ডিবির একজন কর্মকর্তা বলেন, আটক দামালকে জিজ্ঞাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন জানিয়ে শুক্রবার আদালতে হাজির করা হবে। তার কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া আগ্নেয়াস্ত্রটি টিপু হত্যাকাণ্ডে ব্যবহার হয়েছে কি না, তা পরীক্ষা করা হবে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক দামাল কোনো তথ্য সরবরাহ না করলেও ডিবির কর্মকর্তারা ধারণা করছেন দামাল ভারতে আত্মগোপন করা ২৩ শীর্ষ সন্ত্রাসীর অন্যতম জাফর আহমেদ ফ্রিডম মানিকের হয়ে কাজ করে থাকেন। এছাড়া ফ্রিডম মানিকের ক্যাশিয়ার মারুফ হোসেনকে আটক করা হয়েছে। তাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মারুফ জানিয়েছে, মতিঝিলের বিভিন্ন এলাকা থেকে চাঁদাবাজির তোলা টাকার ভাগবাঁটোয়ারা ও বাইরে পাঠানোর কাজ তিনিই করতেন।

অপরদিকে, মাসুম মোহাম্মদ আকাশ সাত দিনের রিমান্ডের তৃতীয় দিন গতকাল বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) পর্যন্ত ডিবির জিজ্ঞাসাবাদে সে গুলি করার কথা স্বীকার করলেও এই হত্যাকাণ্ডের প্রকৃত কারণ কী—সে বিষয়ে কিছুই বলেনি। শুধু তার সঙ্গীর নাম পরিচয় দিয়েছে। আর বলেছে, তার নামে দায়ের হওয়া বিভিন্ন মামলা থেকে অব্যাহতির জন্যই এই হত্যাকাণ্ডে অংশ নিয়েছে। মোটরসাইকেল চালকের নাম-পরিচয় ছাড়া আর কোনো তথ্য দেয়নি। এমনকি কার কাছ থেকে অস্ত্র গ্রহণ করেছে, গুলি করার পর কার কাছে গিয়ে অস্ত্র জমা দিয়েছে সে বিষয়েও কোনো তথ্য জানে না বলে দাবি করেছে।

উল্লেখ্য, ২৪ মার্চ মতিঝিল এজিবি কলোনি থেকে বাসায় যাওয়ার পথে রাত সোয়া ১০টার দিকে শাহজাহানপুরের মানামা ভবনস্থ বাটার দোকানের সামনে মাইক্রোবাসে গুলি করলে জাহিদুল ইসলাম টিপু (৫৪) ও পাশের রিকশাযাত্রী সামিয়া আফনান প্রীতি (২০) নিহত হন। এ ঘটনায় ২৫ মার্চ টিপুর স্ত্রী শাহজাহানপুর থানায় হত্যা মামলা করেন। ২৬ মার্চ টিপু হত্যার শুটার মাসুম মোহাম্মদ আকাশকে গ্রেফতার করে।

ইত্তেফাক/ইআ