বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

দণ্ড পাওয়া ডেসটিনির প্রেসিডেন্ট হারুন এখন হাসপাতালে

আপডেট : ১৩ মে ২০২২, ১৮:২০

ডেসটিনির প্রতারণার মামলায় ৪ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে ডেসটিনি প্রেসিডেন্ট, সাবেক সেনা প্রধান হারুন-অর-রশীদের। তবে রায়ের পর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) বহুল আলোচিত এই মামলার রায় হয়। তাতে ৪৬ জন আসামিরই সাজা হয়। হারুনকে ৪ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয় এবং সাড়ে ৩ কোটি টাকা জরিমানা করা হয়। এই অর্থ দিতে না পারলে তাকে আরো ৬ মাস কারাভোগ করতে হবে।

জামিনে মুক্ত থাকা হারুন রায়ের সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। রায়ের পর অন্য আসামিদের সঙ্গে তাকেও গ্রেফতার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানোর আদেশ হয়। তবে বিকেলেই তাকে কারা হেফাজতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইই) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানা যায়।

কেরানীগঞ্জের ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, ‘‘উনাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’’ এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু আর বলতে চাননি কারা কর্তকর্তাদের কেউ।

বিএসএমএমইউ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নজরুল ইসলাম খান জানান, ‘‘বিকেলের দিকে কার্ডিয়াক প্রবলেম নিয়ে হাসপাতালে এলে তাকে সিসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে।’’

সাবেক সেনাপ্রধান হারুন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম গঠনের সময় সদস্য সচিব ছিলেন। ডেসটিনি কেলেঙ্কারির পর তাকে ওই পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ নিয়ে আত্মসাতের অভিযোগে ১০ বছর আগে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ডেসটিনির কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মামলা করলে ২০১২ সালে কারাগারে যেতে হয়েছিল অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল হারুনকে। পরে তিনি জামিনে মুক্তি পান।

ইত্তেফাক/এমএএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

দুদকের মামলায় এসকে সিনহার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন ৩ আগস্ট

বার কাউন্সিল নির্বাচন আজ

হাতিরঝিল নিয়ে আদালতের যত নির্দেশনা-পরামর্শ

সম্রাটের জামিন বাতিল, ফের কারাগারে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলেন সম্রাট

খালাস চেয়ে হাজী সেলিমের আপিল

নর্থ সাউথের চার ট্রাস্টিকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ

টিপু-প্রীতি হত্যা: তদন্ত প্রতিবেদন ৫ জুলাই