রোববার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চুরির অপবাদে দুই কিশোরকে গাছে ঝুলিয়ে নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৩৯

কক্সবাজারের উখিয়ায় ছাগল চুরির অপবাদে দুই কিশোরকে গাছে ঝুলিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি ভিডিও ভাইরাল হলে শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে বিষয়টি সবার নজরে আসে। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে উখিয়া উপজেলা রত্নাপালং তেলীপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

নির্যাতনের শিকার ওই কিশোরদের বাড়ি উখিয়া রত্নাপালং তেলীপাড়া গ্রামে।

ভিডিওতে দেখা যায়, ওই দুই কিশোরকে রশি দিয়ে বেঁধে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে শাকিব, আনোয়ারসহ কয়েকজন বেধড়ক মারধর করছে আর আশেপাশে দাঁড়িয়ে তা দেখছেন ওই বাড়ির লোকজন। এ সময় অনেককে ভিডিও করতেও দেখা গেছে। মারধরে দুই কিশোরের শরীরে রক্তাক্ত জখম হতেও দেখা গেছে। 

কিশোরদের পরিবারের অভিযোগ, শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত দফায় দফায় তাদের ওপর এ অমনাবিক নির্যাতন চালানো হয়। তাদের উদ্ধার করে উখিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হলে পরে চিকিৎসক কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন। 

নির্যাতনের শিকার কিশোররা জানায়, ‘৯ মাস আগে একটি ছাগল হারিয়ে যায়। ওই ছাগল চুরির সন্দেহে শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে রত্নাপালং তেলীপাড়া গ্রামের শাকিব (১৯) ও আনোয়ারের (২৫) নেতৃত্বে ৪-৫ জন কৌশলে ডেকে নিয়ে যায় তাদের ঘরে। কিছু বুঝে ওঠার আগে গাছের সঙ্গে বেঁধে ঝুলিয়ে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটায় তারা। ঘণ্টার পর ঘণ্টা দফায় দফায় শারীরিক নির্যাতন চালায়।’

নির্যাতনের শিকার এক কিশোরের বড় ভাই মামুন বলেন, ‘শাকিবদের ছাগলটি ৯ মাস আগে হারিয়ে গেছে। হঠাৎ আমার ভাইকে কাল ডেকে নিয়ে আমার সামনে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে বেধড়ক মারধর করেছে। আর আমি চিৎকার দিচ্ছিলাম। চিৎকার দেওয়া ছাড়া আমার কিছু করার ছিল না। কারণ তারা ওই এলাকার প্রভাবশালী। এই মুহূর্তে ইমনের অবস্থা আশঙ্কাজনক ।’

উখিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘এখনো পর্যন্ত আমরা কোন অভিযোগ পাইনি। তবে যে ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়েছে সেটি আমাদের নজরে এসেছে। ছাগল চুরির জন্য এভাবে কাউকে নির্যাতন করা যায় না। অভিযুক্তদের আমরা আইনের আওতায় আনব।’

ইত্তেফাক/এএএম