শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে হামলায় নিহত ১ 

আপডেট : ১১ জুন ২০২২, ১৩:৩৫

বগুড়ার শিবগঞ্জের পল্লীতে অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের মারপিটে একজন নিহত হয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠেছে। 

শুক্রবার (১০ জুন) রাত ১২টার দিকে উপজেলার আটমূল ইউনিয়নের ভায়েরপুকুরে ঘটনাটি ঘটে। এসময় সহকারী মহাব্যবস্থাপকসহ আরও ৫ জন আহত হয়েছেন। ওই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ অবৈধ সংযোগকারীদের একজন আবু সাঈসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

নিহত আব্দুল হান্নান বগুড়ার শাজাহানপুরের খোট্টাপাড়া ইউনিয়নের জালশুকা গ্রামের মোজাম্মেল হকের ছেলে। তিনি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পীরব সাবজোনাল অফিসে অফিস সহকারী হিসেবে কর্মরত ছিলেন। আহতরা হলেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির একই কার্যালয়ের সহকারী মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) রকিবুজ্জামান এবং চারজন লাইনম্যান পিন্টু প্রামাণিক, বিকাশচন্দ্র, ফাকরুল হোসাইন ও আজিজুল হক।

বগুড়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মনিরুজ্জামান বলেন, ‘ভায়েরপুকুরে সাখাওয়াত হোসেনের ছেলে আব্দুল হালিম ও আবু সাঈদের নামে নেওয়া আবাসিক সংযোগ থেকে অবৈধভাবে বাণিজ্যিক কাজে বিদ্যুৎ ব্যবহার করা হতো। বিষয়টি জানার পর সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার জন্য পীরব সাব-জোনাল অফিস থেকে ৭ জনের টিম শুক্রবার রাত ১১টায় ঘটনাস্থলে যায়। তারা অবৈধ ওই সংযোগ কাটতে গেলে বিদ্যুৎ ব্যবহারকারী ও তাদের সহযোগীদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে ৭ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে মারপিট শুরু করেন।’ 

মনিরুজ্জামান আরও বলেন, ‘এসময় আব্দুল হান্নান প্রাণের ভয়ে দৌড়ে চলে যান। এরপর অবৈধ বিদ্যুৎ ব্যবহারকারীরা আমাদের অন্য ৬ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আটকে রাখেন। বিষয়টি পরে শিবগঞ্জ থানায় জানানো হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ৬ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে উদ্ধার করলেও আব্দুল হান্নানের কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে রাত ২টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে একটি জমিতে তার লাশ পাওয়া যায়। আহত অন্য ৬ কর্মকর্তা-কর্মচারী প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।’

শিবগঞ্জ থানার সাব ইন্সপেক্টর লতিফুর রহমান বলেন, ‘পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উদ্ধার করে থানায় আনার পর গভীর রাতে আব্দুল হান্নান নামে তাদের আরেক কর্মীর লাশ উদ্ধার করা হয়।’ 

ইত্তেফাক/মাহি