বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ২ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

রাণীশংকৈলে মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২২, ২৩:১৭

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈলে গত ২৭ জুলাই বাচোর ইউপি নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় থানায় পৃথক ৩টি মামলা দায়ের করা হয়। এসব মামলায় অজ্ঞাতনামা ৮ শতাধিক ব্যক্তিকে আসামি করা হয়। গত কয়েকদিন ধরে এসব মামলার ভয় দেখিয়ে পুলিশের পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, বাচোর ইউপি নির্বাচনে সহিংসতার ঘটনায় এলাকায় বর্তমানে গ্রেফতার আতংক বিরাজ করছে। বর্তমানে এসব মামলায় নাম দেওয়ার ভয় দেখিয়ে মোবাইলে থানার ওসির পরিচয় দিয়ে বিকাশের মাধ্যমে এ চাঁদাবাজি করা হচ্ছে।  

চাঁদাবাজির শিকার ওই ইউনিয়নের নব নির্বাচিত ইউপি সদস্য বাবুল হোসেন জানান, তাকে ফোনে মামলার ভয় দেখিয়ে ওসি পরিচয়ে গতকাল সোমবার ১ আগস্ট অজ্ঞাত ব্যক্তি হুমকি দিয়ে বলে, ব্যাটা মেম্বার হয়ে বসে আছিস?  মামলা থেকে বাঁচতে চাইলে এক্ষুণি বিকাশে টাকা দে নাহলে তোকেও অজ্ঞাতনামা মামলার আসামি বানাবো। 

বাবুল হোসেন আরও জানান, মামলা থেকে রেহাই পেতে তিনি ২৬ হাজার টাকা দেন বিকাশে। একইভাবে খড়রা গ্রামের হাকিমের পুত্র রুহুলের কাছেও ওসি পরিচয়ে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করা হয় । এছাড়া আলম নামের এক জনের কাছেও মামলার ভয় দেখিয়ে ০১৭৭৩৭১৮০৪১ নং মোবাইলে ফোন দিয়ে ০১৭৬৪৭৫৯১৩৫ নং বিকাশে ১০ হাজার টাকা দাবি করা হয় । 

বিষয়টি নিশ্চিত করে ওসি (তদন্ত) আব্দুল লতিফ সেখ বলেন, ওসি’র পরিচয়ে একটি প্রতারকচক্র বিভিন্ন ভাবে মোটা অঙ্কের টাকা দাবি করছে। আমরা নাম্বার গুলি যাচাই করার চেষ্টা করছি। 

এদিকে রাণীশংকৈল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এস এম জাহিদ ইকবাল বলেন, ইউপি সদস্য বাবুল হোসেনের একটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। ওসি পরিচয়ে প্রতারক চক্রকে খুব শীঘ্র আইনের আওতায় আনা হবে। তদন্ত ছাড়া কোনো নিরপরাধ ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হবে না। 

ইত্তেফাক/ইআ