রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অভাবের কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেললেন আমির খান

আপডেট : ০৮ আগস্ট ২০২২, ২১:১৩

বলিউড সুপারস্টার আমির খান। একটা সময় নাকি অভাব অনাটনে কেছে তাদের সংসার। বাবা-মা ছিলেন ঋণে জর্জরিত। চার ভাইবোনে স্কুলের বেতন দিতে পারছিলেন না। এখনো সেই অভাবের কথা ভোলেননি তিনি। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে ফিরে দেখলেন নিজের শিকড়।

বলিউডের প্রযোজক তাহির হুসেন ও তার স্ত্রী জিনত হুসেনের ছেলে আমির। চার ভাইবোনের র মধ্যে তিনিই বড়। ১৯৭৩ সালে ‘ইয়াদো কা বারাত’ ছবি দিয়ে আমিরের ক্যারিয়ারের শুরু। এরপর বড় হয়ে ১৯৮৮ সালে ‘কেয়ামত সে কেময়ামত তাক’-এ কাজ করেন জুহি চাওলার বিপরীতে। আমিরের বাবা ছেলের একটি ছবিই প্রযোজনা করেছিলেন, আর তা হল ১৯৯০ সালে ‘তুম মেরে হো’।

আমির খান। ছবি: সংগৃহীত

'হিউম্যানস অব বোম্বাই' বইয়ে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আমির বলেছিলেন সেই ৮টা বছরের কথা যখন তাদের পরিবারের খুব টানাটানি চলছিল। সেই সময় স্কুলের বেতন দিতেও দেরি হয়ে যেত। আমির জানান, তাদের স্কুলে ক্লাস সিক্সে ফি ছিল ছয় রুপি, ক্লাস সেভেনে সাত রুপি, ক্লাস ৮-এ আট রুপি। কিন্তু তারপরও আমির ও তার ভাইবোনরা সময় মতো বেতন দিতে পারতেন না। এক-দুবার সাবধান করে দেওয়ার পর, প্রিন্সিপাল তাদের নাম ঘোষণা করে দিতেন অ্যাসেম্বলিতে, গোটা স্কুলের সামনে। এই কথা বলতে গিয়েও কেঁদে ফেলেন আমির সেই সাক্ষাৎকারে।

বলিউডে দীর্ঘ ক্যারিয়ারে আমির খান যেমন একাধিক পুরষ্কার পেয়েছেন, তেমন তার হিট ছবির লম্বা তালিকাও আছে রয়েছে। এর মধ্যে দিল, রাজা হিন্দুস্তানি, সরফরোশ, রং দে বসন্তি, লাগান, তারে জমিন পর, গজনি, থ্রি ইডিয়টস, ধুম ৩, পিকে, দঙ্গল অন্যতম। এবার চার বছর পর আমির খান বড় পর্দায় ফিরছেন ‘লাল সিং চাড্ডা’ ছবি দিয়ে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন