মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

পশ্চিম সীমান্তপথে ভারতে সোনা চোরাচালান বেড়েছে

আপডেট : ০৭ আগস্ট ২০২২, ০৪:০৫

পশ্চিম সীমান্ত পথে ভারতে সোনা চোরাচালান বেড়েছে। বাংলাদেশ থেকে ভারতে সোনা পাচার কালে প্রায়ই সোনা ধরা পড়ছে বিজিবির হাতে। আবার বাংলাদেশ থেকে ভারতে পারের পর সে দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের হাতেও সোনা ধরা পড়ছে। বিভিন্ন সময় বিপুল সোনা ধরা পড়ছে ভারত সীমান্তে। বিজিবি সূত্র ও ভারতীয় সংবাদমাধ্যম প্রকাশিত তথ্যে এ খবর জানা যায়। সোনা ছাড়াও বাংলাদেশি মুদ্র ও বৈদেশিক মুদ্রাও পাচার হচ্ছে।

কলকাতার আনন্দবাজার পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে জানা যায়, ২১ জুলাই একটি সোনার বড় চালান উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার গুমার মাঠে সীমান্ত থেকে ধরা পড়ে। ৩২৪টি সোনার বার ও একটি সোনার কয়েন উদ্ধার করে বিএসএফ। বাংলাদেশি চোরাচালানিরা নৌকাতে ইছামতি পার হয়ে ভারতে যায়। বিএসএফ টহল দলের সামনে পড়ে নৌকা থেকে ঝাঁপ দিয়ে নদী সাঁতরে এপারে চলে আসে। বিএসএফ নৌকা থেকে সোনাভর্তি ব্যাগ উদ্ধার করে। ব্যাগের মধ্যে সোনার বারগুলো ছিল। যার ওজন ৪২ কেজি বলে আনন্দবাজার পত্রিকায় খবরে জানা যায়। ২১ জুলাই বেনাপোলের ওপারে ভারতের পেট্রাপোলে এক বাংলাদেশি যাত্রীর কাছ থেকে ৮০০ গ্রাম সোনা উদ্ধার করে বিএসএফ। ২২ জুলাই নদীয়া জেলার গোংড়া সীমান্ত থেকে ৩৭ লাখ বাংলাদেশি টাকাসহ এক বাংলাদেশি নাগরিককে আটক করে বিএসএফ। ১৪ মে নদীয়ার মরুটিয়া সীমান্ত থেকে আটটি সোনার বার উদ্ধার করে বিএসএফ। ২৩ মে বেনাপোল চেকপোস্টের ওপারে এক ট্রাকচালকের সিটের নিচ থেকে ৭৩টি সোনার বার উদ্ধার করে বিএসএফ। ঐ দিনই একটি মোটরসাইকেল তল্লাশিকালে চারটি সোনার বার উদ্ধার করে বিএসএফ। ২৫ মে পেট্রাপোলে এক বাংলাদেশি যাত্রীর পেট থেকে তিনটি সোনার বার উদ্ধার করা হয়।

২৪ মে যশোরের চৌগাছা উপজেলার কাবিলপুর সীমান্তপথে ভারতে পাচারকালে ১২৪টি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবি। যার ওজন ছিল ১৪ কেজি ৪৫ গ্রাম। ২৩ জুন বেনাপোল বাসস্ট্যান্ডে একটি বাসের সিটের নিচ থেকে ১০টি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবি। ৩১ জুলাই ঝিনাইদহের খালিশপুরে জীবননগরগামী একটি বাস তল্লাশিকালে এক যাত্রীর কাছ থেকে পাঁচটি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবি। ১ আগস্ট ঝিনাইদহের কানাইডাঙ্গা সীমান্তপথে ভারতে পাচারে জন্য নিয়ে যাওয়ার সময় একটি ইজিবাইক চালকের কাছ থেকে ছয়টি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবি। ধরা পড়ার পর ইজিবাইকচালক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, মাসিক ১৫ হাজার টাকা চুক্তিতে সোনার বার যশোরের এক ব্যাক্তির কাছ থেকে নিয়ে সীমান্তে অপর এক ব্যাক্তির কাছে পৌঁছে দেন। ২ আগস্ট যশোরের পুটখালী সীমান্তের ভাগারিয়া মোড় থেকে ১০টি সোনার বার উদ্ধার করে বিজিবি। এক জন পাচারকারীকে আটক করা হয়। ৩ আগস্ট চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুরহুদা উপজেলার সীমান্তবর্তী ফুলবাড়ী থেকে ৮০ হাজার মার্কিন ডলার উদ্ধার করে বিজিবি। ডলারগুলো ভারতে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। বিজিবির টহল দল দেখে ডলারগুলো ফেলে রেখে পালিয়ে যায় পাচারকারী।

বিজিবির চুয়াডাঙ্গা-৬ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল শাহ মোহাম্মদ ইশতিয়াক জানান, চলতি বছরে তার ব্যাটালিয়নের অধীনে সীমান্ত এলাকা থেকে ওপারে পাচারকালে তিনটি সোনার চালান ধরা হয়। উদ্ধার করা হয় তিন কেজির বেশি সোনার বার। তিনি বলেন, সোনা শরীরে লুকিয়ে আনা হয়। সুনির্দিষ্ট ইনফরমেশন ছাড়া ধরা যায় না। বিজিবির যশোর-৪৯ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল শাহেদ মিনহাজ সিদ্দিকী বলেন, তার ব্যাটালিয়নের অধীনে সীমান্ত এলাকা থেকে চলতি বছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত পাঁচটি চালানে ৩৪ কেজির বেশি সোনার বার উদ্ধার করা হয়েছে। তিনি বলেন, সোনা চোরাচালান রোধে বিজিবি কঠোর নজরদারি চালাচ্ছে। সোনার পাশাপাশি মাদকসহ অন্য পণ্যের চোরাচালান রোধে কঠোর অবস্থানে আছেন তারা।

সোনা চোরাচালানের ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিদেশ থেকে বিশেষ করে দুবাই থেকে সোনা চোরাচালান হয়ে বাংলাদেশে আসে। এরপর ঢাকা থেকে সোনা যশোরের সোনা চোরাচালান সিন্ডিকেটগুলোর হাতে পৌঁছায়। ক্যারিয়ারের মাধ্যমে বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচার করে তারা। আবার ঢাকা থেকে ক্যারিয়ার সোনা বহন করে সীমান্ত এলাকায় নিয়ে আসে। তারপর ওপারে পাচার করে দেয়।

ইত্তেফাক/ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

৯ বছরেও টঙ্গীবাসী পায়নি নাগরিক সেবা

বরিশালে লঞ্চের সঙ্গে সংঘর্ষে ডু‌বলো বালুবাহী বাল্ক‌হে‌ড, নিখোঁজ ২

শরীয়তপুরে বঙ্গমাতার জন্মদিন পালিত 

বঙ্গবন্ধু আমাদেরকে অধিকার আদায়ের পথ দেখিয়েছেন: আনোয়ার হোসেন মঞ্জু

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

গঙ্গাচড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

বঙ্গমাতার জন্মদিন উপলক্ষে দাশুড়িয়া কলেজে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচী অনুষ্ঠিত 

কক্সবাজারের হোটেল-মোটেল জোনে মিললো 'টর্চার সেল' 

কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে সাবেক সহকারী সচিব গ্রেফতার