শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

এশিয়া কাপে অলৌকিক কিছু আশা করছেন না সাকিব

আপডেট : ২৩ আগস্ট ২০২২, ০১:০৪

দরজায় কড়া নাড়ছে এশিয়া কাপ। এত অল্প সময়ে মহাদেশীয় এ ক্রিকেট আসরে কিছুতেই সাফল্য ছিনিয়ে আনা সম্ভব নয়। বাস্তবতা মেনে নিয়ে কথাটা অকপটে স্বীকার করে নিলেন সাকিব আল হাসান। এশিয়া কাপ নিয়ে বড় কোন স্বপ্ন দেখতে পারছে না সাকিব। আবার একদম খালি হাতে ফেরার অবস্থাও দেখছেন না তিনি। তাই অধিনায়কের লক্ষ্য এশিয়া কাপ নয়, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভালো করা।

কোনো একটি নির্দিষ্ট টুর্নামেন্টে ভালো করা নয়, বরং উন্নতির ধারাবাহিকতাই বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করেন টি-টোয়েন্টির নতুন এ অধিনায়ক। এশিয়া কাপ বা একটি সিরিজে চ্যাম্পিয়ন না হয়ে বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে ফেবারিট হিসেবে যেতে পারাটাই বর্তমান লক্ষ্য সাকিবের।

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টির নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

গতকাল সোমবার (২২ আগস্ট) এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন, বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টির নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

এবারের আসরে বাংলাদেশ নিজেদের গ্রুপে আফগানিস্তান ও শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলবে। এশিয়া কাপে তার দল কেমন পারফর্ম করবে জানতে চাইলে সাকিব বলেন, ‘এশিয়া কাপ নিয়ে আপাপ্তত আমার কোনো লক্ষ্য নেই। বর্তমানে আমার একমাত্র লক্ষ্য হল, আমরা যেনো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভালো করতে পারি এবং এটি তার জন্য প্রস্তুতি। কেউ যদি মনে করে যে আমি এক বা দুই দিনের মধ্যে কিছু পরিবর্তন করতে পারি বা অন্য কেউ পরিবর্তন করতে আসবে, তাহলে আমরা বোকার রাজত্বে বাস করছি। বাস্তবতা বিবেচনায় আমরা যদি দুইটা ম্যাচ ভালো করতে পারি, বা আগের দুই বছর যেমন ক্রিকেট খেলেছি বা শেষ কয়েকটা সিরিজ খেলছি, তাতে উন্নতির ছাপ রাখতে পারলে সেটা এ টুর্নামেন্টে আমাদের জন্য অর্জন। বাস্তবিকভাবে চিন্তা করতে পারলে আমাদের সত্যিকারের বিকাশ দেখা যাবে যখন তিন মাসের মধ্যে বিশ্বকাপে দল সত্যিই ভালো করবে।’

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টির নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

সাকিবের বলেন, ‌‘আমাদেরকে প্রত্যেককে আলাদা করে বলে দেয়ার কিছু নেই। নিজেদের সামর্থ্যের সর্বোচ্চটা ব্যবহার করা ও ধারাবাহিক দলে পরিণত হওয়াটাই বাংলাদেশের লক্ষ্য। এজন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

সাকিব আরও বলেন,  ‘আমি বলছি না যে, খেলার ধরনটা খুব একটা বদলে ফেলতে হবে। আমরা চাইলেই আমাদের শরীরটা বড় করে ফেলতে পারবো না। তবে আমাদের হাতে যে শক্তিসামর্থ্য রয়েছে সেটা কাজে লাগানো গুরুত্বপূর্ণ।’

সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টির নতুন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

আগামী অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠেয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ প্রস্তুতি নিয়ে সাকিব বলেন, ‘এই এশিয়া কাপ আমাদের জন্য বিশ্বকাপের প্রস্তুতির জন্য ভালো মঞ্চ হতে পারে। আমাদের কাছে এখন দুই-আড়াই মাস সময় আছে। এখন দেখার বিষয়, এ সময়ের মধ্যে কতটুকু উন্নতি করতে পারি। কিছু বিষয় আমাদের পক্ষে থাকবে না, ইনজুরির সমস্যাও আছে। এটা সবসময়ই হবে, সবকিছু পক্ষে থাকবে না। এই প্রতিকূলতার মাঝেও আমরা কীভাবে উন্নতি করতে পারি সেটিই গুরুত্বপূর্ণ।’

 

 

ইত্তেফাক/ইআ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন