শনিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

মোটা বলে যারা বুলিং করেছেন, এটা তাদের জবাব: পারিসা

আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৮:৩৭

‘সুন্দর’ মানুষ আসলে কেমন। গায়ের রঙ বিবেচনায় কাউকে সুন্দর, অসুন্দর বলা নিয়ে পক্ষে, বিপক্ষে নানা যুক্তি উপস্থাপন করা হচ্ছে। তবে বিউটি এক্সপার্টরা মনে করেন, গায়ের রঙ বা শারীরিক গঠন কোনোভাবেই সুন্দরের মাপকাঠি নয়। একজন মানুষের সৌন্দর্য ফুটে উঠে মেধা, বাচনভঙ্গি ও শিষ্টাচারের মাধ্যমে। সেই ধারণা থেকে হয়ে গেলো ‘মিস অ্যান্ড মিসেস প্লাস’ বাংলাদেশ-২০২১।

চার শতাধিক প্রতিযোগীকে হারিয়ে ‘মিস অ্যান্ড মিসেস প্লাস’ বাংলাদেশ-২০২১ বিজয়ী হয়েছেন কাজী তাসনুভা তাবাচ্ছুম পারিসা। গ্র্যান্ড ফিনাল অনুষ্ঠানে বিজয়ীর মাথায় ক্রাউন পরিয়ে দেন বর্ষীয়ান অভিনেত্রী দিলারা জামান। বিজয়ী হওয়ার পর কথা বলেছেন ইত্তেফাক অনলাইনের সঙ্গে।

প্রশ্ন: ‘মিস অ্যান্ড মিসেস প্লাস’ বাংলাদেশ-২০২১ বিজয়ী পর অনুভূতি কেমন?
কাজী তাসনুভা তাবাচ্ছুম পারিসা: এ অনুভূতি আসলে বলে বোঝানো যাবে না। যখন আমাকে সেরা পাঁচের মধ্যে ডাকা হয়েছে। তখনই আমার মনে হয়েছে আমি সবকিছু পেয়ে গেছি। প্রথম না হতে পারলেও বাড়ি গিয়ে বলবো আমি বিজয়ী হয়েছি। অবশেষে তো বিজয়ী হয়েই গেলাম।

কাজী তাসনুভা তাবাচ্ছুম পারিসা। ছবি: সংগৃহীত

আপনার এই পর্যন্ত আসার পেছনে আপনার বড় সাপোর্ট কারা?
পারিসা: সম্প্রতি আমি কানাডিয়ান ইউনিভার্সি অফ বাংলাদেশ থেকে স্নাতক শেষ করেছে। আমার সবচেয়ে বড় সাপোর্ট ছিলেন আমার মা, ভাই-ভাবী। আমার পরিবার থেকে কোনকিছুতে আমারে বারণ করেনি। আমি নাচ করতে চেয়েছি তারা সেটা করিয়েছে। গান করতে চেয়েছি সেটাও তারা করিয়েছে। এক কথায়, পরিবারই আমার সবচে বড় সাপোর্ট।

কখনো কি চিন্তা করেছিলেন, এমন কোনো প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন?
পারিসা: অবশ্যই। ছোটবেলা থেকে যেহেতু নাচের সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। সেহেতু তখন থেকেই ইচ্ছে ছিলো নাচ, রিয়্যালিটি শো বা বিউটি প্যাটান হোক। অবশেষে প্রথমবার এমন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করি।

কাজী তাসনুভা তাবাচ্ছুম পারিসা। ছবি: ইত্তেফাক

শারীরিকভাবে মোটা হওয়ার কারণে কি কোনা প্রতিবন্ধকতা বা বুলিংয়ের শিকার হয়েছেন?
পারিসা: হ্যাঁ, অনেকবার বুলিংয়ের শিকার হয়েছি। তবে থেমে থাকিনি। যারা আমাকে বুলিং করে বলেছেন এতো মোটা শরীর নিয়ে কোথাও যেতে পারবা না। তাদের মুখের উপর আজ দেখিয়ে দিতে চাই, এই যে আমি মাথায় ক্রাউন পড়ে হাতে ক্রেস্ট নিয়ে দাঁড়িয়ে আছি। এটা আপনাদের জবাব।

আপনার মতো যারা প্লাস সাইজ আছেন, তাদের উদ্যেশে কী বলতে চান?
পারিসা: প্লাস সাইজের মেয়েরা তাদের বডি নিয়ে অনেক সময় হীনমন্যতায় ভোগেন। তারা পাবলিকলি যেতে চান না, পাবলিকলি দাঁড়াতে চান না। আপনারা এমন অনেক প্ল্যাটফর্মে আসতে পারেন। সেগুলোতে আনহেলদি কিছু চর্চা করা হয় না। আপনি একজন মোটা মেয়ে হয়েও আপনার মেধাকে কাজে লাগাতে পারেন। মোটা হওয়া কোন ব্যাপার না। আমার মতো মোটা মেয়েদের বলবো-এরপর থেকে এমন সব প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে।

কাজী তাসনুভা তাবাচ্ছুম পারিসা। ছবি: সংগৃহীত

আগামীতে কী করতে চান?
পারিসা: ভবিষ্যতে ডান্স কোরিওগ্রাফার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই। সেই সঙ্গে আমার মতো প্লাস সাইজের মেয়ে যারা ডিপ্রেশনে থাকেন তাদের নিয়ে কাজ করতে চাই। তাদের মানসিক হেলথ ডেভেলপ নিয়ে কাজ করতে চাই।

ইত্তেফাক/বিএএফ