সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে দক্ষিণ কোরিয়ার সহায়তা চাইলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আপডেট : ১২ মে ২০২২, ২০:৪৯

বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের জন্য দক্ষিণ কোরিয়াকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে বাংলাদেশ-দক্ষিণ কোরিয়া কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান। অনুষ্ঠানে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জং কিওন উপস্থিত ছিলেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, ঢাকায় কোরীয় দূতাবাস ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইস্ট এশিয়া স্টাডি সেন্টার যৌথভাবে ওই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইস্ট এশিয়া স্টাডি সেন্টারের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক অধ্যাপক ড. দেলোয়ার হোসেন, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকি, বিআইআইএসএস-এর পরিচালক ড. মাহফুজ কবির, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. সাইফুল হক প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারের সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ার সম্পর্ক ভালো এবং দেশটির অনেক বিনিয়োগকারী মিয়ানমারে বিনিয়োগ করেছেন। মিয়ানমারে যে প্রভাব রয়েছে সেটি ব্যবহার করে দক্ষিণ কোরিয়া রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ভূমিকা রাখতে পারে।

মোমেন বলেন, প্রকল্প বাস্তবায়নে দক্ষিণ কোরিয়ার দক্ষতা রয়েছে এবং কিভাবে আরও দ্রুত ও টেকসইভাবে প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করা যায় সে বিষয়েও দক্ষিণ কোরিয়া বাংলাদেশকে সাহায্য করতে পারে। তিনি বলেন, যে কোনো একজন প্রকল্প পরিচালকের অধীনে শেষ করার পাশাপাশি ঠিক সময়ে প্রকল্প শেষ করার জন্য কর্মকর্তাদের সুবিধা এবং বিলম্বের জন্য জেলও দেয় দক্ষিণ কোরিয়া। বাংলাদেশে আমরা যখন কোনো প্রকল্প শুরু করি, এটা সাধারণত ঠিক সময়ে শেষ হয় না। আমার কাছে অনেক উদাহরণ আছে, প্রকল্প তিন বছরে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও লেগেছে ১০ বছর। আমাদের সব প্রকল্পে বিলম্ব আর ব্যয় সমন্বয়ের কারণে সরকারি অর্থ অতিরিক্ত খরচ হয়। আমি দক্ষিণ কোরীয় বন্ধুদের অনুরোধ জানাই, আমাদের সঙ্গে ওই পন্থা ও প্রক্রিয়া আদানপ্রদান করুন, যাতে প্রকল্পগুলো ও ঠিকাদারি কাজ ঠিক সময়ে শেষ হতে পারে।

দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত লি জং-কিউন দুই দেশের সহযোগিতার সম্পর্ককে আরও বিস্তৃত করার আশা প্রকাশ করে বলেন, বৈশ্বিক রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা আমাদেরকে আঞ্চলিক ও দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি করেছে। তবে এই চ্যালেঞ্জগুলোকে আমরা নিবিড়ভাবে গ্রহণ করে এটাকে নতুন নতুন সুযোগে পরিণত করতে পারি। কোরিয়ার নতুন সরকার দুই দেশের সম্পর্কের অগ্রগতির জন্য নতুন নতুন সুযোগ সৃষ্টির ঘোষণা দেবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

ইত্তেফাক/ইউবি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

২৪ ঘণ্টায় ২৯ জনের করোনা শনাক্ত

৩০ দিন পর করোনায় মৃত্যু দেখলো দেশ

‘অল্প প্রয়োজনীয় প্রকল্পে শ্রীলঙ্কার মতো বিপর্যয় হতে পারে’

টানা এক মাস দেশে করোনায় মৃত্যুশূন্য

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সরকারের ভুল পরিকল্পনায় বিদ্যুতের গ্রাহকরা ভুগছেন

৩৫ জনের করোনা শনাক্ত, টানা ২৯ দিন মৃত্যুশূন্য

বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারে আগ্রহী মার্কিন আইনপ্রণেতারা

ভারতের সঙ্গে জেসিসি বৈঠক ৩০ মে