বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ৮ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

‘সিনেমা হলে দর্শক ফেরানো এখন আমাদের মূল কাজ’

আপডেট : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:২৪

বহুল প্রতিক্ষীত সিনেমা ‘অপারেশন সুন্দরবন’। এলিট ফোর্স ব্যাটালিয়ন র‌্যাবের সুন্দরবনে দুঃসাহসিক অভিযান নিয়ে নির্মিত হয়ে সিনেমাটি। এটি মুক্তির অপেক্ষায় দিন গুনছেন সিনেমাপ্রেমীরা। সিনেমাটি মুক্তি পেতে যাচ্ছে ২৩ সেপ্টেম্বর। মুক্তি উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৮ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কারওয়ান বাজারে পোস্টার উন্মোচন ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন দেশের খ্যাতিমান সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আসাদুজ্জামান নূর এমপি। বিশেষ অতিথি ছিলেন র‍্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

আরও উপস্থিত ছিলেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ সিনেমার অভিনয়শিল্পী রিয়াজ আহমেদ সিয়াম আহমেদ, নুসরাত ফারিয়া, জিয়াউল রোশান, মনোজ প্রামাণিক, শিল্পী-কলাকুশলীরা।

ছবি: ইত্তেফাক

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আসাদুজ্জামান নূর বলেন, ‘আমরা ছেলে বেলায় উত্তর কুমার-সুচিত্রার ছবি দেখেতে দেখতে বড় হয়েছি। তারপর সত্যজিৎ রায়সহ অন্যদের ছবি দেখার মতো মানসিকতা তৈরি হয়েছে। এটা তো একদিনে হয়নি। আমাদের ঠিক সেইভাবে দর্শকদের ধীরে ধীরে সিনেমা হলে নিতে হবে। দর্শকদের আগে বিনোদন দিতে হবে। তার মানে এই নয় যে সেগুলো সস্তা বিনোদন। সুস্থ বিনোদনের মাধ্যমে কিন্তু ভালো ছবি তৈরি করা সম্ভব। সেই ছবিটা আমাদের সবচেয়ে বেশি দরকার এই কারণে, এখন দর্শকদের হলো ফেরানোটা আমাদের মূল কাজ।’

নুসরাত ফারিয়া বলেন, ‘সিনেমাটি জীবনের একটি অংশ হয়ে গেছে। এটা অন্তরের অনেক কাছের একটি কাজ। এই সিনেমা করতে গিয়ে টানা ৩৫ দিন বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা বলেননি! পুরো সময় নেটওয়ার্কের বাইরে ছিলাম। আজ আমি অনেক ইমোশনাল। সবচেয়ে বড় কথা, এত বড় একটি সিনেমার অংশ হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে হচ্ছে। এই ছবিটির শুরু থেকে এ পর্যন্ত র‌্যাব যে পরিমাণ অ্যাফোর্ট দিচ্ছে, সেটা অবিশ্বাস্য। আশা করি আপনার অপারেশন সুন্দরবনের কাছে থাকবেন।’

ছবি: ইত্তেফাক

সিয়াম বলেন, ‘অনেক লম্বা একটা সময় এই টিমের সঙ্গে ছিলাম। কিছুদিন আগে এই সিনেমার একটি গানের শুট ছিলো। সেই সময় আমরা অনেক প্রেশারে ছিলাম। তবে একটি দিনের জন্য আমাদের মনে হয়নি- আমরা পরিবারের থেকে দূরে আছি। আগামী ২৩ তারিখ আমাদের এই সিনেমাটি মুক্তি পাবে। আশাকরি সবাই সিনেমা হলে গিয়ে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ দেখবে।’ 

সংবাদ সম্মেলনে চলচ্চিত্রটির নির্মাণ ও প্রেক্ষাপট তুলে ধরেন র‍্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইং পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

সিনেমার বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সিয়াম আহমেদ (মেজর সায়েম সাদাত), নুসরাত ফারিয়া (তানিয়া কবির, একজন বাঘ গবেষক), জিয়াউল রোশান (লেফটেনেন্ট কমান্ডার রিশান রায়হান), রিয়াজ (ইশতিয়াক আহমেদ, ব্যাটালিয়ান কমান্ডার), মনোজ প্রামাণিক (সাজু), সামিনা বাশার (পাখি), তাসকিন রহমানসহ (রকিব) অনেকে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন