বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

৯৯৯-এ কল দিয়ে প্রাণে রক্ষা পেলেন ১৭ জেলে

আপডেট : ২৮ আগস্ট ২০২২, ২২:২০

কক্সবাজারের কুতুবদিয়া দ্বীপ সংলগ্ন এলাকায় ইঞ্চিনবিকল ভাসমান ফিশিং ট্রলারসহ ১৭জেলেকে জীবিত উদ্ধার করেছে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদস্যরা। জাতীয় জরুরি সেবা “৯৯৯” এর মাধ্যমে বিপদে পড়া জেলেরা উদ্ধারের সহযোগিতা পেয়েছেন। উদ্ধার হওয়া ফিশিং ট্রলারটি ভোলার তজুমুদ্দিনের এফভি 'মা-বাবার দোয়া-২' নামক একটি ফিশিং ট্রলারের জেলে। তারা সকলেই ওই এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

রবিবার (২৮ আগস্ট) বিকেলে বাংলাদেশ কোস্টগার্ড সদর দপ্তরের গোয়েন্দা পরিদপ্তর শাখার (মিডিয়া কর্মকর্তা) লেফটেন্যান্ট কমান্ডার (বিএন)খন্দকার মুনিফ তকি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উদ্ধার ট্রলারের জেলেদের বরাত দিয়ে কোস্টগার্ড কর্মকর্তা জানান, বুধবার এফ ভি 'মা-বাবার দোয়া-২' নামক ফিশিং ট্রলার ভোলা তজুমুদ্দিন এলাকা থেকে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে সাগরে যায়। ইঞ্জিন বিকল হয়ে নিয়ন্ত্রণ হীনভাবে সমুদ্রে ভাসতে থাকে তারা। এরমধ্যে শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে বিকল হয়ে যাওয়া মাছ ধরার ট্রলারটি ভাসতে ভাসতে মোবাইল নেটওয়ার্কের আওতায় আসলে জেলেরা জাতীয় জরুরি সেবা '৯৯৯'- এর মাধ্যমে কোস্টগার্ড পূর্বজোনকে বিষয়টি অবিহিত করা হয়। নিয়মিত টহল ও অপারেশনের সুরক্ষায় নিয়োজিত কোস্টগার্ড জাহাজ 'কুতুবদিয়াকে' বিষয়টি অবগত করা হয়। 

কোস্টগার্ড জাহাজ কুতুবদিয়ার অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আমিনুল সাজ্জাদের নেতৃত্বে তাৎক্ষনিক ওই এলাকায় উদ্ধার অভিযানের মাধ্যমে বিকেলে ফিশিং ট্রলারসহ ১৭জেলেকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা এবং খাবার সরবরাহ করা হয়।

খন্দকার মুনিফ তকি বলেন, শনিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ফিশিং ট্রলার মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে ট্রলার ও জেলেদের কুতুবদিয়া চ্যানেলের কাছাকাছি নিরাপদ স্থানে মালিকপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এমএএম