বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হিসেবে স্মিথ-ওয়ার্নারকে চান না জনসন

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৬:০৯

সম্প্রতি ওয়ানডে থেকে অবসর নিয়েছেন অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে দলের নিয়মিত অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ। আর তাই কে হবে দেশটির ওয়ানডে অধিনায়ক এই নিয়ে চলছে আলোচনা। 

অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট কর্তাদের পছন্দের তালিকায় নাম আছে স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারের। অধিনায়ক পাওয়ার বিষয়ে বেশ আগ্রহ দেখিয়েছেন ওয়ার্নার। তবে স্মিথ-ওয়ার্নার দুইজনের কাউকেই অধিনায়ক হিসেবে চান না দেশটির সাবেক পেসার মিচেল জনসন। বর্তমানে রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজ খেলতে ভারতে অবস্থান করছেন অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুটি বিশ্বকাপ জয়ী এই পেসার।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জনসন বলেন, 'স্মিথ-ওয়ার্নার কাউকেই অধিনায়ক করা উচিত নয়। দলকে তারা নানাভাবে পরামর্শ দিতেই পারে এবং সেটা তারা করেও আসছে। তবে তাদেরকে নেতৃত্বে ফিরিয়ে আনার কোনো প্রয়োজন দেখি না, পুরনো সেই ব্যাপারগুলো ফিরে আসবে তাতে…। তা ছাড়া, দুজনই এখন ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে আছে। তাই এমন একজনকে নেতৃত্বে আনা উচিত, যাকে অনেকটা সময় পাওয়া যাবে।'

পুরনো ব্যাপার বলতে ২০১৮ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্টে বল টেম্পারিংকে ইঙ্গিত করেছেন তিনি। সেসময় অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। বল টেম্পারিংয়ের অভিযোগে অধিনায়কত্বে নিষেধাজ্ঞা পান ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথ। ২ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের সহ-অধিনায়কের দায়িত্ব পান স্মিথ। এমনকি সর্বশেষ অ্যাশেজে নিয়মিত অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের অনুপস্থিতিতে অধিনায়কত্ব পালন করেন স্মিথ।

জনসনের মতে অধিনায়ক করা উচিত অলরাউন্ডার ক্যামেরন গ্রিন বা গ্লেন ম্যাক্সয়েলকে। তিনি আরও বলেন, 'নির্বাচকদের ভাবনায় তো নিশ্চয়ই কেউ আছেই। হতে পারে গ্লেন ম্যাক্সওয়েল… ভবিষ্যতের দিকে তাকালে ক্যামেরন গ্রিন বিবেচনায় থাকতে পারে। 

তবে অলরাউন্ডার হিসেবে এমনিতেই অনেক ওয়ার্কলোড তার। ট্রাভিস হেড আছে সম্ভাব্য একজন, তবে আগে তার নিজের ফর্মে ধারাবাহিক হতে হবে আরও।' আর ১ বছর পরেই ভারতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ।

ইত্তেফাক/এএইচপি