শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ৪ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

রাবি ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সিকাণ্ডের জড়িত তন্ময় ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কৃত 

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ১২:০১

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে প্রথমবর্ষ অনার্সে ভর্তি পরীক্ষায় 'জালিয়াত চক্রের হোতা' বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা মুশফিক তাহমিদ তন্ময়কে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দিবাগত রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, 'বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মুশফিক তাহমিদ তন্ময়কে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হলো।'

গত ২৬ জুলাই 'এ' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় গ্রুপ-২ এ তানভীর আহমেদের বদলে প্রক্সি দিতে গিয়ে আটক হন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফোকলোর বিভাগের শিক্ষার্থী বায়েজিদ খান। পরে প্রক্টর অফিসে জিজ্ঞাসাবাদে বায়েজিদ খান নিজের দোষ স্বীকার করায় তাকে ১ বছরের কারাদণ্ড দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় প্রক্সিদাতা বায়েজিদ খানকে জিজ্ঞাসাবাদে বেড়িয়ে আসে প্রক্সিচক্রের হোতা রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তন্ময়ের নাম। বায়েজিদ খানের দেয়া তথ্যমতে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক তন্ময়ের নির্দেশে ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিয়েছেন তিনি।

পরবর্তীতে এই ছাত্রলীগ নেতার ব্যাংক একাউন্ট অনুসন্ধান করে বিগত কয়েক বছরে প্রায় ৪২ লাখ টাকা লেনদেনের প্রমাণ পাওয়া যায়। 
এদিকে প্রক্সিচক্রে নাম আসার পর থেকে পলাতক রয়েছেন এই ছাত্রলীগ নেতা। অন্যকে অভিযোগ প্রমাণের ভিত্তিতে তন্ময়ের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থান নেয়ার দাবি জানান বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতা।

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বায়েজিদ খান দীর্ঘদিন ধরে তন্ময়ের মাধ্যমে বিভিন্ন চাকরি ও ভর্তি পরীক্ষায় প্রক্সি দিতেন। রাবির কয়েক বছরের ভর্তি পরীক্ষা তন্ময়ের প্রক্সি চক্র নিয়ন্ত্রণ করছিলো বলে গুঞ্জন থাকলেও এতোদিন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। বায়েজিদ খানকে জিজ্ঞাসাবাদের একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে প্রচারের এবার তা প্রকাশ্যে আসে। অনেকের ধারণা, শুধু তন্ময় নয়, প্রক্সি চক্রে আরও অনেকে জড়িত থাকতে পারে। 

ক্যাম্পাস সূত্র মতে, ২০১৭ সালে রাবি ও রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (রুয়েট) ঘিরে গড়ে ওঠা ইয়াবা কারবারি চক্রের ৪৪ জনকে শনাক্ত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের মাদক অধিশাখা। গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে তৈরি প্রতিবেদনটিতে অবৈধ মাদক কারবারি ও সরবরাহকারী তালিকার ১৬ নম্বরে ছিল তন্ময়ের নাম।

এমনকি প্রক্সি ও মাদক কারবারের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা কামানোর অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। সেই টাকায় গাইবান্ধায় একটি প্রাইভেট হাসপাতাল নির্মাণেরও গুঞ্জন রয়েছে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল আহমেদ রুনু বলেন, তন্ময়ের বিরুদ্ধে ভর্তি জালিয়াতি, সিট বাণিজ্যসহ বিভিন্ন সময় নানা অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিকে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

ইত্তেফাক/এমএএম