বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

 আইপিএল অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চায় অস্ট্রেলিয়া

আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:০৮

ভারতের মাটিতে আসন্ন তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) খেলার অভিজ্ঞতাকে পরিকল্পনার বড় অংশ হিসেবে ব্যবহার করবে অস্ট্রেলিয়া। এমনটাই জানিয়েছেন  ইতোমধ্যেই  ভারতে পৌঁছানো অস্ট্রেলিয়া দলের পেসার ও টেস্ট অধিনায়ক প্যাট কামিন্স।

কামিন্স বলেন, ভারতের মাটিতে আইপিএলের অনেক ম্যাচ খেলেছে সতীর্থরা। সেই অভিজ্ঞতাকে এই সিরিজে কাজে লাগানো হবে।

গত আইপিএলেই বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির হয়ে খেলেছেন কামিন্স-গ্লেন ম্যাক্সওয়েল-জশ হ্যাজেলউড-অ্যাডাম জাম্পা-টিম ডেভিডরা। তাই ভারতের মাটিতে খেলার বেশ ভালো অভিজ্ঞতা রয়েছে তাদের। এই অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করেই দ্বিপাক্ষিক সিরিজে খেলতে নামবে বিশ্বচ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া।

টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার সহ-অধিনায়ক কামিন্স বলেন, ‘ভারতের কন্ডিশনে খেলা সবসময়ই কঠিন। তাছাড়া দল হিসেবেও নিজেদের কন্ডিশনে আরও বেশি শক্তিশালী টিম ইন্ডিয়া। তবে ভারতের মাটিতে খেলার অভিজ্ঞতা আমাদেরও আছে। আইপিএলে প্রচুর ম্যাচ খেলেছি আমরা। ম্যাচ খেলার এই অভিজ্ঞতা আমাদের দারুণ কাজে দিবে। আমরা আইপিএলের অভিজ্ঞতা নিয়েই পরিকল্পনা করছি, যাতে সিরিজ জয়ের লক্ষ্য পূরণ করতে পারি।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোভিডের পর প্রথমবার ভারতে এলাম। গ্যালারি ভর্তি দর্শকদের  সামনে খেলার জন্য মুখিয়ে আছি। ক্রিকেট নিয়ে মানুষ এখানে ভীষণ উত্তেজিত। আশা করবো মোহালিতে মাঠ ভর্তি থাকবে। মনে হয় যেন কোটি কোটি লোক খেলা দেখছে। মাঠে নামার অপেক্ষায় রয়েছি আমরা।’

ভারতের বিপক্ষে সিরিজে স্পটলাইটে থাকবেন অস্ট্রেলিয়া দলের নতুন সেনশেসন  টিম ডেভিড। এর আগে সিঙ্গাপুরের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছেন ডেভিড। এবার অজিদের হয়ে মাঠে মাতাবার পালা এই হার্ড-হিটার ব্যাটারের।

২৬ বছর বয়সী ডেভিডেরও আইপিএল খেলার অভিজ্ঞতা আছে। গেল মৌসুমে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে ২১৬.২৮ স্ট্রাইক রেটে ১৮৬ রান করেছিলেন ডেভিড। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে ডেভিড জ্বলে উঠবে এমন প্রত্যাশা করে কামিন্স বলেন, ‘ডেভিড দলে সুযোগ পাওয়ায় খুব ভাল লাগছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে মিডল অর্ডারে ব্যাট করা সবচেয়ে কঠিন। তবে সেখানেই খুব ভাল করছে ডেভিড। টি-টোয়েন্টিতে ব্যাটাররা রান করছে উপরের দিকে, স্পিনাররা যখন বল করছে সেই সময় ধারাবাহিকভাবে রান করা সব থেকে কঠিন। যদি ডেভিড সুযোগ পায় আশা করবো, ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগে যেভাবে খেলেছে সেটাই যেন দেশের হয়ে খেলতে পারে।’

ফর্মে ফেরা ভারতীয় ব্যাটার  কোহলিকে নিয়েও পরিকল্পনা রয়েছে অস্ট্রেলিয়ার। কামিন্স বলেন, ‘কোহলিকে শতরান করতে দেখেছি। সে দুর্দান্ত এক ক্রিকেটার। এক সময় ঠিকই ছন্দ খুঁজে পেতো বিরাট। এবার আমাদের বড় পরীক্ষার মুখে ফেলবে সে।’

মোহালিতে আগামী ২০ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে ভারত-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

ইত্তেকাফ/এসএস