সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

আফগানিস্তানের দক্ষিণ কান্দাহারে অবৈধ গোলা-বারুদসহ আটক ৩

আপডেট : ২৭ জুন ২০২২, ১৭:৩২

আফগানিস্তানের দক্ষিণ কান্দাহার প্রদেশ থেকে এক ডজনেরও বেশি অ্যাসল্ট রাইফেল এবং গোলাবারুদ উদ্ধার করেছে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী। এক বিশেষ অভিযানে এসব অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। রবিবার (২৬ জুন) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আগানের সিনিয়র পুলিশ অফিসার মোল্লা আব্দুল গনি হকবিন।

আফগান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা সিনহুয়া এক প্রতিবেদনে জানায়, উদ্ধার করা আগ্নেয়াস্ত্র গুলো রয়েছে মোট ছয়টি একে-৪৭, ১৩টি টি পিস্তল, কয়েক হাজার রাউন্ড গুলি, এবং রকেট চালিত গ্রেনেডের (আরপিজি) এবং ১৯টি মাইন।

হকবিন আরও জানান, অবৈধভাবে অস্ত্র রাখার অভিযোগে নিরাপত্তা বাহিনী তিনজনকে আটক করেছে।

২০২১ সালের আগস্টে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগান বাহিনীর হাতে অনেক সামরিক সরঞ্জাম এবং অস্ত্র ছেড়ে দিয়েছিল যা শেষ পর্যন্ত তালেবানদের হাতে চলে যায়। কাবুল দখল করার পর, তালেবানরা শুধুমাত্র আফগানিস্তানের রাজনৈতিক নিয়ন্ত্রণই নেয়নি বরং মার্কিন-তৈরি অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামের নিয়ন্ত্রণও অর্জন করেছিল যা পালিয়ে আসা আফগান বাহিনীর হাতে পড়ে ছিল।

মার্কিন এক কংগ্রেস সদস্যের দাবি, প্রায় ৮ হাজার ৫০০ কোটি ডলারের অস্ত্র আফগানিস্তানে ফেলে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র। যেগুলো সরাসরি তালিবানের দখলে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, গত ২০ বছরে তারা আফগান বাহিনীর পেছনে খরচ করেছে ৮৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। কিন্তু তাদের এ প্রশিক্ষণ ও অস্ত্রপাতি তালেবানের হামলার ঠেকাতে পারেনি বরং মার্কিন সেনাদের কাছে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য তালেবানে যোগ দিয়েছে। 

দীর্ঘদিন ধরেই কালাশনিকভ ও একে-৪৭ এর মতো অস্ত্র দিয়ে যুদ্ধ চালিয়েছিল তালেবান যোদ্ধারা। এখন তাদের হাতে শোভা পাচ্ছে এম-ফোর কার্বাইন এবং এম-১৬ এর মতো অত্যাধুনিক সব সমরাস্ত্র। 

ইত্তেফাক/এএইচপি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ক্ষুধায় ধুঁকছে আফগানিস্তান, দায় পশ্চিমা বিশ্বেরও

নারীদের বিক্ষোভে তালেবানের হামলা, উদ্বিগ্ন ইইউ  

ক্ষমতা দখলের এক বছর: তালেবান কি কথা রাখছে

সেই তালেবান যোদ্ধারা এখন অন্যরকম জীবনে

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

'জাওয়াহিরির হত্যাকাণ্ড দোহা চুক্তির শূন্যতাকে পুনর্ব্যক্ত করে'

জাওয়াহিরির দেহ কোথায়! 

আল-আকসা প্রাঙ্গণে ইহুদি বসতিতের তাণ্ডব 

আল-কায়েদার 'পরবর্তী নেতা' কে এই সায়েফ আল-আদেল