মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ইউপি সদস্যের ফেনসিডিল বিক্রি-সেবনের ভিডিও ভাইরাল

আপডেট : ১৩ জুন ২০২২, ২০:৪১

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের মালগাড়া গ্রামের ৪নং ওয়ার্ড সদস্য বাদশা'র বাড়িতেই ফেন্সিডিলের বিক্রি ও সেবনের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়। সোমবার (১৩ জুন) সকালে ইউপি সদস্যের পুত্র শাহিন (২২)-কে আটক করে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ। একই দিন সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে থানা পুলিশ মালগাড়া গ্রাম থেকে ইউপি সদস্যের স্ত্রী স্বপ্না বেগম (৪৪)-কে গ্রেফতার করা হয়।

গত ১২ জুন রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মালগাড়া গ্রামে ইউপি সদস্যের বাড়িতে ফেনসিডিল বিক্রি ও সেবনের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওতে দেখা যায়,  ইউপি সদস্য বাদশার স্ত্রী স্বপ্না বেগম নিজেই চাহিদামত ফেনসিডিল পরিবেশন করছে। সেই ভিডিও চিত্রে একটি অংশে দেখা যায় ইউপি সদস্য বাদশা মিয়া টাকা নিচ্ছে। মাদকসেবীর তার স্ত্রীর নামে খারাপ ব্যবহারের অভিযোগ করলে তিনি তার স্ত্রীকে শাসন করেন।

ভিডিওতে শোনা যায় মাদকসেবীদের একজন প্রশ্ন করছেন, এখানে প্রশাসন আসে না? স্বপ্না বলেন, এটা মেম্বারের বাড়ি। এখানে প্রশাসনের ক্ষমতা আছে? ম্যাজিস্ট্রেট হলে সমস্যা। কালিগঞ্জ উপজেলার গোড়ল ইউনিয়নের লোহাকুচি ও বুড়িরহাট সীমান্ত এলাকা দিয়ে রাতে গরু ও মাদক পাচার হয়ে বাংলাদেশে আসে। 

মাদক চোরাচালানের পৃথক দুটি মামলায় ইউপি সদস্য বাদশা মিয়াকে আদালত ইতোর্পূবে দুই বছর ও পাঁচ বছর সাজা দিয়েছে। বর্তমানে সে দুটি মামলায় হাইকোর্টের জামিনে রয়েছে।

কালিগঞ্জ থানা পুলিশ জানায়, প্রকাশ্যে ফেনসিডিল বিক্রির ও সেবনের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার অভিযোগে ইউপি সদস্যর স্ত্রী স্বপ্না বেগমকে গ্রেফতার ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার পুত্র শাহিনকে আটক করা হয়েছে।আসামীকে থানায় নিয়ে আসার পর থানায় মামলা দায়ের করা হবে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

যৌতুকের মামলা না তোলায় শাশুড়িকে মারধরের অভিযোগ

গভীর সমুদ্রে জেলে বেশে র‍্যাবের অভিযান, আটক ৯ মাদক কারবারি

সাড়ে ৪ বছরে বিজিবির জব্দ করা বিভিন্ন মাদক ধ্বংস

তিস্তায় বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি, ত্রাণ বিতরণ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ফুটবল চুরির অভিযোগে ৪ শিক্ষার্থীকে পেটালেন প্রধান শিক্ষক 

সিংগাইরে ১৪ লাখ টাকার মাদকসহ গ্রেফতার ২

তিস্তার পানি বিপৎসীমার ওপরে, পানিবন্দি ১০ হাজার পরিবার

ট্রেন গেল এক পথে আর ক্রসিংয়ের গেট লাগানো হলো অন্য পথের!