বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

টেকনাফে ডাকঘর থাকলেও নেই কোন কার্যক্রম

আপডেট : ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৬:৪৬

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডে ডাকঘরের ভবন থাকলেও সেই ভবনে কোন কার্যক্রম নেই। অভিযোগ রয়েছে, দায়িত্বরত পোস্ট মাস্টার মাঝেমধ্যেই ঐ ডাকঘরের কক্ষ ভাড়া দেন।

জানা যায়, উক্ত ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার হিসেবে কর্মরত আছেন হোয়াইক্যং আলহাজ্ব আলী আছিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা শামীম আরা পারভীন। বর্তমানে তিনি বিদ্যালয়ে কর্মরত থাকার পাশাপাশি ডাক বিভাগের আওতায় হোয়াইক্যং ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার। 

স্থানীয় শরিফুল ইসলাম কাজল বলেন, 'টেকনাফ উপজেলা হোয়াইক্যং ডাকঘরের যিনি পোস্ট মাস্টারের দায়িত্বে রয়েছে তিনি দীর্ঘদিন যাবত সরকারি বেতনভুক্ত দুইটি দায়িত্বে আছেন। এদিকে দেশ-বিদেশ থেকে বিভিন্ন লোকজন পরিবার-পরিজনের কাছে প্রয়োজনীয় চিঠি ও চাকরি প্রার্থীদের চিঠিসহ গুরুত্বপূর্ণ কোন কাগজপত্র পাঠালে তা সঠিক সময় মানুষের কাছে পৌঁছায় না কারণ ডাকঘরটি ২৪ ঘন্টা বন্ধ দেখা যায়।' 

ভুক্তভোগী মো. সুলতান আহমদ বলেন, 'হোয়াইক্যং ইউনিয়ন মফস্বল এলাকাতে সরকার আমাদের সুবিধার্থে বহু টাকা খরচ করে ডাকঘরের ভবন নির্মাণ করেন। ডাকঘর থাকলেও আমরা প্রয়োজনীয় কোন চিঠি পত্র পাঠাতে পারিনা, কারণ এই ডাকঘর সবসময় বন্ধ থাকে।' 

এ বিষয়ে হোয়াইক্যং ডাকঘরের দায়িত্বরত পোস্ট মাস্টার শামীম আরা পারভীনের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করা হলেও তিনি এবিষয়ে কথা বলতে রাজি হয়নি।

কক্সবাজার ডাক বিভাগের প্রধান কর্মকর্তা মো. সোলাইমান জানান, টেকনাফ উপজেলা হোয়াইক্যং বাজারে অবস্থিত ডাকঘরের অনিয়মের বিষয়সহ ওই ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার একসঙ্গে দুইটি সরকারি চাকরি করছে তা খতিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে তিনি জানান।

ইত্তেফাক/এআই