শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ঝুঁকিতে অপরাজেয় বাংলা!

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২২, ০৯:৫১

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ভবনের দক্ষিণাংশ ও বটতলার উত্তর-পূর্বাংশে অবস্থিত অপরাজেয় বাংলা। সব শ্রেণিপেশার মানুষের মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের প্রতীক হিসেবে ১৯৭৯ সালে এ ভাস্কর্য নির্মাণ করা হয়। পরবর্তী সময়ে অসাম্প্রদায়িকতা ও সব আন্দোলন সংগ্রামের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাঁড়ায় এ অপরাজেয় বাংলা। 

আন্দোলন-সংগ্রামের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে ওঠা এ অপরাজেয় এখন ঝুঁকির মুখে। ভাস্কর্যটির ঠিক পেছনের অংশে থাকা একটি ইউক্যালিপটাস গাছের কারণে ঝুঁকিতে পড়েছে ভাস্কর্যটি। এ কারণে গাছটি সরিয়ে নেওয়ার উদ্যোগ নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, ইউক্যালিপটাস গাছটির গোড়ায় থাকা পাকা অংশে ভাঙন ধরায় বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ জানতে চায় কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছির। ভাস্কর্যের বিভাগের চেয়ারম্যান নাসিমা হক মিতু ও বুয়েটের একজন বিশেষজ্ঞ এসে ভাস্কর্যটি দেখে যান। পরে তারা ইউক্যালিপটাস গাছটি কেটে ফেলার পরামর্শ দেন। 

সরেজমিনে দেখা যায়, অপরাজেয় বাংলার উত্তর-পূর্ব কোণে একটি দ্রুত বর্ধনশীল ইউক্যালিপটাস গাছ রয়েছে। গাছটির গোড়ায় ইট দিয়ে গোল ব্লক করে দেওয়া হয়। দ্রুত বর্ধনশীল গাছ হওয়ায় ইটের ব্লকটি চারপাশ ফেটে গেছে। আর গাছটি অনেক বেশী লম্বা হওয়ায় ঝড়ে ভেঙে পড়ার আশঙ্কাও করা হচ্ছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আরবারি কালচার সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. মিহির লাল সাহা বলেন, অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে দীর্ঘদেহী গাছ থাকা ঝুঁকিপূর্ণ। তা-ছাড়া ইউক্যালিপটাস পরিবেশের জন্য কিছুটা ক্ষতিকর। গাছটি অনেক বেশি পানি শোষণ করে, ঢাকার মতো জনবহুল শহরে যেখানে পানির স্তর পাওয়া যায় না, সেখানে ইউক্যালিপটাস থাকলে আশেপাশে অন্য কোনো গাছ পানি পাবে না এবং নিজেদের বর্ধন ধরে রাখতে পারবে না। 

অধ্যাপক সাহা মনে করেন, ইউক্যালিপটাস একটা দ্রুত বর্ধনশীল গাছ। সাধারণত যেসব গাছ বেশি বড় হয় ভাস্কর্য বা স্থাপনাগুলোর আশেপাশে এ ধরনের গাছ না রাখাটাই ভালো। গাছটির শিকড় কোন দিকে যাচ্ছে আমরা জানি না। ঝড়ে অপরাজেয় বাংলার পেছনের ইউক্যালিপটাস গাছ পড়ে গেলে অপরাজেয় বাংলা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। তার আগেই গাছটি অপসারণ করে সেখানে অন্য কোনো বৃক্ষ প্রতিস্থাপন করা উচিৎ। 

সাহা বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অপরিকল্পিতভাবে গাছগুলো বেড়ে উঠেছে। দেখা যাচ্ছে, ভাস্কর্য বা স্থাপনাগুলোর আশেপাশে দীর্ঘদেহী বৃক্ষ রয়েছে। ফলে ভাস্কর্য বা স্থাপনাটি দূর থেকে দেখা সম্ভব হয় না। আবার প্রাকৃতিক কারণে গাছগুলো ক্ষতিগ্রস্ত হলে তার প্রভাব ভাস্কর্য বা স্থাপনার উপরও আসতে পারে। তবে আমরা চাইলেই সেগুলো অপসারণ করতে পারি না। অপসারণের ওই এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্তৃপক্ষের অনুমতির প্রয়োজন হয়। অপরাজেয় বাংলার দায়িত্ব কলা অনুষদের ডিনের হাতে। ডিন মহোদয় বললে আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। 

ভাস্কর্য বিভাগের চেয়ারম্যান নাসিমা হক মিতু বলেন, সম্প্রতি অপরাজেয় বাংলা সংস্কারের উদ্যোগ নেওয়ার পর আমরা সেখানে কাজ করতে যাই। কাজ করতে গিয়ে পড়ি বিপাকে। ইউক্যালিপটাস গাছ এক ধরনের কষ নিঃসরণ করে। এ কষ এসে পড়ে অপরাজেয় বাংলার উপর। যার কারণে ভাস্কর্যটির উপরের অংশজুড়ে কালো কালো দাগ হয়ে পড়েছে এবং এ দাগ কোনোভাবে মোছা সম্ভব হয়নি শ্রমিকদের পক্ষে। এভাবে পড়তে থাকলে একসময় কষগুলো ভাস্কর্যের ভেতরে চলে যাবে, কষের বিক্রিয়ার কারণে ভাস্কর্যটি দীর্ঘ মেয়াদি ক্ষতির সম্মুখীন হবে। তা-ছাড়া ভাস্কর্যটির নিচে এবং ইউক্যালিপটাস গাছের গোড়ার অংশে বড় জায়গাজুড়ে ফাটল দেখা দিয়েছে। দ্রুত এ গাছের অপসারণ না করলে ক্ষতির মুখে পড়বে ভাস্কর্যটি। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ইলিয়াস আহমেদ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের চোখে এখন সব বৃক্ষই ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। বিশ তলা ভবন ঝুকিপূর্ণ হয় না, বিশ মিটার গাছ ঝুঁকিপূর্ণ হয়। ভিসি চত্ত্বর থেকে নীলক্ষেতগামী পথের সব গাছ ঝুঁকিপূর্ণ দাবি করে কেটে ফেলা হচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোনো ধরনের পরিকল্পনা ছাড়াই গাছ অপসারণ করে। আগে পরিকল্পনা প্রণয়ন করুক, তারপর বিশেষজ্ঞ কমিটির মতামত নিয়ে কার্যক্রম চালাক। তার আগে গাছ কাটা প্রকৃতি বিরোধী। 

এবিষয়ে কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছির বলেন, ইউক্যালিপটাস গাছটির জন্য ভাস্কর্যটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে বলে বিশেষজ্ঞরা মতামত দিয়েছেন। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিভাবক উপাচার্য বরাবর চিঠি দিয়েছি। কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।

ইত্তেফাক/মাহি

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ছাত্র প্রতিনিধি ছাড়াই জাবির উপাচার্য প্যানেল নির্বাচন আজ

জাতীয় শোক দিবস পালনে সিকৃবি ছাত্রলীগের প্রস্তুতি সভা

ববিতে 'আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বঙ্গবন্ধু' শীর্ষক কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত    

শেকৃবিসাসের সভাপতি জোবায়ের, সম্পাদক ওলী আহম্মেদ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

হামলাকারীরা শনাক্ত না হওয়ায় কর্মবিরতিতে ঢামেক ইন্টার্ন চিকিৎসকরা

সাউথইস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ে নবীন বরণ

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে 'রাষ্ট্র ব্যবস্থাপনায় বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্ব ও দর্শন' শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে কৃষিবিদদের কৃষি সামগ্রী বিতরণ