বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

সবার পছন্দ শান্ত, কিন্তু অশান্ত তার পরিসংখ্যান

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২০:২৬

এনামুল হক বিজয়ের বাদ পড়া মোটামুটি নিশ্চিত থাকায় জোর গুঞ্জন ছিল বিশ্বকাপ দলে জায়গা পেতে পারেন ওপেনার সৌম্য সরকার। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে স্কোয়াডে জায়গা পেলেন নাজমুল হোসেন শান্ত। আর সৌম্যকে রাখা হলো স্ট্যান্ডবাই হিসেবে।

বুধবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মিরপুরে বিসিবির কার্যালয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাংলাদেশ দল ঘোষণা করেছে দলের নির্বাচক মিনহাজুল আবেদি নান্নু ও হাবিবুল বাশার সুমন।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তার জায়গায় বিশ্বকাপ দলে সুযোপ পেয়েছেন তরুণ ইয়াসির আলী রাব্বী। চোটের কারণে এশিয়া কাপের দলে না থাকলেও রিয়াদের বয়স আর ফর্মহীনতা বিচারেই বিশ্বকাপের স্কোয়াডে জায়গা করে নিয়েছেন রাব্বী। 

নাজমুল হোসেন শান্ত।

২০১৯ সালে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় শান্তর। এখন পর্যন্ত এই ফরম্যাটে ৯ ম্যাচ খেলে রান করতে পেরেছেন মোটে ১৪৮। গড় সাড়ে ১৮। স্ট্রাইকরেট মাত্র ১০৪। 
টি-টোয়েন্টির সঙ্গে যা বড্ড বেমানান। দলের হয়ে খেলা সবশেষ তিন টি-টোয়েন্টিতে তার রান যথাক্রমে ৩৭, ১৯ এবং ১৬। খারাপ ফর্মের কারণে সদ্য সমাপ্ত এশিয়া কাপের দলেও জায়গা হয়নি তার। অথচ ঠাঁই হলো বিশ্বকাপ স্কোয়াডে।

ফলে স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠেছে, শান্ত কোন বিবেচনায় বিশ্বকাপ দলে? জবাবে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু জানালেন, শান্তকে নিয়ে অনেক আলোচনা হয়েছে। অনেক অ্যানালাইসিস করা হয়েছে ব্যাকআপ একটা ওপেনার হিসেবে। সবাই মিলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এখানে কেউ দ্বিমত করেনি। সেই জন্য শান্তকে যুক্ত করা হয়েছে।

নাজমুল হোসেন শান্ত।

তিনি আরও জানালেন, ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগের পারফরম্যান্স দেখে শান্তকে নেওয়া হয়েছে। আপনি বিপিএলের রেকর্ডটা দেখেন শান্তর। আমাদের ডমেস্টিকে যে কয়জন ক্রিকেটার রয়েছে, সেখানে তার পারফরম্যান্স কিন্তু খারাপ না। ঘরোয়া ক্রিকেটে দুটি সেঞ্চুরি রয়েছে এই ক্রিকেটারের। ডমেস্টিক রেকর্ড কিন্তু ওর খুব একটা খারাপ না। উল্লেখ্য, এখন পর্যন্ত ঘরোয়া টি-টোয়েন্টিতে ৯৫ ম্যাচ খেলে ২টি শতকের সঙ্গে ৬টি ফিফটি রয়েছে শান্তর।

এদিকে, দল ঘোষণার পর সংবাদ সম্মেলনে এসে শ্রীধরন শ্রীরামও শান্তর পক্ষেই সাফাই গাইলেন। তিনি বলেন, আমি এখন পারফরম্যান্স খুঁজছি না। আমি আসলে যেটা খুঁজছি, সেটা হলো ইমপ্যাক্ট। বাংলাদেশ যেমন দল, তাতে ৭-৮ জন ইমপ্যাক্ট ফেলতে পারলেও জিতে যাবে। তো ১৭-১৮ বলে ২৫-৩০ রান করতে পারলে সেটিই আমার জন্য ইমপ্যাক্ট।

শান্তকে ইমপ্যাক্ট খেলোয়াড় মনে হওয়ার কারণেই মূলত বিশ্বকাপে নেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমি মনে করি শান্ত অনেক ভালো খেলোয়াড়। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের জন্য প্রয়োজনীয় টেম্পারমেন্ট ওর আছে। অল্পবিস্তর তার ব্যাটিং যা দেখেছি; আমার মনে হয়েছে ওর সেই টেম্পারমেন্ট আছে।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের স্কোয়াড
সাকিব আল হাসান (অধিনায়ক), লিটন কুমার দাস, আফিফ হোসেন ধ্রুব, সাব্বির রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, নুরুল হাসান সোহান (সহ-অধিনায়ক), নাসুম আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, ইয়াসির আলি চৌধুরী, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন, এবাদত হোসেন চৌধুরী, নাজমুল হোসেন শান্ত ও হাসান মাহমুদ। 
রিজার্ভ: শরিফুল ইসলাম, রিশাদ হোসেন, শেখ মেহেদি হাসান ও সৌম্য সরকার।

ইত্তেফাক/এনএ/এএইচপি