শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো জনসংখ্যা স্বাস্থ্যতথ্যের সার্টিফিকেট কোর্স চালু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২২, ১৫:০০

বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো জনসংখ্যা স্বাস্থ্যতথ্যের (পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্স) উপর একটি অনন্য সার্টিফিকেট কোর্স চালু করেছে সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউইয়র্ক এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়।

এই প্রকল্পটি যৌথভাবে পরিচালনা করছে ব্র্যাক জেমস পি গ্রান্ট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ, ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি এবং সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্ক গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ অ্যান্ড হেলথ পলিসি। পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্স বিষয়ক এক্সিকিউটিভ সার্টিফিকেট প্রোগ্রামটিতে তাত্ত্বিকশিক্ষার পাশাপাশি ব্যবহারিক প্রয়োগ ও অভিজ্ঞতামুলক শিক্ষাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।

এই প্রোগ্রামটি একবিংশ শতাব্দীর জটিল জনস্বাস্থ্য সমস্যাগুলি সমাধানের জন্য একটি দক্ষ জনবল তৈরি করবে। এই প্রোগ্রামে অংশগ্রহণকারী কর্মকর্তাবৃন্দ জনসংখ্যা স্বাস্থ্যতথ্যনীতি ব্যবহারে করে স্বাস্থ্যবিষয়ক বিভিন্ন নীতিমালা প্রনয়ন ও বাস্তবায়নে মুখ্য ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া, স্বাস্থ্যবিষয়ক প্রচলিত ডিজিটাল উদ্ভাবনগুলিকে মূল্যায়ন করতে সক্ষম হবে এবং তৃণমূলপর্যায়ের মানুষদের তথ্য ব্যবহার করে তাদের বিভিন্ন স্বাস্থ্য সচেতনতামুলক তথ্য প্রদান ও সেবানিশ্চিত করতে সক্ষম হবে।

এই প্রকল্পটি ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশন (OSF) দ্বারা অনুমোদিত এবং উভয় প্রতিষ্ঠান দ্বারা যৌথভাবে আরম্ভ করা হয়েছে। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে এই ধরনের উদ্যোগ এটাই প্রথম। গত ১৬ জুন ২০২২ বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে প্রকল্পটি উদ্ভবন হয় এবং ২৪ জুন ২০২২, আনুষ্ঠানিকভাবে সার্টিফিকেট কোর্সটির ক্লাস শুরু হয়।

এই প্রোগ্রামটি সরকারী ও বেসরকারি উভয় সংস্থার জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, গবেষক, স্বাস্থ্যবিষয়ক পেশাজীবী এবং নীতিনির্ধারকদের প্রশিক্ষণ দেবে, যারা এই ক্ষেত্রে ভবিষ্যতের নেতা হবেন। প্রথম বর্ষে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে রয়েছেন সহকারী অধ্যাপক, ডেটা সায়েন্সের সিনিয়র ম্যানেজার, জনস্বাস্থ্য গবেষকগন এবং ডিজিএইচ এসের বিভিন্ন বিভাগের (এমআইএস, আইইডিসিআর, সিডিসি, সংক্রামক রোগ হাসপাতাল এবং পরিকল্পনা) কর্মকর্তাবৃন্দ।

দীর্ঘমেয়াদে এই প্রোগ্রামটির উদ্দেশ্য হল বৈশ্বিক ও জাতীয় পর্যায়ের বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে একটি আঞ্চলিক জনসংখ্যা স্বাস্থ্য ইনফরমেটিক্স হাব তৈরি করা সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্ক (CUNY) গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ অ্যান্ড হেলথ পলিসি (SPH) (কুনি এসপিএইচ) এর পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্সে বিশ্বব্যাপী দক্ষতা রয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন মানব-কেন্দ্রিক প্রযুক্তিগত হস্তক্ষেপ এবং উদ্ভাবন সফলভাবে ডিজাইন, বিকাশ, বাস্তবায়ন এবং মূল্যায়ন করেছে।

এছাড়া, বিশ্বে প্রথম কুনি এসপিএইচই সফলভাবে পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্স এক্সিকিউটিভ প্রোগ্রাম এবং সম্পূর্ণ অনলাইন মাস্টার্স প্রোগ্রাম চালু করেছে। বাংলাদেশে বর্তমানে তাদের এই উদ্যোগের লক্ষ্য হল ব্র্যাক জেপিজিএসপিএইচের সমন্বয়ে একটি আঞ্চলিক পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্স হাব তৈরি করা। এতে বাংলাদেশের এমআইএস এবং ডিজিএইচএসের অগ্রগামী এবং বিশেষজ্ঞরাও জড়িত।

অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন), স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তর (ডিজিএইচএস) ডাঃ মীরজাদী সাব্রিনা ফ্লোরা; ডাঃ মোঃ শাহাদাত হোসেন, পরিচালক, এমআইএস এবং লাইন ডিরেক্টর, এইচআইএস ই-হেলথ, ডিজিএইচএস; ডাঃ শাহ আলী আকবর আশরাফী, চিফ হেলথ ইনফরমেটিক্স ইউনিট, এমআইএস, ডিজিএইচএস; ডিন এবং অধ্যাপক ডঃ আয়মান এল-মোহান্দেস, কুনি এসপিএইচ; ডঃ আশিস জোশী, একাডেমিক এবং ছাত্র বিষয়ক সিনিয়র সহযোগী ডিন, এপিডেমিওলজি এবং বায়োস্ট্যাটিস্টিকসের অধ্যাপক; ডাঃ হোসে এফ ফ্লোরেজ-আরাঙ্গো, সহযোগী অধ্যাপক, এপিডেমিওলজি ও বায়োস্ট্যাটিস্টিকস বিভাগ, কুনি এসপিএইচ; ডঃ মোঃ তানভীর হাসান, সহযোগী অধ্যাপক এবং সহ-পরিচালক, সিইউইইচ, জেপিজিএসপিএইচ, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এবং ডঃ এম. শফিকুর রহমান, অধ্যাপক ও পরিচালক, পরিসংখ্যান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এই কনসোর্টিয়ামের সাথে জড়িত।

এই কোর্সের উদ্বোধন গত ১৬ জুন হয়েছিল এবং ২৪ জুন ক্লাস শুরু। উদ্বোধন সম্পর্কে বিস্তারিত নিম্নরূপ:

১৬ জুন ২০২২ এ, ব্র্যাক জেমস পি গ্রান্ট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ (JPGSPH), ব্র্যাক ইউনিভার্সিটি এবং সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্ক (CUNY) গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ অ্যান্ড হেলথ পলিসি (SPH) যৌথভাবে পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্সে (Population Health Informatics) অভিজ্ঞতাভিত্তিক সার্টিফিকেট কোর্স এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এই প্রকল্পটি ওপেন সোসাইটি ফাউন্ডেশন (OSF) দ্বারা অনুমোদিত এবং উভয় প্রতিষ্ঠান দ্বারা যৌথভাবে আরম্ভ করা হয়েছে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া অঞ্চলে এই ধরনের উদ্যোগ এটিই প্রথম। এই উদ্যোগের মূল উদ্দেশ্য হল ২১ শতকের জটিল জনস্বাস্থ্য চ্যালেঞ্জগুলি সমাধানের জন্য পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্সে দক্ষ কর্মী তৈরি করা। প্রশিক্ষিত ব্যক্তিরা তৃণমূল স্তরে ডেটা ব্যবহার করে পপুলেশন হেলথ ইনফরমেটিক্সের নীতিগুলির পরিকল্পপনা, বিকাশ, বাস্তবায়ন, এবং মানব-কেন্দ্রিক প্রযুক্তি-সক্ষম হস্তক্ষেপ এবং উদ্ভাবনগুলি মূল্যায়ন করতে তথ্য ভিত্তিক সিদ্ধান্ত গ্রহণকে নির্দেশনা দিবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন), স্বাস্থ্য সেবা অধিদপ্তর (ডিজিএইচএস) ডাঃ মীরজাদী সাব্রিনা ফ্লোরা, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। তিনি জুমের মাধ্যমে ওয়াশিংটন ডিসি থেকে প্রোগ্রামে অংশ নিয়েছিলেন এবং এই বিশেষ যাত্রা শুরু করার জন্য দলটিকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাঃ মোঃ শাহাদাত হোসেন, পরিচালক, MIS এবং লাইন ডিরেক্টর, HIS & e Health, DGHS এবং ডাঃ শাহ আলী আকবর আশরাফী, প্রধান MIS, DGHS। সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্ক (CUNY) গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ অ্যান্ড হেলথ পলিসি (SPH) এর ডিন এবং প্রফেসর ডঃ আয়মান এল-মোহান্দেস এবং ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অ্যাসোসিয়েট ডিন ও প্রফেসর মালবিকা সরকার ব্র্যাক জেপিজিএসপিএইচ (Brac JPGSH) অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। মালবিকা সরকারের পাশপাশি, ড. আয়মান এল-মোহান্দেস ডিন এবং অধ্যাপক, সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউইয়র্ক (CUNY) গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ পাবলিক হেলথ অ্যান্ড হেলথ পলিসি।

ইত্তেফাক/টিআর