সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মোরেলগঞ্জে পানগুছির ভাঙনের কবলে ঘরবাড়ি-কৃষিজমি

আপডেট : ১৫ জুন ২০২২, ০৩:৩০

মোরেলগঞ্জের পানগুছি নদীর অব্যাহত ভাঙনে দুই পাড়ের ৯টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের ফসলি জমিসহ বসতবাড়ি, কাঁচাপাকা রাস্তাঘাট বিলীন হচ্ছে। কয়েক হাজার বিঘা জমি ভাঙনের হুমকিতে আছে। 

জানা গেছে, মোরেলগঞ্জ বন্দরসহ ৯ ইউনিয়নে গত কয়েক দশক ধরে পানগুছি নদীর ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। নদীর তীরবর্তী গ্রামের শত শত বাসিন্দা তাদের সর্বস্ব হারিয়ে চলে যাচ্ছে বিকল্প কর্মসংস্থানের তাগিদে বিভিন্ন উপজেলা ও শহরে। আবার অনেকেই অন্যের জমিতে আশ্রয়ে রয়েছে। বসবাস করছে বেড়িবাঁধের পাশে ও ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে। প্রতি বছর এই প্রাকৃতিক বিপর্যয় নষ্ট করছে জমির উর্বরতা। লবণাক্ততা বৃদ্ধির ফলে ৪৪ হাজার ৪৮০ হেক্টর জমির মধ্যে আবাদ হচ্ছে মাত্র ২৮ হাজার ২২৫ হেক্টর জমিতে। উৎপাদন কমে গিয়ে অনাবাদি পতিত জমির সৃষ্টি হচ্ছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আকাশ বৈরাগী বলেন, এ উপকূলীয় মানুষের ফসলি জমিতে একাধিক ফসল উৎপাদন করতে হলে লবণাক্ততা কাটিয়ে এক ফসলি জমিগুলোকে বিকল্প পদ্ধতিতে চাষাবাদ করতে হবে। জোয়ার-ভাটার স্থানে স্থায়ী বেড়িবাঁধ প্রয়োজন। পলি পড়ে ভরাট হয়ে যাওয়া খালগুলোকে পুনঃখনন জরুরি। শীত মৌসুমে লবণাক্ত খালগুলোতে বাঁধ দিলে ফসলসহ একাধিক ফসল ফলানো সম্ভব। 

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী কর্মকর্তা মো. মনিরুল ইসলাম জানান, এ অঞ্চলে সুপেয় পানি ব্যবহারের জন্য প্রধানমন্ত্রীর পরিকল্পনা অনুযায়ী লবণাক্ততার মাত্রা দূর করার লক্ষ্যে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণে পানি সরবরাহ প্রকল্প ইতিমধ্যে একনেকে পাশ হয়েছে। উপকূলীয় ১০টি জেলায় ২২২টি ইউনিয়নে ১ লাখ আর ডব্লিউএইচ পানির ট্যাংক সরবরাহ করার পরিকল্পনা রয়েছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ উপজেলার ফসলি জমি বৃদ্ধির লক্ষ্যে চার ইউনিয়নের ১ হাজার হেক্টর জমি লজিক প্রকল্পের আওতায় নেওয়া হয়েছে। এ প্রকল্পের মাধ্যমে রবিশস্য উৎপাদন বৃদ্ধিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে বলে তিনি মনে করছেন।

এদিকে, ভাঙন প্রসঙ্গে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুম বিল্লাহ বলেন, ভাঙন রোধে মোরেলগঞ্জ পৌরশহর রক্ষায় এক কিলোমিটার জুড়ে সিসি ব্লক বসানো হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অন্যান্য এলাকা রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

ইত্তেফাক/এমএএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

বৃষ্টি ও জোয়ারে বিপর্যস্ত উপকূল

৪ বছরেও শেষ হয়নি মাদরাসার ভবন নির্মাণ, পাঠদান ব্যাহত 

জোয়ারের পানিতে দুবলার চর প্লাবিত, জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা

বিদ্যালয় মাঠে জলাবদ্ধতা, শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে চুরি যাওয়া মালামালসহ গ্রেফতার ৪

ঘন ঘন লোডশেডিংয়ে কমে গেছে বরফ উৎপাদন, বিপাকে সমুদ্রগামী জেলেরা

মোংলা বন্দরে ৩ নম্বর সংকেত, পণ্য খালাস-বোঝাই ব্যাহত 

মোরেলগঞ্জে আমন বীজ সংকটের আশঙ্কা