শুক্রবার, ১৯ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বাফুফেকে প্রায় ৩০ কোটি টাকা দেবে ফিফা

আপডেট : ০১ জুলাই ২০২২, ০৯:৫৩

বাংলাদেশে অত্যাধুনিক টেকনিক্যাল সেন্টার বা সেন্টার অব এক্সিলেন্স নির্মাণ করবে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফা। সেজন্য বেশ কদিন ধরেই জমি খুঁজছিল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। এদিক-ওদিক ঘুরে দেখার পর অবশেষে কক্সবাজারের খুনিয়াপালংয়ে উপযুক্ত জমি খুঁজে পেয়েছে বাফুফে। ২০ একরের সেই জমি বাফুফেকে বরাদ্দ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়। জমির আনুষ্ঠানিকতা বুঝে পাওয়ার পর বাফুফেকে সঙ্গে নিয়ে কাজ শুরু করে দেবে ফিফা। সেজন্য টেকনিক্যাল সেন্টারটির পেছনে ৩ থেকে ৩.৫ মিলিয়ন ডলার খরচ করবে তারা। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৩০ কোটি টাকা বা তার চেয়েও বেশি হতে পারে।

যদিও জমির জন্য অনেক আগেই বাফুফেকে সময়সীমা বেঁধে দেয় ফিফা। গত ডিসেম্বরে ডেডলাইন দেওয়া থাকলেও উপযুক্ত জমি খুঁজে পায়নি বাফুফে। খুনিয়াপালং ছাড়াও টেকনাফের বেশ কয়েকটি জায়গা ঘুরে দেখেছিল তারা। কিন্তু কিছুতেই দুইয়ে দুইয়ে চার মেলাতে পারেনি।

অবশেষে খুনিয়াপালংয়ে এসেই বুঝে পেল মন মতো জায়গা। ভূমি মন্ত্রণালয়, বন অধিদপ্তরের সঙ্গে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়কে নিয়ে এ ব্যাপারে কয়েক দফা বৈঠক করে বাফুফে। প্রস্তাবিত টেকনিক্যাল সেন্টারটি নিয়ে গতকাল বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, ‘ফুটবলের আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা থাকবে এই সেন্টারে। এটা তৈরির পর জাতীয় ফুটবল দলের অন্য কোথায় অনুশীলন করতে হবে না। এখানে সব সুযোগ-সুবিধা নিয়ে জাতীয় দল অনুশীলন করতে পারবে। বিভিন্ন বয়সভিত্তিক দলের আবাসিক অনুশীলনের ব্যবস্থাও থাকবে এখানে।’ কিছুদিনের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে জমিটি বুঝে পাবে বাফুফে। পরে এ ব্যাপারে ফিফাকে অবগত করবে। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেওয়ার পর জমি পরিদর্শন শেষে ভালো লাগলে দরপত্রের প্রক্রিয়ায় যাবে ফিফা। তারপর শুরু হবে নির্মাণকাজ।

এদিকে জুলাইয়ের শেষ দিকে আলজেরিয়ায় ২০ জাতির অনূর্ধ্ব-১৩ ফুটবল টুর্নামেন্টে খেলার আমন্ত্রণ পেয়েছে বাংলাদেশ। সেজন্য কিছুদিন আগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আফ্রিকা উইংয়ের সঙ্গে আলোচনা করেছে বাফুফে। টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণে ইচ্ছুক হলেও বাংলাদেশের খেলাটা নির্ভর করছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের ওপর। কারণে খরচের মাত্রা বেশি হওয়ায় আর্থিক সহায়তা চেয়ে মন্ত্রণালয়ের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে বাফুফে। আগামী সপ্তাহের মধ্যেই পরিষ্কার হয়ে যাবে বাফুফে দল পাঠাবে কি না।

ইত্তেফাক/এমআর