বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আইভীর মামলায় খোকন সাহার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০২২, ২৩:৪০

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) রাতে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা। গেল বছরের ৪ জানুয়ারি খোকন সাহার বিরুদ্ধে ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। এই মামলায় দুই নম্বর আসামি তিনি। প্রধান আসামি করা হয়েছে কানাডা প্রবাসী প্রদীপ দাস নামে এক ব্যক্তিকে, যিনি কানাডা থেকে প্রচারিত ‘হিন্দু লাইভ মেটারস’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেলের সঞ্চালক। ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে মিথ্যা, মানহানিকর, উসকানিমূলক, ভিত্তিহীন সংবাদ ও ছবি প্রকাশ-সম্প্রচার করা এবং সেখানে বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগ মামলাটি করা হয়

এ সময় ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আস সামছ জগলুল হোসেনের আদালত মেয়র আইভীর মামলার আবেদন গ্রহণ করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগকে (সিআইডি) তদন্ত করার নির্দেশ দেন। পরে সিআইডি তদন্ত শেষ করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করে। প্রতিবেদনে আইভীর অভিযোগের সত্যতাও পাওয়া যায়। মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য ছিল চলতি বছরের ৮ ফেব্রুয়ারি। এদিন অ্যাডভোকেট খোকন সাহা আদালতে উপস্থিত হননি এবং তার পক্ষে কোনো আইনজীবীও নিয়োগ করেননি। পরে বৃহস্পতিবার মামলার শুনানি হলে আদালত খোকন সাহার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। 

নারায়ণগঞ্জ কোর্ট পুলিশের ইন্সপেক্টর আসাদুজ্জামান বলেন, এখনও পর্যন্ত এমন কোনো গ্রেফতারি পরোয়ানা পাইনি। যদি বৃহস্পতিবার জারি হয়ে থাকে, তাহলে আসতে আসতে তিন চারদিন লেগে যাবে। প্রথমে পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আসবে। পরে আমাদের কাছে আসলে আমরা থানা পুলিশকে গ্রেফতারি পরোয়ানা প্রেরণ করবো। নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ শাহ্ জামান বলেন, এমন কোনো গ্রেফতারি পরোয়ানা আমরা পাইনি। 

মামলায় মেয়র আইভী অভিযোগ করেন, মামলার ১ নম্বর আসামি প্রদীপ দাস গত বছরের ১২ আগস্ট তার ইউটিউব চ্যানেলে বাংলাদেশে ইসলামী মৌলবাদীদের হাতে নির্যাতিত ও নিপীড়িত হিন্দু সম্প্রদায়ের খবর প্রকাশ করেন। সেখানে দাবি করা হয়, হিন্দুরা বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত ধর্ষণ, জোর করে বিয়ে, ধর্মান্তরিত, ভূমি দখল ও অন্যান্য বিষয়ে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। একই ইউটিউব চ্যানেলে গত ২৩ নভেম্বর অ্যাডভোকেট খোকন সাহা বলেন, মেয়র আইভীর দখলে হাজার কোটি টাকা মূল্যের হিন্দু সম্পত্তি। মন্দিরের সেবায়েত গুম। আতঙ্কে হিন্দুরা। নাসিক মেয়রের দাদা মাহাতাব উদ্দিন ও তার পরিবার হিন্দুদের দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করে আছে। 

এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, এই দখলদারদের মনোনয়ন দেবেন না। মেয়র আইভী বলেন, আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। বলা হচ্ছে, এক হাজার কোটি টাকা মূল্যের দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করে রেখেছি। তাছাড়া সংশ্নিষ্ট মন্দিরের সেবায়েত নিখোঁজ বা গুম। অথচ সে গুম হয়নি। এই নির্লজ্জ মিথ্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিকার পেতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

২৭ জুলাইয়ের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে নৌকার ২৮ প্রার্থী চূড়ান্ত

পদ্মা সেতু অপশক্তির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনার বিজয়: শামীম ওসমান

তারেক-জোবাইদা পলাতক কিনা, সিদ্ধান্ত ২৬ জুন

শামীম এস্কান্দারের বিরুদ্ধে মামলা চলবে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

তারেক-জোবায়দার দুর্নীতির মামলার বৈধতার রুল শুনানি আজ

খালেদা জিয়ার ১১ মামলায় শুনানি ২০ সেপ্টেম্বর

শেখ হাসিনা প্রতিহিংসার রাজনীতি করেন না : মতিয়া চৌধুরী

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে শিক্ষাঙ্গনকে অস্থিতিশীল করতে চায় স্বার্থান্বেষী মহল: শিক্ষামন্ত্রী