সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

টানা বর্ষণে সাতক্ষীরা বিপর্যস্ত: ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে জেলা প্রশাসকের প্রস্তুতি

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:২০

পাঁচ দিনের টানা বর্ষণে সুন্দরবন উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে, ঝুঁকিতে রয়েছে উকূলীয় রক্ষা বাঁধ। জেলার শ্যামনগর-আশাশুনি উপজেলাসহ বিভিন্ন স্থানের নিন্ম অঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। টানা বর্ষণের ফলে উঠতি ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।  নিম্নচাপের কারণে উপকূলীয় অঞ্চলের নদ-নদীতে জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৫ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকেও সাতক্ষীরায় বৃষ্টি হচ্ছে। জেলার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপ নগর ইউনিয়নের কামারখালি বেরিবাঁধ ও শ্যামনগর উপজেলার আটুলিয়া ইউনিয়নের বিড়ালক্ষী বেরিবাঁধে ভয়াবহ ফাটল দেখা দিয়েছে। সকাল থেকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বেরিবাঁধের এ দুটি পয়েন্ট দিয়ে লোকালয়ে পানি ঢুকতে শুরু করেছে। ইউনিয়নের কয়েকশ মানুষ স্বেচ্ছাশ্রমে তৎক্ষণিক বেরিবাঁধ রক্ষায় সংস্কার কাজ শুরু করেছে।

সাতক্ষীরা আবহাওয়া অফিসের তথ্যানুযায়ী পাঁচ দিনে ১১৬ দশমিক ৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। 

টানা বর্ষণে তলিয়ে গেছে নিম্নাঞ্চল

সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আবুল খায়ের জানান, উপকূলের ৮০০ কিলোমিটার বেরিবাঁধের মধ্যে ৩৫টি পয়েন্টে ৪০ কিলোমিটার ঝুঁকিতে রয়েছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ হুমায়ূন কবির বলেন, ‘নিম্নচাপের ফলে উপকূলীয় জেলা সাতক্ষীরায় ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সবধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছ।’

ইত্তেফাক/এইচএম