বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ফোর-জি সেবার তলানিতে রবি, ডাউনলোডের গতিতে শীর্ষে বাংলালিংক

ওপেন সিগন্যালের রিপোর্ট

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২২, ০৭:০৩

দেশে মোবাইল ফোনের সেবায় গ্রাহকরা ভয়াবহ অসন্তুষ্ট। ভয়েস কলে কথা বলা যায় না, ইন্টারনেট চলে না। অতিষ্ঠ গ্রাহকরা মোবাইল অপারেটরদের সেবার মান নিয়ে প্রশ্ন করলে শুধু বিরক্তিই প্রকাশ করেন। তার পরও সেবার মানে চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরের মধ্যে কার অবস্হান ভালো? বাংলাদেশে চলতি বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে হংকংভিত্তিক আন্তর্জাতিক টেলিযোগাযোগ সেবা পর্যবেক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান ওপেন সিগন্যালের প্রতিবেদন অনুযায়ী ফোরজি সেবা এবং ভিডিও দেখার অভিজ্ঞতায় পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে আছে রবি। আর ডাউনলোডের গতি বিবেচনায় শীর্ষে আছে বাংলালিংক। রাষ্ট্রীয় অপারেটর টেলিটক সব সেবায় এত দিন তলানিতে থাকলেও এবার ফোরজি সেবা ও ভিডিও দেখার অভিজ্ঞতার পয়েন্টে রবিকে পেছনে ফেলে তৃতীয় অবস্হানে উঠে এসেছে।

তবে ওপেন সিগন্যালের সূচকের সঙ্গে এর আগে চলতি বছরের মার্চ মাসে দেশের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্হা বিটিআরিসির ড্রাইভ টেস্টের ফলাফলের সঙ্গে কিছুটা তারতম্য দেখা গেছে। ফোরজি সেবায় ৭ এমবিপিএস গতি নিয়ে শীর্ষে ছিল বাংলালিংক, ৬ দশমিক ৯৯ এমবিপিএস গতি নিয়ে গ্রামীণফোন দ্বিতীয় স্হানে, ৬ দশমিক ৪ এমবিপিএস গতি নিয়ে রবি তৃতীয় স্হানে এবং ২ দশমিক ৮০ এমবিপিএস গতি নিয়ে টেলিটক চতুর্থ স্হানে ছিল।

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ সাবির বলেন, ‘একেকটি প্রতিষ্ঠান একেক ধরনের মানদণ্ডের ওপর ভিত্তি করে প্রতিবেদন দেয়। দেশে বিটিআরসি ড্রাইভ টেস্ট যেভাবে করে ওপেন সিগন্যালের তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহের পদ্ধতি কিংবা মানদণ্ড তার চেয়ে ভিন্ন। দেশে যেহেতু টেলিযোগাযোগ সেবার মান পর্যবেক্ষণকারী প্রযুক্তি সক্ষমতাসম্পন্ন কোনো স্বাধীন গবেষণা প্রতিষ্ঠান নেই, সে কারণে ওপেন সিগন্যালের মতো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের তথ্যের ওপর আমাদের নির্ভর করতেই হয়।’

বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে বাংলাদেশের মোবাইল সেক্টর নিয়ে চলতি সপ্তাহে ‘নেটওয়ার্ক এক্সপেরিয়েন্স রিপোর্ট’ প্রকাশ করেছে ওপেন সিগন্যাল। এই রিপোর্টে জনপ্রিয় কয়েকটি সেবার ওপর নির্ধারিত মানদণ্ডে বাংলাদেশের চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরের সেবার মান নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রথমেই দেখা যায়, মোবাইল ইন্টারনেট সেবায় ডাউনলোডের গতিতে শীর্ষে আছে গ্রাহক সংখ্যায় ৩ নম্বরে থাকা বাংলালিংক। তাদের ডাউনলোডের গড় গতি ১৩ দশমিক ৩ এমবিপিএস। বিটিআরসির সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুযায়ী বাংলালিংকের বর্তমান মোট গ্রাহক সংখ্যা ৩ কোটি ৮৩ লাখ ৭০ হাজার। 
ডাউনলোডের গতিতে দ্বিতীয় স্হানে আছে ৮ কোটি ৪৮ লাখ ৮০ হাজার গ্রাহক নিয়ে দেশের শীর্ষ মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন। প্রতিবেদনে গ্রামীণফোনের ডাউনলোডের গতি ১১ এমবিপিএস। ৫ কোটি ৪৫ লাখ ৩০ হাজার গ্রাহক নিয়ে গ্রাহক সংখ্যায় দ্বিতীয় স্হানে থাকা রবির ডাউনলোডের গতি ৯ দশমিক ১ এমবিপিএস। সূচকে সবার নিচে আছে রাষ্ট্রায়ত্ত টেলিযোগাযোগ অপারেটর টেলিটক। তাদের গতি ৬ দশমিক ৩ এমবিপিএস।

অন্যদিকে আপলোডের গতিতে শীর্ষে আছে গ্রামীণফোন। তাদের আপলোডের গড় গতি ৬ দশমিক ৩ এমবিপিএস। দ্বিতীয় স্হানে থাকা বাংলালিংকের গড় গতি ৩ দশমিক ৪ এমবিপিএস, তৃতীয় স্হানে থাকা রবির গড় আপলোড গতি ২ দশমিক ৭ এমবিপিএস এবং টেলিটকের ১ দশমিক ৪ এমবিপিএস। আবার ভিডিও দেখার ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতায় ১০০ পয়েন্টের মধ্যে ২৯ দশমিক ৮ পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে আছে গ্রামীণফোন। ২৮ দশমিক ৪ পয়েন্টে পেয়ে দ্বিতীয় স্হানে বাংলালিংক। ২৩ দশমিক ৭ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় স্হানে টেলিটক এবং ২২ দশমিক ৫ পয়েন্ট পেয়ে সবার নিচে রবি। এক্ষেত্রে ফোরজি সেবাতেও ৩৫ দশমিক ৪ পয়েন্টে পেয়ে শীর্ষে আছে গ্রামীণফোন। ৩৩ দশমিক ৬ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় স্হানে বাংলালিংক, ২৯ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় স্হানে টেলিটক এবং ২৭ দশমিক ৯ পয়েন্টে পেয়ে পয়েন্ট টেবিলের তলানিতে রবি। সার্বিকভাবে ফোরজি সেবার সূচক থেকে দেখা যায়, নেটওয়ার্ক বিস্তার করতে পারলেও যথাযথ সেবার মান নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সবার চেয়ে পিছিয়ে রবি।

ভয়েস অ্যাপ সেবায় ৬৬ দশমিক ১ পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে আছে বাংলালিংক, ৬৩ দশমিক ৭ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় স্হানে আছে গ্রামীণফোন, ৬১ দশমিক ৩ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় স্হানে আছে রবি এবং ৬১ দশমিক ২ পয়েন্ট পেয়ে চতুর্থ স্হানে আছে টেলিটক। ভয়েস কল এবং মোবাইল ইন্টারনেট, দুই ক্ষেত্রে সার্বিক অভিজ্ঞতার বিবেচনায় ৬৫ দশমিক ১ পয়েন্ট পেয়ে শীর্ষে আছে গ্রামীণফোন, ৬১ দশমিক ৬ পয়েন্ট পেয়ে দ্বিতীয় স্হানে বাংলালিংক, ৫৭ দশমিক ৯ পয়েন্ট পেয়ে তৃতীয় স্হানে রবি এবং ৪০ দশমিক ২ পয়েন্ট পেয়ে চতুর্থ স্হানে টেলিটক।

ওপেন সিগন্যালের প্রতিবেদনে বলা হয়, মূলত প্রায় কয়েক মিলিয়ন গ্রাহকের ডিভাইস ব্যবহার থেকে পাওয়া তথ্য-উপাত্ত যাচাই করে এই প্রতিবেদন তৈরি করা হয়। এছাড়া ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফরমগুলো থেকে কোন গ্রাহক কোন অপারেটরের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে সেবা নিচ্ছেন এবং এক্ষেত্রে গতির তারতম্য সংক্রান্ত তথ্য-উপাত্ত যাচাই করা হয়।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি