শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১০ আষাঢ় ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মির্জাপুরে গরম বাতাসে পুড়ে গেছে কয়েকশ হেক্টর বোরো ধান, বিপাকে কৃষকরা 

আপডেট : ২১ মে ২০২২, ০৯:৪৪

বৈরি আবহাওয়া ও তীব্র গরমের কারণে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলায় বেশ কয়েকটি ইউনিয়নে বোরো ধান ক্ষেত পুড়ে ধানে চিটা হয়ে যাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। বিভিন্ন এলাকায় কয়েকশ হেক্টর বোরো ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। এতে চরম বিপাকে পরেছেন কৃষকরা। একদিকে বোরো ধান পুড়ে চিটা হয়ে যাওয়া অপর দিকে ধান কাটা শ্রমিক সংকট থাকায় বোরো ধান নিয়ে দিশেহারা হয়ে পরেছেন এলাকার কৃষকরা। 

মির্জাপুর উপজেলার কয়েকটি এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে হঠাৎ করে গরম বাতাসে বোরো ধান ক্ষেত পুড়ে ধানে চিটা হয়ে গেছে। উপজেলা কৃষি অফিসের কর্মকর্তাগন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেছেন, বৈরি আবহাওয়া ও গরমের কারণে গরম বাতাসে কিছু কিছু এলাকায় ধান পুড়ে ধানে চিটা হয়ে গেছে।

মির্জাপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, চলতি মৌসুমে মির্জাপুর উপজেলায় বোরো আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২১ হাজার ৫০০শত হেক্টর। উপজেলার পৌরসভা, মহেড়া, জামুর্কি, ফতেপুর, বানাইল, আনাইতারা, ওয়ার্শি, ভাদগ্রাম, ভাওড়া, বহুরিয়া, লতিফপুর, গোড়াই, আজগানা, তরফপুর ও বাঁশতৈল এই ১৪ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে কৃষকরা আটঘাট বেঁধে আমন ধান আবাদে ঝুঁকে পরে বলে কৃষি অফিসের কর্মকর্তাগন জানান। ব্রি-২৮, ব্রি-২৯, ব্রি-৪৯, ব্রি-৫১, ব্রি-৫২, ব্রি-৬২, ব্রি-৭২ ও বিনা ৭ জাতের বোরো ধান চাষ হয়েছে। গত কয়েক দিনের ব্যবধানে উপজেলার পাহাড়পুর, মীর দেওহাটা, দেওহাটা,  পৌরসভা, মহেড়া, জামুর্কি, ফতেপুর, বানাইল, আনাইতারা, ওয়ার্শি, ভাদগ্রাম, ভাওড়া, বহুরিয়া, লতিফপুর, গোড়াই, আজগানা, তরফপুর ও বাঁশতৈল এই ১৪ ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে বৈরি আবহাওয়া ও গরম বাতাসে হঠাৎ করে বোরো ধান পুড়ে ধানে চিটা হয়ে যাচ্ছে। 

ক্ষতিগ্রস্থ্য কৃষকদের মধ্যে আবু সাইদ (৫৬) ও মো. গফুর মিয়া (৫০)সহ ১৫-২০ জন কৃষক অভিযোগ করেছেন বৈরি আবহাওয়া ও গরম বাতাসে হঠাৎ করে বোরো ধানে চিটা হয়ে যাওয়ায় তারা চরম বিপাকে পরেছেন। বিষয়টি তারা স্থানীয় কৃষি অফিসকে জানিয়েছেন। সার্বিক সহযোগিতা ও ক্ষতি পুরনের জন্য তারা উপজেলা কৃষি অফিস, কৃষি মন্ত্রী, স্থানীয় এমপি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ইউএনওসহ কৃষি বিভাগ মন্ত্রনালয়ের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন। 

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি অফিসার মি. সঞ্জয় কুমার পালের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, চলতি মৌসুমে মির্জাপুরে একটি পৌরসভা ও ১৪ ইউনিয়নে বোরো আবাদ বেশ ভাল হয়েছে। বৈরি আবহাওয়া ও তীব্র গরমের কারণে কিছু কিছু এলাকায় গরম বাতাসের কারণে বোরো ধান ক্ষেত পুড়ে ধানে চিটা হয়ে যাচ্ছে বলে অভিযোগ পেয়েছেন। ভুক্তভোগি কৃষকদের নিকট থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর ক্ষতিগ্রস্থ্য বোরো ধান ক্ষেত পরিদর্শন করা হয়েছে। পরিদর্শন করে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে এলাকার কৃষকদের সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে এবং ধান কেটে ফেলার জন্য কৃষকদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। সরকারী ভাবে বরাদ্দ পেলে ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতা করা হবে। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হাফিজুর রহমান বলেন, বিভিন্ন এলাকার কৃষকদের নিকট থেকে ধানে চিটা হয়ে যাচ্ছে এমন অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। বিষয়টি সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা ও রিপোর্ট প্রদানের জন্য কৃষি অফিসের কর্মকর্তাদের অনুরোধ করা হয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে কোন বরাদ্দ পেলে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

ইত্তেফাক/ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ভূঞাপুরে বন্যায় দুর্ভোগে মানুষ

মির্জাপুরে লাইনচ্যুত ট্যাংকলরি ১৬ ঘণ্টায়ও উদ্ধার হয়নি

ভাঙন রোধে স্বেচ্ছাশ্রমে ফেলা হচ্ছে বালুর বস্তা

নাতির কোলে চড়ে ভোট দিলেন শতবর্ষী কাঞ্চন মালা

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সখীপুরে ২ ইউপিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর জয়

কিলোমিটার পোস্টে ‘বঙ্গবন্ধু’ বানান ভুল

মির্জাপুরে ভোটকেন্দ্রে ভোটারের মৃত্যু

টাঙ্গাইলে ১৮ ইউপিতে ভোটগ্রহণ চলছে