বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ক্যাম্পে পুলিশের সঙ্গে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি

রাইফেলসহ গোলাবারুদ জব্দ 

আপডেট : ১৭ জুন ২০২২, ০৩:২০

কক্সবাজারের উখিয়ার বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অস্ত্রধারীদের ফেলে যাওয়া আমেরিকার তৈরি একটি অত্যাধুনিক এম-১৬ রাইফেল ও ৪৯২পিস বুলেট উদ্ধার করেছে ক্যাম্পে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ৮ আমর্ড পুলিশ ব্যাটেলিয়ন (এপিবিএন) সদস্যরা। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) রাতে অভিযানকালে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের সঙ্গে গোলাগুলির পর এ অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করতে সক্ষম হয় বলে জানিয়েছেন অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া  ৮ এপিবিএন'র অধিনায়ক এসপি শিহাব কায়সার খান। তবে এসময় কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি অভিযানকারীরা।

এসপি শিহাব কায়সার খান বলেন, গোয়েন্দা তথ্যের ভিক্তিতে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক-এম/১৭,ক্যাম্প-১৮ ক্যাম্প বিশেষ অভিযান চালানো হয়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি ঠের পেয়ে সন্ত্রাসীরা গুলি ছুড়লে পাল্টা গুলি চালায় এপিবিএন। গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা একটি ব্যাগ ফেলে পালিয়ে যায়। ব্যাগটি জব্দ করে এর ভেতর অস্ত্র ও বুলেট গুলো পাওয়া যায়। 

তিনি আরো জানান, জড়িতদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

আইনশৃংঙ্খলা বাহিনী ও গোয়েন্দা সূত্র জানায়, অস্ত্রটি আলোচিত রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মাস্টার নবী হোসেন গ্রুপের। ধারণা করা হচ্ছে, বড় ধরনের নাশকতার  জন্য এ ভয়ঙ্কর অস্ত্রটি  ক্যাম্পে আনা হয়েছে। একই ধরনের আরও অস্ত্র ক্যাম্পে মজুদ হয়েছে বলে ধারণা শৃংঙ্খলা বাহিনীর। এম-১৬ রাইফেল আমেরিকান সামরিক বাহিনী ব্যবহার করে থাকে।

রোহিঙ্গাদের একটি সূত্র দাবি করেছে, আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে রোহিঙ্গাদের বড় দুটি সশস্ত্র গ্রুপ কথিত আরসা ও মাস্টার  নবী হোসেন গ্রুপের সদস্যরা মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। এ কারণে সম্প্রতি দুটি গ্রুপই ক্যাম্পে তাদের শক্তি বৃদ্ধি করে চলছে। এতে করে এ দু'টি গ্রুপের মধ্যে যেকোনসময় ভয়াবহ  সংঘর্ষের সম্ভাবনা রয়েছে। 

গত এক সপ্তাহে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের একজন মাঝিসহ অন্তত ৩জন খুনের ঘটনা ঘটেছে। এ ছাড়াও হামলা ও পাল্টা হামলায় গুরুত্বর আহত হয়েছেন অনেকেই। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, ক্যাম্পে যে কোন  নাশকতা ও  অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে কাজ করছে তারা। অভিযানের পাশাপাশি গোয়েন্দা নজরদারিও বৃদ্ধি করা হয়েছে বলে জানিয়ে সংশ্লিষ্টরা।

অপরদিকে, টেকনাফের নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্পে অভিযান চালিয়ে অভিযানে ৪টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং ৪ টি কার্তুজ উদ্ধার করেছে ১৬ এপিবিএন সদস্যরা। ১৬ জুন সন্ধ্যায় এ অভিযান চালানো হয়।

১৬ এপিবিএন অধিনায়ক এসপি তারিকুল ইসলাম তারিক জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ১৬ এপিবিএনের প্রশিক্ষিত কমান্ডো টিমসহ অফিসার ও ফোর্সের সমন্বয়ে ৮০ জনের আভিযানিক টিম নয়াপাড়া রেজিস্টার্ড ক্যাম্পের নুরালীপাড়া সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকায় ড্রোনের সাহায্যে অভিযান চালায়। অভিযানকালে পাহাড়ি এলাকায় গুহার মধ্যে অজ্ঞাতনামা ডাকাতদল কর্তৃক লুকিয়ে রাখা ৪টি দেশীয় তৈরি আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি) ও ৪ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায়ও কাউকে আটক করা যায়নি। তবে অজ্ঞাত ডাকাতদলের সদস্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে উল্লেখ করেন এসপি তারিক।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি