বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

দেশ গড়ার পরতে পরতে বঙ্গবন্ধুর অবদান: মোস্তাফা জব্বার 

আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:৪১

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ‘বাংলাদেশ গড়ার পরতে পরতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান রয়েছে। দেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে গড়তে ও বিশ্বের সঙ্গে বাংলাদেশের সংযোগ স্থাপন করার বিষয়ে বঙ্গবন্ধুর অবদান রয়েছে। দেশের এমন কোনো জায়গা বাদ নেই যেখানে বঙ্গবন্ধুর হাত নেই।’

মঙ্গলবার (৩০ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে ‘দায়িত্বশীল সাংবাদিকতা ও বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনা’ শীর্ষক শোক দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, ‘দেশের ঐতিহাসিক বিষয়গুলো স্মরণীয় করে রাখার জন্য আমার দায়িত্ব ছিল ডাক টিকেট প্রকাশ করা। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা এই কাজটি শুরু করলাম। শতাধিক ডাক টিকেট প্রকাশ করে দেখি বঙ্গবন্ধুর জীবনের খুব গুরুত্বপূর্ণ কিছু অংশ বাদ পড়ে গেছে। পরবর্তী সময় আমি বললাম যে, বঙ্গবন্ধুর ‘৭২ থেকে ‘৭৫ পর্যন্ত সময়ের ঐতিহাসিক কোনো কিছু যেন বাদ না পড়ে। ডাক বিভাগ তালিকা করে আমাকে দিলো, আমি দেখলাম, এগুলো প্রকাশ করতে গেলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে আমার যে বাজেট আছে, তাতেও কুলাবে না।’

জব্বার বলেন, ‘ইউনিভার্সেল পোস্টাল ইউনিয়ন, যেটি সারাবিশ্বের পোস্টাল সার্ভিসকে নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। সেটিরও সদস্য করেছেন বঙ্গবন্ধু।’   

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট তৈরির প্রক্রিয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমাদের ডিজিটাল বাংলাদেশ হিসেবে স্যাটেলাইট উড়াতে হবে। ফ্রান্স আমাদের স্যাটেলাইট বানিয়ে দিবে, আমেরিকা তা আকাশে উঠাবে। কিন্তু সেই স্যাটেলাইট নিয়ন্ত্রণ করতে হবে আমাদের। আমাদের প্রয়োজন গ্রাউন্ড স্টেশন। আমাদের দুটো গ্রাউন্ড স্টেশন আছে একটি গাজীপুরে অপরটি রাঙামাটির বেতবুনিয়াতে। আমি খোঁজ নিয়ে দেখেছি, বেতবুনিয়ায় যে গ্রাউন্ড স্টেশনটি স্থাপন রয়েছে, সেটি ১৯৭৫ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি বঙ্গবন্ধু নিজেই রেখে গেছেন। তার মানে হলো বিশ্বের সঙ্গে স্যাটেলাইটের মাধ্যমে বাংলাদেশকে যুক্ত করার বিষয়টি রাষ্ট্র গঠনের সময় তিনি নির্ধারণ করেছিলেন। আর সেই সময় তিনি ডিজিটাল বাংলাদেশের বীজ বপন করেছিলেন।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এমনভাবে যত কিছুই আমরা খুঁজতে যাবো, আমরা দেখতে পাবো যে, এগুলোর শুরু করে গেছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধুর অবদানের বাইরে আমরা আসলে ১ ইঞ্চিও গড়ে উঠতে পারিনি।’

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ডিজিটাল বাংলাদেশের যে বীজ বপন করেছিলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ থেকে ২০০১- এই সমযয়ে দেশ ও জনগণের স্বার্থে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নগুলোকে বাস্তবায়নের জন্য কাজ করেছেন।’

উল্লেখ্য, নিউজ নাউ বাংলা ও জাগরণ টিভির উদ্যোগে শোক দিবসের এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইত্তেফাক/এইচএম