রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব

জ্যোতির ক্যাপ্টেনস নকে আয়ারল্যান্ডকে হারালো বাংলাদেশ

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০০:৪৭

নিগার সুলতান জ্যোতির ইনিংসটি যেন ক্যাপ্টেনস নকের পরিপূর্ণ উদাহরণ। নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচেই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ১৪ রানের জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। জয়ের মূল কারিগর টাইগ্রেস অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতি। তার পঞ্চাশোর্ধ্ব ইনিংসে ভোর করেই বড় সংগ্রহ পেয়েছিলো বাংলাদেশ। ম্যাচসেরার পুরস্কারটাও উঠেছে বাংলাদেশের অধিনায়কের হাতে।   

আবুধাবিতে নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের কাছে ১৪ রানে হেরেছে আয়ারল্যান্ড। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে অধিনায়ক জ্যোতির ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৪৩ রান তোলে বাংলাদেশ। ১৪৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১২৯ রানেই অলআউট হয়ে যায় আয়ারল্যান্ড।  

প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকে কিছুটা সাবধানী খেলতে থাকেন দুই ওপেনার মুরশিদা খাতুন আর শামীমা সুলতানা।  তবে পঞ্চম ওভারে গিয়ে দলীয় ২৮ রানে প্রথম উইকেট হারায় বাংলাদেশ।   ১৬ রান করে বিদায় নেন মুরশিদা খাতুন। 

তিন নাম্বারে ব্যাটিংয়ে নেমে শামীমার সঙ্গে বড় জুটি করেন জ্যোতি। এই দুজনের জুটিতে ভর করেই বড় সংগ্রহের দিকে আগায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় উইকেটে ৬২ রান যোগ করে শামীমা আউট হন দলীয় ৯০ রানে গিয়ে। ৪০ বলে ৪৮ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে আউট হওয়ার সময় আফসোস রয়ে গেছে শুধু অর্ধশতকের।

তবে শামীমার আফসোসটা পুষিয়ে দিয়েছেন অধিনায়ক জ্যোতি। ৫৩ বলে ১০ চার আর ১ ছক্কায় ৬৭ রান করে ইনিংসের শেষ বলে আউট হন জ্যোতি। জ্যোতির অর্ধশতকে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৪৩ রানের সংগ্রহ পায় বাংলাদেশ।

১৪৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বাংলাদেশের স্পিনারদের তোপের মুখে পড়ে আইরিশরা। দলীয় ২ রানেই ওপেনার গ্যাবি লুইসকে তুলে  নেন সানজিদা মেঘলা। এরপরের ধাক্কাটা আসে অভিজ্ঞ সালমা খাতুনের কাছ থেকে। ৫ রানেই আইরিশরা হারায় নিজেদের দ্বিতীয় উইকেট। তৃতীয় উইকেট জুটিতে কিছুটা প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেছিও আইরিশরা। তবে দলীয় ৫০ রানের মাথায় ওপেনার অ্যামি হান্টারকে রান আউট করে সেই প্রতিরোধ ভাঙ্গেন সালমা। আইরিশ অধিনায়ক লরা ডিলানি চেষ্টা করেছিলেন দলকে এগিয়ে নিতে, তবে ২৮ রান করা ডিলানিকেও সাজঘরে ফেরত পাঠান অভিজ্ঞ সালমা। 

দলীয় ৭০ রানে অধিনায়ক ফিরে গেলে ৪র্থ উইকেট হারায় আয়ারল্যান্ড। এরপর থেকে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারইয়েছে আইরিশরা। সালমা আর সানজিদার সঙ্গে আইরিশ মেরুদন্ড ভাঙতে যোগ দিয়েছে আরেক অভিজ্ঞ স্পিনার নাহিদা আক্তার। 
মাঝখান দিয়ে এইমার রিচার্ডসনও বেশ ভালো চেষ্টা করেছেন দলকে জয় পাইয়ে দিতে। তবে তাকে ফিরতে হয়েছে রান আউটের ফাঁদে পড়ে। শামীমার হাতে রান আউট হওয়ার আগে করেছেণ দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪০ রান। 

বাংলাদেশের হয়ে ১৯ রান দিয়ে সালমা খাতুন নিয়েছেন ৩ উইকেট। সানজিদা মেঘলা আর নাহিদা আক্তার নিয়েছে ২টি করে উইকেট। 

১৯.৪ ওভারে ১২৯ রানেই অলআউট হয়ে যায় আয়ারল্যান্ড। ১৪ রানে জিতে বাছাইপর্বের সূচনাটা বেশ ভালোভাবেই করলো জ্যোতির দল। ৬৭ রানের ইনিংস খেলে দলের জয়ের পেছনে বড় ভূমিকা রাখায় ম্যাচসেরার পুরস্কারটিও পেয়েছে টাইগ্রেস অধিনায়ক।

আগামীকাল দ্বিতীয় ম্যাচে একই ভেন্যুতে রাত ৯টায় স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে বাংলাদেশ।

ইত্তেফাক/এসএস